আর্নল্ড রস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আর্নল্ড ইফরাইম রস
Arnold Ross in his later years with combed-back white and gray hair, exposed forehead, and wearing a jacket in front of a green chalkboard
১৯৭০ সালে রস
জন্মআর্নল্ড ইফরাইম চাইমোভিচ
(১৯০৬-০৮-২৪)২৪ আগস্ট ১৯০৬
শিকাগো, ইলিনয়স, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
মৃত্যু২৫ সেপ্টেম্বর ২০০২(2002-09-25) (বয়স ৯৬)
নাগরিকত্বমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
কর্মক্ষেত্রসংখ্যা তত্ত্ব
প্রতিষ্ঠানক্যালিফোর্নিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি, সেন্ট. লুইস বিশ্ববিদ্যালয়, নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়, ওহাইয়ো, ওহাইয়ো বিশ্ববিদ্যালয়
প্রাক্তন ছাত্রশিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়
সন্দর্ভসমূহ"On Representation of Integers by Indefinite Ternary Quadratic Forms of Quadratfrei Determinant" (১৯৩১)
পিএইচডি উপদেষ্টাএল. ই. ডিকসন
অন্যান্য 
শিক্ষায়তনিক উপদেষ্টা
সামুইল শাতুনোভস্কি,
ই.এইচ.ম্যুর
পরিচিতির কারণগণিত শিক্ষা
(রস গণিত কর্মসূচি)
স্ত্রী/স্বামীবার্থা (বি) হ্যালি হোরেকার
ম্যাডেলিন গ্রিন

আর্নল্ড রস ছিলেন একজন গণিতজ্ঞ ও শিক্ষাব্রতী, যিনি রস গণিত কর্মসূচি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, যা ছিল উচ্চবিদ্যালয়ের বিশেষ প্রতিভাধর শিক্ষার্থীদের জন্য সংখ্যা-তত্ত্ব বিষয়ক একটি গ্রীষ্মকালীন কার্যক্রম। তিনি শিকাগোতে জন্মেছিলেন, কিন্তু তার যৌবনকাল তিনি ইউক্রেনেওডেসাতে কাটিয়েছিলেন, যেখানে তিনি সামুইল শাতুনোভস্কির সহপাঠী ছিলেন। আনুষ্ঠানিক শিক্ষাগত যোগ্যতার অভাব থাকা সত্ত্বেও রস শিকাগো প্রত্যাবর্তন করে শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের ই.এইচ.ম্যুর-এর অধীন স্নাতক কোর্সে  ভর্তি হন। ১৯৩১ সালে তিনি ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন এবং একই বছরে তিনি তার স্ত্রী বি-কে বিয়ে করেন।

১৯৪৬ সালে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সভাপতি হওয়ার আগে তিনি সেন্ট. লুইস বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার পাশাপাশি আরো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেছেন। তিনি গণিত বিষয়ে একটি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চালু করেন যা পরবর্তীতে ১৯৫৭ সালে শিক্ষার্থীদের সহযোগে রস গণিত কর্মসূচি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। তিনি ১৯৬৩ সালে ওহাইয়ো বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সভাপতি হলে কর্মসূচিটি তার হাত ধরে ওহাইয়ো বিশ্ববিদ্যালয়েও অগ্রসর হয়। ১৯৭৬ সালে পদত্যাগে বাধ্য হলেও ২০০০ সালের আগ পর্যন্ত রস এই কর্মসূচি চালিয়ে যান।

