উয়েফা ইউরো ২০২০-এর নিলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

উয়েফা ইউরো ২০২০-এর জন্য নিলাম হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে ১৬তম ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের (যা সাধারণত ইউরো ২০২০ নামে পরিচিত) জন্য আয়োজক শহর নির্বাচন করা হয়েছিল। ২০১২ সালের ২১শে মার্চ তারিখে এই প্রক্রিয়াটি আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছিল এবং ২০১৩ সালের শেষার্ধে অথবা ২০১৪ সালের শুরুর দিকে আয়োজক শহর ঘোষণা করার অভিপ্রায় করা হয়েছিল। এককভাবে তুরস্কের আগ্রহ প্রকাশের পর স্কটল্যান্ড, প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ডওয়েলস এবং জর্জিয়াআজারবাইজানের একটি যৌথ দরপত্র প্রদান করা সত্ত্বেও ২০১২ সালের ৬ই ডিসেম্বর তারিখে উয়েফা ঘোষণা করেছে যে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের এই আসরটি ইউরোপের একাধিক শহরে আয়োজন করা হবে, যা এক অভূতপূর্ব সিদ্ধান্ত ছিল।

পটভূমি[সম্পাদনা]

এই আসরের চার বছর পূর্বে আয়োজিত ১৫তম ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপ, উয়েফা ইউরো ২০১৬-এর মতো এই আসরে দ্বিতীয়বারের মতো ২৪টি দেশ অংশগ্রহণ করবে।

প্রাথমিক নিলাম প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল যে, এই আসরটি এক, দুই অথবা তিনটি দেশ মিলিয়ে আয়োজন করবে। একাধিক শহরে এই আসরটি আয়োজনের ক্ষেত্রে, আয়োজক শহরের দেশগুলো তাদের সীমানা ভাগাভাগি করে নেবে, যেন দর্শক সহজেই এক শহর হতে অন্য শহরে গিয়ে খেলা উপভোগ করতে পারে। ধারণা করা হয়েছে যে, এই আসরের আয়োজক নির্ধারণী নিলাম প্রক্রিয়া উয়েফা ইউরো ২০১৬-এর মতোই হবে। এই আসরের আয়োজক শহর হিসেবে নির্ধারণ হওয়ার প্রাথমিক শর্তগুলো নিম্নে উল্লেখ করা হলো:[১]

  • শুধুমাত্র উয়েফাভুক্ত অথবা উয়েফা দ্বারা অনুমোদিত ৫৪টি ফুটবল রাষ্ট্রই এই আসরের আয়োজক হওয়ার যোগ্য।
  • দুটি রাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ নিলাম-ডাক অনুমোদিত এবং ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে তিন রাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ নিলাম-ডাক বিবেচনা করা যেতে পারে।
  • ইউরো ২০১৬-এর জন্য স্টেডিয়ামের প্রয়োজনীয়তা নিম্নে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে, ইউরো ২০২০ প্রাথমিকভাবে নির্দিষ্ট করা ৯টির পরিবর্তে ১০টি স্টেডিয়াম ব্যবহার করবে, সুতরাং ২০২০ নিলাম-ডাক প্রক্রিয়াটি একটি নতুন সূত্র গ্রহণ করতে পারে।
    • ৫০,০০০ ধারণক্ষমতা বিশিষ্ট ২টি স্টেডিয়াম
    • ৪০,০০০ ধারণক্ষমতা বিশিষ্ট ৩টি স্টেডিয়াম
    • ৩০,০০০ ধারণক্ষমতা বিশিষ্ট ৪টি স্টেডিয়াম

সময়সূচী[সম্পাদনা]

২০১২ সালের ২১শে মার্চ তারিখে, উয়েফা ঘোষণা করেছিল যে ২০১২ সালের ১৫ই মে তারিখের পূর্বে এই আসরের নিলামের প্রতি একাধিক আগ্রহ প্রকাশের ফলের নিলাম প্রক্রিয়াটি নিম্নের উল্লেখিত টেবিল অনুযায়ী নির্ধারিত হবে।[২] দ্বিতীয় নিলাম-ডাক ছাড়াই, উয়েফা জানিয়েছে যে ১৫ই মে তারিখের মধ্যে আগ্রহী শহরগুলো আয়োজক হওয়ার শর্তপূরণ সাপেক্ষে নিজেদের "অভিপ্রায় পত্র" জমা দিতে পারবে। ২০১২ সালের ১৬ই মে তারিখে, উয়েফা ঘোষণা করেছে যেহেতু একাধিক শহর তাদের আগ্রহ জমা দিয়েছে, তাই এর ফলে আনুষ্ঠানিক নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এই আসরের আয়োজক শহর নির্ধারণ করা হবে এবং উয়েফাভুক্ত ৫৪টি রাষ্ট্রের যে কেউ এই আসরের আয়োজক শহর হওয়ার জন্য যোগ্য, এমনকি তারা যদি নির্দিষ্ট সময়সীমার (১৫ই মে তারিখের) মধ্যে আগ্রহ প্রকাশ না করে থাকে। ২০১২ সালের ৩০শে জুন উয়েফা কর্তৃক প্রকাশিত এই আসরের আয়োজক শহর নির্বাচন প্রক্রিয়ার সময়সূচী নিম্নে উল্লেখ করা হলো:[৩]

