উন্নাও ধর্ষণ মামলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
উন্নাও ধর্ষণ মামলা
Protests for the Kathua Unnao Rape cases.jpg
উন্নাও এবং কাঠুয়া ধর্ষণ মামলার পক্ষে যৌথ বিক্ষোভ
স্থানউন্নাও, উত্তর প্রদেশ, ভারত
তারিখ৪ জুন ২০১৭ (2017-06-04)
হামলার ধরনধর্ষণ, এবং হত্যা

উন্নাও ধর্ষণ মামলাটি ৪ জুন ২০১৭ সালে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীর সঙ্গে ঘটা ধর্ষণের অভিযোগকে বোঝায়। এই মামলায় দুটি পৃথক অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর, রাজনীতিবিদ কুলদীপ সিং সেঙ্গার ধর্ষণের জন্য দোষী সাব্যস্ত হন এবং ২০ ডিসেম্বর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন।[১][২]

১১ জুলাই ২০১৮ সালে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো কর্তৃক প্রথম অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছিল, উত্তরপ্রদেশের বিধানসভার ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য কুলদীপ সিং সেঙ্গারকে, একটি ১৭ বছরের কিশোরীর ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত হিসাবে।[৩] দ্বিতীয় অভিযোগপত্রটি ১৩ জুলাই ২০১৮ সালে দায়ের করা হয়েছিল এবং কুলদীপ সিং সেঙ্গার এবং তার ভাই, তিন পুলিশ সদস্য এবং পাঁচ জনকে উন্নাও ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষীত কিশোরীর বাবার দ্বারা করা অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছিল।[৪][৫][৬]

২৮ জুলাই ২০১৯ সালে একটি ট্রাকের সংঘর্ষের ফলে ধর্ষণের শিকার হওয়া মহিলা গুরুতর আহত হয় এবং তাঁর দু'জন আত্মীয়ের মৃত্যুর পরে জানা যায় যে পরিবারটি হুমকির সম্মুখীন হয়েছিল এবং তাঁরা সাহায্যের জন্য ভারতের প্রধান বিচারপতির কাছে চিঠি দিয়েছিল। ৩১ জুলাই ২০১৯ সাল, সুপ্রিম কোর্ট এবং প্রধান বিচারপতি মামলাটি স্বীকার করেন।[৭]

ঘটনা[সম্পাদনা]

পূর্ববর্তী ঘটনা[সম্পাদনা]

ভুক্তভোগী মেয়েটির বক্তব্য ছিল যে তিনি শশী সিং, তাঁর ছেলে শুভম সিং এবং তাঁর মেয়ে নিধি সিং নামে এক মহিলার দ্বারা কর্মসংস্থানের সুরক্ষা অর্জনের জন্য কানপুরে চলে আসার জন্য প্রলুব্ধ হন। ১১ জুন ২০১৭ সালের রাতে, তিনি শুভম সিংয়ের সাথে যান এবং পরে শুভম সিং ও তার চালক অবোধেশ তিওয়ারি একাধিকবার ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করা হয়।[৮] পরে তাকে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা দ্বারা আক্রমণ করা হয় এবং ব্রজেশ যাদব একজনের কাছে ₹৬০,০০০ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করা হয়েছিল বলে অভিযোগ করা হয়।[৮] শুভম সিং এবং অবোধেশ তিওয়ারির বিরুদ্ধে ২০ জুন ২০১৭ সালে ভারতীয় দণ্ডবিধির (আইপিসি) ধারা ৩৩৩ এবং ৩৬৬ এর অধীনে প্রথম তথ্য প্রতিবেদন (এফআইআর) নিবন্ধিত হয়। এর একদিন পর, উত্তরপ্রদেশ পুলিশ আক্রান্ত ব্যক্তিকে আড়াইয়ার একটি গ্রামে খুঁজে পায় এবং তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করে। ২২ জুন ২০১৭-তে, তিনি ফৌজদারি কার্যবিধির কোড ১৬৪ এর অধীনে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে তার বক্তব্য রেকর্ড করেন[৯] যা তিনি তাঁর আতঙ্কের কথা বর্ণনা করেন এবং অপহরণ ও গণধর্ষণের জন্য শুভম সিং, অবোধেশ তিওয়ারি, ব্রজেশ যাদব এবং অন্যান্য অজ্ঞাত হামলাকারীর নাম করেন।[৮] পরে যৌন অপরাধ থেকে শিশুদের সুরক্ষা আইন (পোকসো) এর আওতায় একটি দ্বিতীয় এফআইআর নথিভুক্ত করা হয় এবং পরে অভিযুক্তদের আটক করা হয়।