কর্মসূচিটি রসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কর্মূসূচি হিসেবে পরিচিত। এই কর্মসূচির অংশগ্রহণকারীরা তখন থেকে বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা জুড়ে বিশিষ্ট গবেষণায় নিজেদের স্থান করে নেয়া অব্যাহত রেখেছে। তাঁর কর্মসূচিটি জ্ঞান-বিজ্ঞানের বেশ কয়েকটি শাখা-প্রশাখাকে অনুপ্রাণিত করেছিল এবং গণিতবিদদের দ্বারা এটি অত্যন্ত প্রভাবশালী একটি কর্মসূচি হিসাবে স্বীকৃত ছিল। তার দিক নির্দেশনা এবং সেবার স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি একটি সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি এবং বিভিন্ন বৃত্তিমূলক সহযোগিতা পদক অর্জন করেছেন।

বাল্যকাল এবং কর্মজীবন[সম্পাদনা]

বিদ্যালয়ের নির্ধারিত পোশাকে কিশোর রস

রস ১৯০৬ সালের ২৪শে আগস্ট শিকাগোতে ইউক্রেনীয়-ইহুদি অভিবাসী পিতামাতার ঘরে[১] আর্নল্ড ইফ্রাইম চেইমোভিচ[২] নামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি তার পিতামাতার একমাত্র সন্তান ছিলেন।[৩] তাঁর মা শারীরিক থেরাপিস্টের কাজ করে পরিবাররে অর্থের যোগান দিতেন। ১৯০৯ সালে রস তার যৌথ পরিবারের সহায়তার জন্য মায়ের সাথে  ইউক্রেনের ওডেসাতে ফিরে এসেছিলেন, এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধ এবং রাশিয়ার বিপ্লব শুরুর পরে তিনি একদা তিনি সেখানে থেকে যান।[৪] দুটি ঘটনাই ওই অঞ্চলে ব্যাপক দুর্ভিক্ষ ও অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।[৩] রস তার মায়ের নির্দেশ মোতাবেক রুশ ভাষা শিখেছিলেন, এবং মায়ের অনুপ্রেরণা থিয়েটার এবং ভাষার প্রতি তার ভালবাসা তৈরি করেছিল। রসের মা তাকে পড়তে উত্সাহিত করেছিলেন, যা তিনি প্রায়শই পড়তেন এবং ওডেসাতে কোনও পাবলিক লাইব্রেরি না থাকায় একটি প্রাইভেট লাইব্রেরিতে তার মা তাকে সদস্য করে দিয়েছিলেন। তিনি তাঁর প্রিয় চাচাকে, যিনি ছিলেন একজন রঞ্জন-রশ্মি পরীক্ষক, গভীর সম্মান ও শ্রদ্ধার সহিত স্মরণ করেন যিনি তাকে গণিতের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। চাচা তার প্রতিভাবান পুত্রকে শিক্ষিত করার জন্য সামুইল শাতুনোভস্কিকে নিয়োগ করেছিলেন এবং রস এতে যোগ দিতে নিজে থেকে যোগদানের আকাঙ্খা ব্যক্ত করেছিলেন। মূল্যস্ফীতিজনিত কারণে অর্থের মান কমে গিয়েছিলো এবং টাকা খুব সামান্য বলে মনে হওয়ায় শাতুনোভস্কিকে তার শিক্ষকতার মজুরি হিসেবে দুই পাউন্ড ফরাসি শক্ত মিঠাই প্রদান করা হতো। এই সময়ের মধ্যে, রসকে পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে শেখানো হয়নি বা জ্যামিতিক প্রমাণের উপর কোনো বিষয় পড়ানো হয়নি। তাঁর জ্যামিতি শিক্ষক শিক্ষার্থীদেরকে তাদের প্রতিটি পরীক্ষা এবং ত্রুটির জন্য ব্ল্যাকবোর্ডে সূত্রগুলির প্রমাণ এবং ন্যায্যতা দিতে বলতেন। তৎকালীন সময়ে দুর্ভিক্ষের কারণে অনেক বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ছিল, তবে ওডেসা বিশ্ববিদ্যালয় আবার চালু হয়েছিল এবং উঠতি বয়েসী অনেক তরুণ শিক্ষার্থীদেরকে যোগদানের সুযোগ দেয়া হয় যার মধ্যে রস ছিলেন অন্যতম।