পর্ব তারিখ টীকা
প্রথম ২১ মার্চ ২০১২ আনুষ্ঠানিকভাবে আগ্রহ ঘোষণা করা শুরু[২]
১৫ মে ২০১২ উয়েফার কাছে একটি "অভিপ্রায় পত্র" জমা দেওয়ার শেষ তারিখ[২]
দ্বিতীয় ৩০ জুন ২০১২ উয়েফা অবশিষ্ট নিলাম প্রক্রিয়ার সময়সূচী ঘোষণা করেছে[৩]
জুলাই / ডিসেম্বর ২০১২ উয়েফা তার অন্তর্ভুক্ত সকল জাতীয় দলগুলো সাথে আলোচনা করেছে[৩]
৬ ডিসেম্বর ২০১২ উয়েফা, ইউরো ২০২০ ইউরোপ মহাদেশের বিভিন্ন দেশ জুড়ে আয়োজিত হবে বলে ঘোষণা করেছে[৪]
২৮ মার্চ ২০১৩ নিলামের শর্ত এবং বিধিনিষেধ অনুমোদন
এপ্রিল ২০১৩ নিলামের শর্ত প্রকাশ এবং নিলামের বিভিন্ন পর্ব শুরু
সেপ্টেম্বর ২০১৩ আগ্রহী শহর দ্বারা তাদের নিলাম-ডাক আনুষ্ঠানিক নিশ্চিতকরণ
এপ্রিল / মে ২০১৪ নিলাম জমা দেওয়া এবং মূল্যায়ন পর্ব শুরু
সেপ্টেম্বর ২০১৪ উয়েফার নির্বাহী কমিটি কর্তৃক আয়োজক শহর নির্ধারণ

আগ্রহ প্রকাশ[সম্পাদনা]

২০১২ সালের বসন্তে, তুরস্ক এককভাবে, স্কটিশ, আইরিশ ও ওয়েলশ এবং আজারবাইজানীয় ও জর্জীয় যৌথভাবে আনুষ্ঠানিকভাবে উয়েফার কাছে এই আসরটি আয়োজন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল।[৫][৬] ২০১২ সালের ১৫ই মে তারিখের মধ্যরাত পর্যন্ত আগ্রহ প্রকাশ করার সময়সীমা ছিল, তবে উয়েফা ঘোষণা করেছিল যে ১৬ই মে তারিখেও আরও নিলাম-ডাক গ্রহণ করা হবে।[৩][৭]

বড় পরিসরে, আগ্রহ প্রকাশ করা শহরগুলো হতে একটি বেছে নেওয়াকে "হতাশাব্যস্ত গোষ্ঠী" হতে একটিকে বেছে নেওয়া হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল; বিশেষত উক্ত শহরগুলোর মধ্যে সমাদৃত তুরস্ক একই বছরে অনুষ্ঠিত ২০২০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক তাদের বৃহত্তম শহর ইস্তাম্বুলে আয়োজন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছিল, যা উয়েফা ইউরো ২০২০ আয়োজনের অন্তরায় হয়ে দাঁড়াতে পারে বলে শঙ্কা করা হয়েছিল।[৮] উয়েফার তৎকালীন সভাপতি মিশেল প্লাতিনি এর পূর্বে তুরস্ককে এই আসরটির আয়োজক করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে পরবর্তীতে জানা গেছে।[৯]

সেল্টিকের (স্কটল্যান্ড, প্রজাতন্ত্রী আয়ারল্যান্ড এবং ওয়েলস) নিলাম-ডাকটি একটি দেরিতে করা নিলাম-ডাক ছিল, যা তুরস্কের পর পুরো ইউরোপীয় অঞ্চল জুড়ে আগ্রহের অভাবের পরে উত্থাপিত হয়েছিল।[৬][১০]