পরবর্তী অবস্থা[সম্পাদনা]

প্রতিবাদ[সম্পাদনা]

ঘটনাটি এপ্রিল ২০১৮ সালে ভারতে শিরোনাম হয়। উভয় ভুক্তভোগীর বিচারের দাবিতে ভারতজুড়ে যৌথ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘটনার নিন্দা জানিয়ে একটি বিবৃতি জারি করেন। ২৮ জুলাই ২০১৯ সালে ট্রাকের সংঘর্ষের পরে, ৩০ জুলাই ২০১৯ সালে সংসদে বিরোধীদের দ্বারা বিক্ষোভ'সহ আরও একবার প্রতিবাদ হয়।[১০][১১]

ট্রাকের সংঘর্ষ[সম্পাদনা]

১৫ এপ্রিল ২০১৮ সাল, নতুন দিল্লির পার্লামেন্ট স্ট্রিটয়ে উন্নাও ধর্ষণ মামলা এবং কাঠুয়া ধর্ষণ মামলা-এর জন্য যৌথ বিক্ষোভ।

২৮ জুলাই ২০১৯ সাল, ধর্ষণের শিকার হওয়া মহিলা এবং তার আইনজীবী গুরুতর আহত হয় এবং তার পরিবারের দুই সদস্য মারা যায় একটি ট্রাক তাদের গাড়িতে ধাক্কা দেওয়ার পর। ট্রাকটি লাইসেন্স প্লেট কালো রঙ করা ছিল এবং ধর্ষণের শিকার হওয়া মহিলাকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নিযুক্ত পুলিশ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন না, এই ব্যাখ্যা দিয়ে যে ধর্ষণের শিকার হওয়া মহিলা যে গাড়ীতে তাঁর যাত্রা করার মত কোনও জায়গা ছিল না।[১২] এই পরিস্থিতিতে সাক্ষী এবং তার পরিবারকে অপসারণের ষড়যন্ত্রের বিস্তৃত সন্দেহের দিকে পরিচালিত করে।[১৩]

দণ্ডাজ্ঞা[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১ ই ডিসেম্বর, সেঙ্গার ধর্ষণের জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়।[১] ২০ ডিসেম্বর, তাকে দিল্লির একটি আদালত যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডিত করে এবং তাকে ২৫ লাখ টকা জরিমানা করা হয়, যার মধ্যে বিচার ও বিচারের ব্যয় মেটাতে রাজ্য সরকারকে ১৫ লক্ষ রুপি দেওয়া হবে।[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Unnao rape case: Expelled BJP MLA Kuldeep Singh Sengar convicted"The Times of India। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-১৬ 
  2. Sharma, Poonam (২০ ডিসেম্বর ২০১৯)। "Expelled BJP MLA Kuldeep Sengar gets life for raping Unnao minor, fined Rs 25 lakh"India Today। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২০ 
  3. Rashid, Omar (২০১৮-০৭-১১)। "Unnao gang rape case: BJP MLA Kuldeep Singh Sengar named in CBI charge sheet"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-১৫ 
  4. "Unnao case: CBI files charge sheet against MLA, 9 others for criminal conspiracy"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৭-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-১৫ 
  5. "Too early to act, BJP on CBI chargesheet against MLA in Unnao gangrape case"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-১৫ 
  6. "Unnao rape case: Will arrest BJP MLA Kuldeep Singh Sengar, SIT tells Allahabad HC; Highlights here"financialexpress.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৮ 
  7. Correspondent, Legal (২০১৯-০৭-৩১)। "Unnao rape case: Supreme Court takes note of complaint by survivor's family"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-০১ 
  8. "सामूहिक दुष्कर्म के बाद किशोरी को बेचा"Dainik Jagran (হিন্দি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৫-২০ 
  9. Pandey, Sushant (২০১৮-০১-১২)। "Examination of witness under section 164 of CrPc - iPleaders"iPleaders (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৫-২০ 
  10. "Unnao protests LIVE updates: Rape case rocks Parliament, Pralhad Joshi tells Oppn don't politicise it"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৭-৩০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ 
  11. "Unnao Case: Opposition attacks govt over Unnao accident case; 'don't politicise issue,' counters Union minister"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ জুলাই ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ 
  12. "Unnao rape survivor accident: What happened and what we know so far"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-৩০ 
  13. "The Hindu" 
  14. Team, BS Web (২০১৯-১২-২০)। "Unnao rape: Kuldeep Sengar sentenced to life imprisonment by Delhi court"Business Standard India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২০ 

বহিসংযোগ[সম্পাদনা]