১৯২২ সালের কাছাকাছি কোনো এক সময়ে ওডেসায় তরুণ রস

শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে ই.এইচ. ম্যুরের তত্ত্বাবধানে টপোগণিত অধ্যয়নের লক্ষ্যে ১৯২২ সালে তৎকালীন সোভিয়েত রাশিয়ার অন্তর্গত ওডেসা ত্যাগ করে শিকাগো প্রত্যাবর্তনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। বাড়ি যাওয়ার প্রসঙ্গে সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর, তিনি তাদের পারিবারিক এক বন্ধুর বইবাঁধাইয়ের দোকানে কাজ করেছিলেন এবং এর পাশাপাশি লুইস ইনস্টিটিউটে ইংরেজি শেখা চালিয়ে যান। তিনি ১৯২২ সালে তার নামও পরিবর্তন করে চাইমোভিচ থেকে রস রেখেছিলেন।[২] রস মুরের কোর্সে শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে এক মেয়াদে ভর্তির জন্য দোকানে এক বছর কাজ করা থেকে অর্জিত তার মোট বেতন ব্যয় করেছিলেন। রসের অপ্রথাগত পারিপার্শ্বিক অবস্থার কথা জেনে ম্যুর তার প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিয়েছিলেন এবং টপোগণিত ক্লাসে একমাত্র স্নাতক হিসাবে রসের যোগদানের ব্যবস্থা করেছিলেন।

মুরের শিক্ষার ধরনে তিনি একটি অপূর্ণাঙ্গ অভিমত প্রস্তাব করেছিলেন এবং এটি সম্পূর্ণ করার জন্য ছাত্রদের উপর কার্যভার দিয়েছিলেন; যেন শিক্ষার্থীরা পাল্টা অপূর্ণাঙ্গ অভিমতের দ্বারা প্রতিক্রিয়া জানাতে পারে যেটার পক্ষে তারা অবস্থান করতে পারবে। রস মুরের পদ্ধতিটিকে উত্তেজনাপূর্ণ বলে মনে করেছিল, এবং তার শিক্ষাদানের পদ্ধতি রসের নিজস্ব শিক্ষাদানের পদ্ধতিকে প্রভাবিত করেছিল। রস একটি বি.এস. ডিগ্রি সহ স্নাতক হন[৫] এবং লিওনার্ড ইউজিন ডিকসনের গবেষণা সহায়ক হিসাবে তার অধ্যয়ন অব্যাহত রাখেন। ১৯৩১ সালে রস একটি এম.এস. ডিগ্রি অর্জন করেন এবং শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে লিওনার্ড ইউজিন ডিক্সনের তত্ত্বাবধানে পিএইচ.ডি. ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। রস এর গবেষণার মূল শিরোনাম ছিল অনির্দিষ্ট টার্নারি দ্বিঘাত বিন্যাসের দ্বারা পূর্ণসংখ্যার উপস্থাপনা। তিনি তার প্রথম তিন মাসের বেতন দেননি, যা তিনি পরবর্তীতে ডিকসনের কাছে জমা দেন।