২০২০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের জন্য বাকুর সফল নিলাম-ডাকের জন্য আজারবাইজানদের অগ্রাধিকারের কারণে আজারবাইজানীয় ও জর্জীয় জোটকে কিছু লোক সন্দেহ করেছিল।[১১] ত্রি-মুখী আইরিশ, স্কটিশ এবং ওয়েলশ নিলাম-ডাকের ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পরে, ২০১২ সালের ১৫ই মে তারিখে, জর্জীয় ক্রীড়া মন্ত্রী ভ্লাদিমির ভার্জেলাশভিলি শুধুমাত্র ইউরো ২০২০-ই আয়োজন করা তার দেশের উদ্দেশ্য হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন।[১২] নয় দিন পরে, আজারবাইজান উয়েফাকে জানিয়েছিল যে তারা ২০২০ সালের অলিম্পিক গেমসের নিলামের দাবিদার হিসেবে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির তালিকায় স্থান করে নিতে ব্যর্থ হওয়ার পরে তারা ২০২০ সালের ইউরোতে জর্জিয়ার সাথে যৌথভাবে আয়োজক হওয়ার পরিকল্পনা করেছিল।[১৩]

অন্যান্য বেশ কয়েকটি জাতি এই আসরের আয়োজক শহর হওয়ার জন্য কম প্রতিশ্রুতিবদ্ধ প্রচেষ্টা করেছিল, কিন্তু কখনও দৃঢ়ভাবে আগ্রহের ঘোষণা দেয়নি। যার মধ্যে বেলজিয়াম, বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা – ক্রোয়েশিয়া – সার্বিয়ার যৌথ নিলাম-ডাক, বুলগেরিয়া বা হাঙ্গেরির পাশাপাশি রোমানিয়ার একটি প্রস্তাব এবং জার্মানি এবং নেদারল্যান্ডসের একমাত্র নিলাম-ডাক ছিল।[১৪][১৫][১৬][১৭][১৮][১৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2016 bidding process given green light"UEFA.com। UEFA। ১৩ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১১ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. "Bidding process for UEFA EURO 2020 decided"UEFA.orgUEFA। ২১ মার্চ ২০১২। 
  3. "UEFA EURO 2020 bidding timeline and UEFA Super Cup hosts approved"UEFA.comUEFA। ৩০ জুন ২০১২। 
  4. "UEFA EURO 2020 to be held across continent"। UEFA.org। ৬ ডিসেম্বর ২০১২। 
  5. "TFF Başkanı'ndan Açıklama" [TFF President Announcement] (Turkish ভাষায়)। Turkish Football Federation। ১৭ এপ্রিল ২০১২। 
  6. "Scotland and Wales FAs may look to Ireland to aid Euro 2020 bid"RTÉ Sport। RTÉ। ১৫ মে ২০১২। 
  7. "Georgia, Azerbaijan plan bid to co-host Euro 2020"Sports IllustratedTime Inc. Sports Group। ৭ মার্চ ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০১২ 
  8. Warshaw, Andrew (২৭ এপ্রিল ২০১২)। "German decision not to bid for Euro 2020 spells bad news for Istanbul Olympic campaign"insidethegames.biz 
    "Rogge tells Turkey, Olympics or Euros but not both"The Times of IndiaThe Times Group। ৮ মে ২০১২। 
  9. "UEFA: Platini didn't 'promise' Euro 2020 to Turkey"The Times of India। Delhi: The Times Group। ২০ জানুয়ারি ২০১২। 
  10. "Scotland and Wales consider late joint bid to stage Euro 2020"The Guardian। London: Guardian Media Group। ১৪ মে ২০১২। 
  11. "Azerbaijan Only Pitching to Win Olympics Not UEFA Euro 2020"WorldFootballInsider.com। ৮ মার্চ ২০১২। 
  12. "Georgia makes solo bid for Euro 2020"AFP। ১৫ মে ২০১২। 
  13. "Azerbaijan, Georgia renew joint EURO 2020 bid"FIFA.comFIFA। ২৫ মে ২০১২। 
  14. "Haalt België Euro 2020 of WK −20 binnen?" [Can Belgium host Euro 2020 or the U-20 World Cup]। belgiumsoccer.be (Dutch ভাষায়)। ১২ এপ্রিল ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১২ 
  15. "Drei Länder für eine Fußball-EM" [Three countries for one European Championship]। dw.de (German ভাষায়)। Deutsche Welle। ৮ জুলাই ২০১০। 
  16. "Bulgaria confirma: vrea sa organizeze EURO 2020 impreuna cu Romania" [Bulgaria confirms: it wants to host Euro 2020 with Romania]। HotNews.ro (Romanian ভাষায়)। ১৯ নভেম্বর ২০০৭। 
  17. "Niersbach: EM-Bewerbung wäre "reizvoll"" [Niersbach: Euro hosting would be "attractive"]। FIFA.com (German ভাষায়)। FIFA। ৪ মার্চ ২০১২। 
  18. "România şi Ungaria vor să organizeze Euro 2020 sau 2024" [Romania and Hungary will host Euro 2020 or 2024]। România Liberă (Romanian ভাষায়)। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১০। 
  19. "KNVB richt zich nu op binnenhalen EK 2020" [KNVB now focusing on winning Euro 2020] (Dutch ভাষায়)। NU.nl। ১০ মার্চ ২০১১।