আলাপ:ন্যাফথালিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

ভূমিকা[সম্পাদনা]

দাদা, নিবন্ধটা খুব ভালো হচ্ছে, কিন্তু ভূমিকায় বাংলাদেশের কথা আলাদা করে না বললেই ভাল হত না কি? ন্যাপথ্যালিন তো সারা পৃথিবীর অনেক জায়গাতেই বহুল ব্যবহার হয়। ঐ যে বিশ্বকোষের নৈর্ব্যক্তিক দৃষ্টিভঙ্গীর ব্যাপারটার জন্য...?--ব্যা করণ (আলাপ) ০৩:৪৫, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)

আপনার সুন্দর মতের জন্য ধন্যবাদ। আমি এই দৃষ্টিকোন থেকে বাংলা নিবন্ধে স্বদেশী আনার চেষ্টা করেছি কারণ বাংলা নিবন্ধ আমরা শুধু বাঙালিরাই পড়ি। আর নিজদেশের তথ্য আমার কাছে আপন মনে হয়। তবে আপনি চাইলে এটা পরিবর্তন করে দিতে পারি। তবে একটা প্রশ্ন রাখি। পেট্রোরাসায়নিক এ সৌদি আরবের কারখানার ছবি দেয়া হয়েছে। কিন্তু বিশ্বে অন্য জায়গাতেও তো কারখানা আছে। :-D

এফ রহমান বাংলাদেশী (আলাপ) ০৩:৫৩, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)

দাদা, শুধু বাংলাদেশের প্রতিটি -এর জায়গায় বাংলাদেশ সমেত পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গার অনেক লিখে দিলেই সবদিক রক্ষা হয়। :) আর প্লিজ পশ্চিমবঙ্গকে ভুলে যাবেন না। ব্যথা পাই।--ব্যা করণ (আলাপ) ০৪:০১, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
Gnome-edit-redo.svgএফ রহমান: নিবন্ধের প্রথম তিন লাইন ন্যাপথ্যালিন বাংলাদেশের প্রতিটি পরিবারেই ব্যবহৃত হয়। মা চাচীরা কাপড়ের ভাঁজে ন্যাপথ্যালিনের গুটি রেখে দেন। এর ফলে কাপড় পোকায় কাটে না ব্যাবহার অংশে স্থানান্তর করারা পরামর্শ দিচ্ছি। এর পরিবর্তে নিবন্ধটি এই ভাবে শুরু করা যেতে পারে ন্যাপথ্যালিন একটি রাসায়নিক পদার্থ। দশটি কার্বন পরমানুর সাথে আটটি হাইড্রোজেন পরমানু যুক্ত হয়ে ন্যাপথালিন অনু গঠিত হয়। ন্যাপথালিনের রাসায়নিক সংকেত C10H8 । এটা সরলতম পলিসাইক্লিক এরোমেটিক হাইড্রোকার্বন। এটা সাদা দানাদার স্ফটিক এবং উগ্র গন্ধযুক্ত।[১০] কয়েকটি বেনজিন চক্র পরষ্পর যুক্ত হয়ে ন্যাপথ্যালিন গঠন করে বলে একে পলিসাইক্লিক যৌগ বলা হয়। একদা পতঙ্গ গোলা বা মথ বল হিসেবে এটি বহুল ব্যবহৃত হত। -- রনটি পোদ্দার (আলাপ) ০৬:২৮, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
ব্যা করণ ,। আমি পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাকে মিলিয়েই বাংলাদেশ বলি। সেই সময়ে জন্মাইনি তো কি হয়েছে আমি কিন্তু বঙ্গভঙ্গের বিরোধী। জানি অসম্ভব তবুও স্বপ্ন দেখি জার্মানীর মত একদিন দুই বাংলা মিলে বাংলাদেশ হবে। যদিও এই ব্যাপারে অনেকেই অনেক মত পোষণ করেন। কিন্তু ব্যক্তিগত ব্যাপারের আমার মতটা শুধু আমারই হওয়া উচিত। তাই না!

এফ রহমান বাংলাদেশী (আলাপ) ০৭:২৯, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)

একদম ঠিক। আমিও ব্যক্তিগতভাবে ^ এই ব্যাপারে একশো ভাগ একমত।-ব্যা করণ (আলাপ) ১৬:৩৯, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
রনটি ভাই, ইংরেজী উইকিতে ওখান থেকে শুরু। আমি জাস্ট বৈচিত্র আনতে আগে বাংলার কথা জুড়ে দিয়েছিলাম। যাই হোক। কম্পিউটারে বসে শুধরে দেবো। এফ রহমান বাংলাদেশী (আলাপ) ০৭:৩৪, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
Gnome-edit-redo.svgএফ রহমান:, আমাদের সবসময় মনে রাখতে হবে উইকিপিডিয়া একটি বিশ্বকোষ। এটি কোন ব্লগ নয়। এখানে তথ্য দিতে হয় নিরপেক্ষ ও আবেগহীন ভাবে, এবং অবশ্যই নিরপেক্ষ তথ্যসূত্র দিয়ে। এই নিয়ে উইকিপিডিয়ার সুস্পষ্ট নীতিমালা রয়েছে। মা চাচীরা কাপড়ের ভাঁজে ন্যাপথ্যালিনের গুটি রেখে দেন। এই রকম ভাবে না লেখাই শ্রেয়। যেহেতু এটি একটি বিশ্বকোষ তাই বাংলা উইকিপিডিয়া শুধুমাত্র বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। যখন আপনি বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গের স্থানীয় বিষয় সম্বন্ধে নিবন্ধ লিখবেন, তখন আপনি শুধুমাত্র বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গে কি হয় তা লিখতে পারেন, কিন্তু যখন আপনি সমগ্র বিশ্বে ব্যবহৃত কোন বিষয় সম্বন্ধে নিবন্ধ লিখবেন, তখন বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গে কি হয়, সেটা লেখার কোন প্রয়োজন নেই। ন্যাপথালিন সমগ্র বিশ্বে ব্যবহৃত হয়, তাই সর্বানরনটি দুজনেই এক্ষেত্রে ঠিক কথাই বলেছেন। -- বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ০৮:৩৯, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
ভাইসাহেব আমি আবেগের বেগটা ঠিকই বুঝতে পেরেছি। আর আমি কিন্তু তাদের সাথে খুব বেশী দ্বিমত পোষণ করিনি। যাই হোক আমি বলেছিলাম ল্যাপটপে বসে শুধরে দেবো। তার আগেই আপনি উপদেশ এবং সংশোধন দুটোই করে দিলেন। অবশ্যই আপনাকে আমি ডাবল ধন্যবাদ দেবো। পাশে থাকবেন। ধন্যবাদ। ধন্যবাদ। এফ রহমান বাংলাদেশী (আলাপ) ১৩:৪৬, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
এফ রহমান, অবশ্যই পাশে থাকব। :-) আপনার রসায়ন সংক্রান্ত নিবন্ধগুলির জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। -- বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ১৩:৫২, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)
দাদাভাই ধন্যবাদ গৃহীত হইলো। :-p এফ রহমান বাংলাদেশী (আলাপ) ১৩:৫৮, ১৯ জুলাই ২০১৪ (ইউটিসি)