রস ১৯৩৩ সালে সুরকার-গায়িকা বার্থা (বি) হ্যালি হোরেকার-কে বিয়ে করেন যিনি ছিলেন শিকাগো অবস্থানকালীন রসের এক প্রতিবেশীর কন্যা। ১৯৩২ সালে জাতীয় গবেষণা কাউন্সিল কর্তৃক একটি ফেলোশিপ পেয়েছিলেন[৬], এবং ১৯৩৩ সাল পর্যন্ত ক্যালিফোর্নিয়ার ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজিতে এরিক টেম্পল বেলের সাথে জাতীয় গবেষণা কাউন্সিলের পোস্টডক্টোরাল সহযোগী হিসাবে কাজ করেছিলেন। রস শিকাগোতে ফিরে এসে চরম-মন্দার সময়কালে পিএইচ.ডি. ডিগ্রিধারীবৃন্দ কর্তৃক চালুকৃত পিপলস জুনিয়র স্কুল নামের একটি পরীক্ষামূলক স্কুলের গণিত বিভাগের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন, যেখানে তিনি পদার্থবিজ্ঞানও পড়িয়েছিলেন। রস ১৯৩৩ সালে সেন্ট লুই বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক হয়েছিলেন এবং প্রায় ১১ বছর সেখানে দায়িত্ব পালন করেন। একটি সাক্ষাত্কারে তিনি বলেছিলেন যে তিনি এমন এক শিক্ষার্থীর সমর্থন করেছিলেন, যিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা হিসেবে গণিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।  কৃষ্ণাঙ্গ শিক্ষার্থী ভর্তির বিষয়ে ব্যাপক অ-জনপ্রিয়তা থাকা সত্ত্বেও এই ব্যতিক্রমধর্মী বিষয়ের হাত ধরে কালো বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ভর্তি করতে আরম্ভ করেছিল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়, রস মার্কিন নৌবাহিনীর জন্য গবেষণা গণিতবিদ হিসাবে কাজ করেছিলেন। সেন্ট. লুইস বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকাকালীন সময়ে তিনি হাঙ্গেরির গণিতবিদ গাবোর সেগোর সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন, যিনি রসকে ১৯৮১ সালে ব্রাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রীষ্মকালিন বিদ্যালয় কর্মসূচিতে যোগদানের জন্য সুপারিশ করেছিলেন, যা যুদ্ধে সহায়তা করার জন্য যুবা বিজ্ঞানীদের প্রশিক্ষিত করেছিল; এবং রস এই কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিল। ১৯৪৬ সালে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের প্রধান হিসাবে পদ গ্রহণের আগে তিনি ১৯৪১ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত মাঝেমধ্যে স্ট্রমবার্গ-কার্লসনের গবেষণাগারে প্রক্সিমিটি-ফিউজের উপর কাজ করেছিলেন। বিদ্যালয়ের গবেষণার পরিবেশ উন্নত করার লক্ষ্যে বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে তিনি বিশিষ্ট গণিতবিদদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, যার মধ্যে অন্যতম ছিলেন পল এরদো, যাকে রস একজন পূর্ণ-অধ্যাপক করেছিলেন।

রস গণিত কর্মসূচি[সম্পাদনা]

১৯৪৭ সালে নটরডেমে থাকাকালীন হাই স্কুল এবং জুনিয়র কলেজের শিক্ষকদের জন্য "পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তিগত আবিষ্কারের কাজ" নামে প্রাধান্য দিয়ে রস একটি গণিতের প্রোগ্রাম শুরু করেছিলেন। ১৯৫৭ সালে, শিক্ষক পুনঃ প্রশিক্ষণের জন্য ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশনের  স্পুতনিক-পরবর্তী তহবিলের মাধ্যমে এবং রস উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যোগদানের সুযোগ করে দিলে কর্মসূচিটি বিস্তৃতি লাভ করেছিল। এই বিস্তৃতিই কর্মসূচিটিকে রস গণিত কর্মসূচিতে পরিণত করেছিল, যা ছিল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিভাধর শিক্ষার্থীদের জন্য একটি গ্রীষ্মকালীন গণিত কর্মসূচি। এই প্রোগ্রামটি আট সপ্তাহ স্থায়ী এবং গাউসিয়ান পূর্ণসংখ্যা এবং চতুষ্কোণ পারস্পরিক সম্পর্কের মতো বিষয়গুলিতে পূর্ব জ্ঞান না থাকা শিক্ষার্থীরাও এতে অংশগ্রহণ করে। যদিও কর্মসূচিটি গাউস-অনুপ্রাণিত[৭] নীতিবাক্য "সরল জিনিস নিয়ে গভীরভাবে চিন্তাভাবনা করুন" দ্বারা সংখ্যাতত্ত্ব শেখায়, তবে এর প্রাথমিক লক্ষ্যটি হলো প্রাক-কলেজ শিক্ষার্থীদের একটি বৌদ্ধিক অভিজ্ঞতা প্রদান করা[৮] , যা তার বর্ণনা অনুযায়ী ছিল "এক জীবনব্যাপী অন্বেষণের একটি স্বতন্ত্র "শিক্ষানবিশি"। যা উচ্চবিদ্যালয় আপনাকে শেখায় না অনুযায়ী কর্মসূচিটি  তার কঠোর নিয়ম-নীতির জন্য পরিচিত এবং আমেরিকার "সবচেয়ে কঠোর সংখ্যা-তত্ত্বের প্রোগ্রাম" হিসাবে বিবেচিত। কর্মসূচিটি কেউ অপরিবর্তিত রেখে পাস্ করে বেরিয়ে যায় না- এমন উক্তি করার জন্য রস বেশ সুপরিচিত ছিলেন।[৯]

