ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের কোচদের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের কোচ একধরণের পদবিশেষ। ১৯৮৬ সালে সর্বপ্রথম এ পদ সৃষ্টি করা হয়। ২০১৬ সাল পর্যন্ত সর্বমোট নয়জন দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তন্মধ্যে, পিটার মুরেজ দুইবার এ পদে ছিলেন। একজন কোচ মূলতঃ দলের খেলোয়াড়দের নির্বাচন করা, প্রথম একাদশ নির্বাচনসহ গণমাধ্যমে স্বাক্ষাৎকার প্রদান করে থাকেন। সচরাচর কোচ হিসেবে তাঁদেরকে আখ্যায়িত করা হলেও অতীতে তাঁরা দলীয় ব্যবস্থাপক বা দলীয় পরিচালকরূপে পরিচিতি পেতেন।

কোচদের তালিকা[সম্পাদনা]

নিম্নবর্ণিত ব্যক্তিগণ ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের মর্যাদা পেয়েছেন। ডানকান ফ্লেচার সর্বাধিক আট বছর এ দায়িত্ব পালন করেছেন। একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে পিটার মুরেজ দুইবার দলকে পরিচালনা করেছেন। বর্তমান কোচ হিসেবে ট্রেভর বেলিস ২০১৫ সাল থেকে কর্মরত।

নাম মেয়াদকাল জাতীয়তা
মিকি স্টুয়ার্ট ১৯৮৬-১৯৯২ ইংল্যান্ড ইংরেজ
কিথ ফ্লেচার ১৯৯২-১৯৯৫ ইংল্যান্ড ইংরেজ
রে ইলিংওয়ার্থ ১৯৯৫-১৯৯৬ ইংল্যান্ড ইংরেজ
ডেভিড লয়েড ১৯৯৬-১৯৯৯ ইংল্যান্ড ইংরেজ
ডানকান ফ্লেচার ১৯৯৯-২০০৭ জিম্বাবুয়ে জিম্বাবুইয়ান
পিটার মুরেজ ২০০৭-২০০৯ ইংল্যান্ড ইংরেজ
অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার ২০০৯-২০১৪ (টেস্ট: ২০১২-২০১৪) জিম্বাবুয়ে জিম্বাবুইয়ান
অ্যাশলে জাইলস ২০১২-২০১৪ (ওডিআই ও টি২০আই) ইংল্যান্ড ইংরেজ
পিটার মুরেজ ২০১৪-২০১৫ ইংল্যান্ড ইংরেজ
ট্রেভর বেলিস ২০১৫- অস্ট্রেলিয়া অস্ট্রেলীয়

দায়িত্ব বিভাজন[সম্পাদনা]

২০১২ সালে অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার ওডিআই এবং টি২০আইয়ের কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি নেন। কিন্তু, টেস্টে কোচ হিসেবে স্বপদে ছিলেন তিনি। অ্যাশলে জাইলস সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ইংল্যান্ড দলকে পরিচালনার দায়িত্ব পেলেও টেস্ট দলে জড়িত হননি।[১] ব্যতিক্রম হিসেবে ফ্লাওয়ার ও পিটার মুরেজের সাথে অ্যাশলে জাইলস দায়িত্ব পালন করেছেন।[২]

বিদেশী কোচ[সম্পাদনা]

পিতা-মাতা ইংরেজ হওয়া স্বত্ত্বেও ডানকান ফ্লেচার প্রথম বিদেশী কোচ হিসেবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের দায়িত্ব পেয়েছিলেন। জিম্বাবুয়েতে জন্মগ্রহণকারী অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার এবং বর্তমান ইংল্যান্ডের কোচ ট্রেভর বেলিস অস্ট্রেলীয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]