জীবাশ্ম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Aviculopecten subcardiformis01.JPG
Permian Silicified Sclerobionts.JPG
MatmorScleractinian.JPG
Catellocaula.jpg

জীবাশ্ম (ইংরেজি: Fossil) বলতে প্রাণী বা উদ্ভিদ পাথরে পরিণত হয়েছে এমন ধরনের বস্তুকে বোঝায়। প্রাগৈতিহাসিক যুগের উদ্ভিদ ও প্রাণীর ধ্বংসাবশেষ তথা মৃতদেহের চিহ্ন পাওয়া যায় ভূগর্ভ কিংবা ভূ-পৃষ্ঠের কঠিন স্তরে সংরক্ষিত পাললিক শিলা অথবা যৌগিক পদার্থে মিশ্রিত ও রূপান্তরিত অবস্থায়। অধিকাংশ জীবিত প্রাণীকুলেরই জীবাশ্ম সংগৃহীত হয়েছে। এছাড়াও, অনেক প্রজাতিরই জীবাশ্ম আবিষ্কৃত হয়েছে যারা পৃথিবীতে বর্তমানে বিলুপ্ত। ৩৪০ কোটি বছর থেকে দশ হাজার বছর পূর্বেকার তুষার যুগের প্রাণী ও উদ্ভিদদেহের ধ্বংসাবশেষ জীবাশ্মরূপে সংরক্ষিত আছে।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ল্যাটিন শব্দ ফসাস (fossus) (অর্থ - উত্তোলন করা) থেকে ফসিল শব্দটি উদ্ভূত হয়েছে। বৈশ্বিকভাবে জীবাশ্মের ন্যায় জটিল বিষয়ের তথ্য সংরক্ষণকে ফসিল রেকর্ড নামে অভিহিত করা হয়। আবিষ্কৃত কিংবা অনাবিষ্কৃত সমুদয় জীবাশ্মের সংখ্যা, তাদের অবস্থান, শিলার বিন্যাস এবং পাললিক শিলার স্তর - এগুলোকে একত্রে ফসিল রেকর্ড বলা হয়। এই রেকর্ডের বিশ্লেষণ পৃথিবীর জীবনচক্রের ইতিহাস তুলে ধরার সেরা উপায় হিসেবে বিবেচিত। ভৌগোলিক সময়ের মানদণ্ডে জীবাশ্মের গঠন, বয়স এবং বিবর্তনের ধারায় সম্পৃক্ততা জীবাশ্মবিজ্ঞানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। সংরক্ষিত নমুনাকে জীবাশ্ম হিসেবে তখনই বিবেচনা করা হয়, যখন এটি কমপক্ষে দশ সহস্রাধিক বছরের প্রাচীনকালের।[২] উনবিংশ শতকে শীর্ষস্থানীয় ভূতাত্ত্বিকগণ ভৌগোলিক সময়ের মানদণ্ডে ৩৪০ কোটি - ১০,০০০ বছর বয়সের মধ্যে সংগৃহীত বস্তুকে জীবাশ্ম নামে আখ্যায়িত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিংশ শতকের শুরুতে রেডিওম্যাট্রিক ডেটিংয়ের প্রযুক্তিগত উন্নয়ন জীবাশ্ম চিহ্নিত করতে বেশ সহায়ক হয়েছে।

জীবাশ্মের আকার এককোষী ব্যাক্টেরিয়া[৩] থেকে বিশালাকৃতির ডাইনোসর ও অনেক মিটার লম্বা এবং কয়েক টন ওজনের গাছের মতো হতে পারে। সাধারণতঃ মৃত প্রাণীর অংশবিশেষ হিসেবে হাড় এবং দাঁত প্রায়শই বিচ্ছিন্ন জীবাশ্ম হিসেবে পাওয়া যায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Oldest ‘microfossils’ raise hopes for life on Mars"The Washington Post। ২১ আগস্ট ২০১১। সংগৃহীত ২০১১-০৮-২১ 
    Wade, Nicholas (২১ আগস্ট ২০১১)। "Geological Team Lays Claim to Oldest Known Fossils"The New York Times। সংগৃহীত ২০১১-০৮-২১ 
  2. "theNAT :: San Diego Natural History Museum :: Your Nature Connection in Balboa Park :: Frequently Asked Questions"। Sdnhm.org। সংগৃহীত ২০১২-১১-০৫ 
  3. Westall, Frances এবং অন্যান্য (২০০১)। "Early Archean fossil bacteria and biofilms in hydrothermally influenced sediments from the Barberton greenstone belt, South Africa"Precambrian Research 106 (1–2): 93–116। ডিওআই:10.1016/S0301-9268(00)00127-3 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]