কেবলমাত্র গণনার উপর এই জোর প্রায়শই এমন শিক্ষার্থী তৈরি করে যারা কখনও নিজের জন্য চিন্তাভাবনা করেননি, যারা কখনও জিজ্ঞাসা করেননি যে জিনিসগুলি কেন তাদের নিজেদের মতো করে কাজ করে, যারা ভবিষ্যতের বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবনের পথে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত নন। এটা স্পষ্ট যে, রস কর্মসূচিটি যে ধরণের শিক্ষাদানে সাগ্রহে চেষ্টা করে তা হলো চিন্তাধারার স্বাধীনতা এবং প্রশ্নবিদ্ধ করার মনোভাব।

রস কর্মসূচির প্রচারপত্র[১০]

প্রোগ্রামটিতে সাধারণত প্রথম বর্ষের ৪০-৫০ জন শিক্ষার্থী, ১৫ জন অগ্রবর্তী  শিক্ষার্থী এবং ১৫ জন পরামর্শদাতা থাকে। শিক্ষার্থীরা আবেদনপত্রের দ্বারা ভর্তি হয়ে থাকে - যেখানে গাণিতিক প্রশ্নগুলির একটি সেট অন্তর্ভুক্ত থাকে অথবা আবেদনপত্রে শেখার এক দুর্দান্ত আগ্রহ দেখিয়ে ভর্তি হতে পারে। প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা প্রাথমিক সংখ্যা তত্ত্বের বক্তৃতার জন্য এবং সমস্যা সেমিনারগুলির জন্য সাপ্তাহিক তিনবার মিলিত হন। তাদের বিজ্ঞানীদের মতো চিন্তা করতে এবং সমস্যাগুলির জন্য উত্থাপিত নিজস্ব প্রমাণ এবং অনুমানগুলি তৈরি করতে উত্সাহিত করা হয়, যা তাদের বেশিরভাগ অবসর সময় দখল করে। রস দৈনিক সমস্যা সেটগুলি ডিজাইন করেছিলেন, এবং তার স্বাক্ষর নির্দেশে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন ছিল: "সম্ভব হলে প্রমাণ করুন বা প্রমাণ করুন এবং উদ্ধার করুন।" উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচিতে শিক্ষার্থী এবং পরামর্শদাতা হিসেবে ফিরে আসতে বলা হয়। ফিরে আসা শিক্ষার্থীরা প্রতিদিনের বক্তৃতাগুলিতে পুনর্বিবেচনা করে এবং প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদেরকে তাদের প্রশ্নগুলির যাবতীয় বিষয়ে সহায়তা করে। তারা কম্বিনেটেরিকস এর মতো উন্নত কোর্সগুলো এবং স্নাতক সেমিনারে অংশগ্রহণ করতে পারে। শিক্ষার্থীদের সমস্যা সেটগুলি সরাসরি প্রতিদিনের পরামর্শদাতাদের দ্বারা শ্রেণীকরণ করা হয়।

এই কর্মসূচিটি ১৯৬০-এর দশকে জাতীয় বিজ্ঞান ফাউন্ডেশন (এন.এস.এফ.) এর একটি কর্মসূচি দ্বারা অর্থায়িত হয়েছিল যা বিজ্ঞান শিক্ষায় গ্রীষ্মের প্রোগ্রামগুলিকে সহায়তা করেছিল, কিন্তু ফিরে আসা শিক্ষার্থীদের নয়। যেহেতু এন.এস.এফ. ওঠানামা সমর্থন করে, তাই কর্মসূচিটি দাতাদের কাছ থেকে উপহার, ব্যবসায়িক বৃত্তি, জাতীয় সুরক্ষা সংস্থার একটি অনুদান, বিশ্ববিদ্যালয় এবং এর গণিত বিভাগের সহায়তা সহ বিভিন্ন উপায়ে অর্থায়ন করা হয়েছে। এটি ক্লে গণিত ইনস্টিটিউট থেকেও আর্থিক সহায়তাও লাভ করে ।

রাম প্রকাশ বাম্বাহ, হান্স জ্যাসেনহাউস, থোরালফ স্কোলেম এবং ম্যাক্স ডেনের মতো বিশিষ্ট গণিতবিদদের অবদান নিয়ে এই প্রোগ্রামটি দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছিল। ১৯৬০ এবং ১৯৭০-এর দশকে জ্যাসেনহাউস, কার্ট মাহলার এবং ডিজেন কে রে-চৌধুরীর মতো গণিতবিদদের সেখানে নিয়মিত পাঠদানের জন্য নিয়ে আসেন রস। ১৯৬৩ সালে ওহিও স্টেট ইউনিভার্সিটির গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য নটর ড্যাম ত্যাগ করেন, ফলস্বরূপ কর্মসূচিটি ১৯৭৪ সালের গ্রীষ্মে অনুষ্ঠিত হয়। গণিতবিদ ফেলিক্স ব্রাউডারের আমন্ত্রণে ১৯৭৫-১৯৭৮ সালের  গ্রীষ্মের কর্মসূচি সমূহ সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থানান্তরিত হয়েছিল। কর্মসূচিটি বিজ্ঞাপনবিমুখ এবং বিস্তার লাভের জন্য ব্যক্তিগত যোগাযোগ ও মুখের কথার উপর নির্ভর করে।

অবসর গ্রহণ এবং মৃত্যু[সম্পাদনা]

রস ১৯৭৬ সালে ওহিও স্টেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাঁর বাধ্যতামূলক অবসর গ্রহণের সময়সীমায় পৌঁছান এবং ইমেরিটাস অধ্যাপক হন, তবে ২০০০ সাল পর্যন্ত গ্রীষ্মকালীন গণিত কর্মসূচি চালিয়ে যান, এরপরে তিনি স্ট্রোক করেন যার ফলে শিক্ষা-দানে তিনি শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ও অক্ষম হয়ে পড়েন। রসের অনুপস্থিতিতে ড্যানিয়েল শাপিরো পরে এই কর্মসূচিটির নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।[১১] শাপিরো এই প্রোগ্রামের একজন প্রাক্তন পরামর্শদাতা ছিলেন।

রস ১৯৮৪ সালে ডেনিসন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন, ১৯৮৫ সালে বিশেষ কৃতিত্বের স্বীকৃতি স্বরূপ আমেরিকার গণিত অ্যাসোসিয়েশন পুরস্কার ও ১৯৯৯ সালে জন-পরিষেবার স্বীকৃতি স্বরূপ এম.এ.এ. প্রশংসাপত্র অর্জন করেন এবং ১৯৮৮ সালে অগ্রগতির জন্য আমেরিকান সমিতি এর ফেলো হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়। শিক্ষাদান প্রসঙ্গে তার অর্জনগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো ওহিও রাজ্য কর্তৃক প্রদত্ত বিশিষ্ট শিক্ষণ এবংপরিষেবা পুরস্কার এবং জাতীয় বিজ্ঞান ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞান শিক্ষার পরামর্শদাতা বোর্ডের সদস্যপদ।

রস পশ্চিম জার্মানি, ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ায় অনুরূপ প্রোগ্রাম শুরু করতে সহায়তা করেছিলেন। তিনি ১৯৭৩ সালে তিনি ভারতীয় প্রতিভাধর শিশুদের নিয়ে একটি কর্মসূচি আয়োজনের জন্য পরামর্শ দিয়েছিলেন, ১৯৭৫ থেকে ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত রসের স্বতন্ত্র কর্মসূচি ভিত্তিক মেধাবী যুবকদের জন্য অস্ট্রেলিয়ান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত একটি জানুয়ারী গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচিতে সহযোগিতা করেছিলেন এবং ১৯৭৮ সালে জার্মানির হাইডেলবার্গে আরেকটি কর্মসূচি সূচনা করতে সহায়তা করেছিলেন। তিনি এর আগে শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচী সহ গণিতের অন্যান্য কর্মসূচির সূচনা  করেছিলেন (উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পূর্বে) এবং ১৯৭০ সালে ওহিওর রাজধানী কলম্বাসের নিম্ন আয়ের এলাকার মাধ্যমিক ও উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য "হরাইজনস আনলিমিটেড" নামে পরিচিত আরেকটি কর্মসূচি চালু করেন।

রসের স্ত্রী বি ১৯৮৩ সালে মৃত্যু বরণ করেন, যার ফলে রস চরম বিষন্নতায় ভুগতে থাকেন। তার সহকর্মীরা বলেছিলেন যে এই ঘটনার পর নিজের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি কেবল তার গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচির জন্যই বেঁচে ছিলেন। পরবর্তীতে তিনি ম্যাডেলিন গ্রিন নামে ফরাসি এক বিধবা মহিলার সাক্ষাৎ লাভ করেন, যিনি একজন কূটনীতিবিদের স্ত্রী ছিলেন এবং তারা ১৯৯০ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

২০০২ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর রস মৃত্যু বরণ করেন। আমেরিকান গণিত সমিতির সাময়িকী এবং আমেরিকার গণিত সংস্থার পত্রিকা তার স্মৃতিতে বেশ কয়েকটি নিবন্ধ প্রকাশ করে।[৯] করল রুবিনের মতো গণিতবিদগণ তার কাছে নিজেদেরকে ব্যক্তিগত ভাবে ঋণী বলে তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। তার কোনো সন্তান ছিল না।[১২]

অবদান[সম্পাদনা]

রস তার সবচেয়ে বড় অবদান তাঁর গবেষণার মাধ্যমে নয়, তাঁর গণিত শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে রেখে গেছেন। তিনি ১৯৫৭ সাল থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তার প্রতিটি গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচি পরিচালনা করেছিলেন, যেকানে ২ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীর সাথে কাজ করেছিলেন। তাঁর গ্রীষ্মকালীন কর্মসূচির স্নাতকগণ বিজ্ঞান বিভিন্ন শাখা জুড়ে মর্যাদাপূর্ণ গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ পদে নিজেদের ঠাঁই করে নেন। গণিতবিদদের দ্বারা রসের গণিত কর্মসূচিটি অত্যন্ত প্রভাবশালী হিসেবে প্রশংসিত হয়েছিল।

রসের গণিত কর্মসূচিটি অনুরূপ আরো অনেকগুলি কর্মসূচিকে অনুপ্রাণিত করে। তুলনামূলকভাবে নিকটতম কর্মসূচিগুলো হলো; বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ বিজ্ঞানীদের জন্য গণিত কর্মসূচি (পি.আর.ও.এম.ওয়াই.এস.) এবং সাউথ ওয়েস্ট টেক্সাস স্টেট ইউনিভার্সিটির সম্মান গণিত কর্মসূচি। শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয় এবং সান আন্তোনিওর টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য কর্মসূচীগুলোও রসের গণিত কর্মসূচি দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল। পি.আর.ও.এম.ওয়াই.এস.-এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন রস গণিত কর্মসূচির প্রাক্তন ছাত্র, এবং রস গণিত কর্মসূচি যখন শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে বেশ কয়েক বছর ধরে চলমান ছিল, তখন গণিত বিভাগের প্রধান পল স্যালি ধীরে ধীরে এই প্রোগ্রামটির সহায়ক হয়ে উঠলেন এবং পরে তিনি নিজেই বিশেষ মেধাবী শিক্ষার্থীদের নিয়ে তাঁর স্বতন্ত্র কর্মসূচি শুরু করলেন। অনানুষ্ঠানিকভাবে, রস প্রোগ্রাম এবং রস-এর শিক্ষার্থীরা "রস -১" নামে পরিচিত এবং যারা এই কর্মসূচির স্নাতকদের অধীন পড়াশোনা করছেন (পি.আর.ও.এম.ওয়াই.এস অংশগ্রহণকারীরা সহ) তারা "রস -২" নামে পরিচিত।

তার নামেই আর্নল্ড রস বক্তৃতা সিরিজ ১৯৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় যা আমেরিকান ম্যাথমেটিক্যাল সোসাইটি কর্তৃক চালিত হয় এবং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের শহরগুলিতে প্রতি বছর হাই স্কুলের শিক্ষার্থী শ্রোতাদের সামনে গণিতবিদদের নিয়ে আসে। ওহিও স্টেট ইউনিভার্সিটি ১৯৯৬ এবং ২০০১ সালে প্রোগ্রামের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সাথে, রসের বন্ধুবান্ধব এবং একাধিক বিজ্ঞান বক্তৃতা নিয়ে রসের জন্য দুটি পুনর্মিলন-সম্মেলনের আয়োজন করে।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; NAMS 1996 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. Jackson, Allyn (২০১৩-০২-০১)। "Presidential Views: Interview with Eric Friedlander"Notices of the American Mathematical Society60 (02): 1। doi:10.1090/noti956আইএসএসএন 0002-9920 
  3. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; NAMS 2001 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  4. Notices of the American Mathematical Society60 (10)। ২০১৩-১১-০১। doi:10.1090/noti/201310আইএসএসএন 0002-9920 http://dx.doi.org/10.1090/noti/201310  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  5. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; AMM 1986 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  6. "IAEA Fellowship Program, 1996 report on United States participants"। ১৯৯৬-১২-৩১। 
  7. Bauldry, William C. (২০০৯)। Introduction to real analysis : an educational approach। Hoboken, N.J.: Wiley। আইএসবিএন 9781118164433ওসিএলসি 757395461 
  8. Kehoe, Elaine (২০১২-০৪-০১)। "Award for Distinguished Public Service"Notices of the American Mathematical Society59 (04): 1। doi:10.1090/noti822আইএসএসএন 0002-9920 
  9. "Original PDF"dx.doi.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৭ 
  10. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Wissner-Gross 2007 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  11. Edgar, Gerald A., 1949- (২০০৮)। Measure, topology, and fractal geometry (2nd ed সংস্করণ)। New York: Springer-Verlag। আইএসবিএন 9780387747491ওসিএলসি 209985211 
  12. "Oral original communications (Sunday, September 1)"Clinical Nutrition21: 1–3। 2002-08। doi:10.1016/s0261-5614(02)80001-2আইএসএসএন 0261-5614  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]