অন্তাও ডি’সুজা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অন্তাও ডি’সুজা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅন্তাও ডি’সুজা
জন্ম (1939-01-17) ১৭ জানুয়ারি ১৯৩৯ (বয়স ৮০)
নাগোয়া, গোয়া, পর্তুগীজ ভারত
(বর্তমানে ভারত)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ডানহাতি অফ-ব্রেক
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৯)
২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৫৯ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট২০ আগস্ট ১৯৬২ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৬১
রানের সংখ্যা ৭৬ ৮১৫
ব্যাটিং গড় ৩৮.০০ ১৮.৯৫
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২৩* ৪৫
বল করেছে ১৫৮৭ ১১৭৩৮
উইকেট ১৭ ১৯০
বোলিং গড় ৪৩.৮২ ২৬.০৩
ইনিংসে ৫ উইকেট ১২
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৫/১১২ ৭/৩৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩/- ২০/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৫ নভেম্বর ২০১৭

অন্তাও ডি’সুজা (জন্ম: ১৭ জানুয়ারি, ১৯৩৯) তৎকালীন পর্তুগীজ ভারতের গোয়ার নাগোয়া এলাকায় জন্মগ্রহণকারী পাকিস্তানের সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৯ থেকে ১৯৬২ সময়কালে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের পক্ষে ছয় টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন। চারজন খ্রিস্টান টেস্ট ক্রিকেটারের মধ্যে দ্বিতীয় হিসেবে টেস্টে অংশ নিয়েছেন।[১] দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার ছিলেন। ডানহাতে মিডিয়াম পেস বোলার ছিলেন ও নিচেরসারির কার্যকরী ব্যাটসম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করতেন। ঘরোয়া পর্যায়ের প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, করাচী ব্লুজ, করাচী ও পেশাওয়ারের প্রতিনিধিত্ব করেছেন অন্তাও ডি’সুজা।[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সেলসিটের নাগোয়ায় তার জন্ম ও সেখানেই শৈশবকাল অতিবাহিত করেন। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাজনের সময় ডি’সুজার বাবা পাকিস্তানের করাচীতে স্থানান্তরিত হন। সেখানকার সেন্ট প্যাট্রিক্স হাই স্কুলে অধ্যয়ন করেন।[৩] তার অন্য দুই ভাই - মার্শাল ও পল ডি’সুজা উভয়েই প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৫২ সালে ইংল্যান্ড সফরের জন্য ডি’সুজা মনোনীত হন। ৫৩ গড় নিয়ে দলের শীর্ষস্থানীয় ব্যাটসম্যানরূপে আবির্ভূত হন। ছয় ইনিংসের মধ্যে পাঁচটিতেই তিনি অপরাজিত ছিলেন। সফরে দলের অন্যান্য বোলারদের ন্যায় এ সফরে তারও বোলিং তেমন কার্যকরী ছিল না। ঐ সিরিজে পাকিস্তান ৪-০ ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল।

কমপক্ষে দশ ইনিংসে অংশগ্রহণকারী দুইজন টেস্ট ক্রিকেটারের একজনরূপে ডি’সুজা তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের চেয়ে ব্যাটিং গড়ে শীর্ষস্থানে আরোহণ করেন। অন্যজন হচ্ছেন - ভারতীয় ক্রিকেট তারকা সদাশিব সিন্ধে[৪]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালে স্ত্রী ও চার সন্তানকে নিয়ে কানাডার অন্টারিওতে অভিবাসিত হন অন্তাও ডি’সুজা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wisden। Engel, Matthew, সম্পাদক। Wisden Cricketers' Almanack, 132nd edition (1995 সংস্করণ)। London: John Wisden & Co Ltd। পৃষ্ঠা 1388। 
  2. Teams Antao D'Souza played for – CricketArchive. Retrieved 29 October 2012.
  3. Dias, Jude (2011) Goan who Shone on the International Cricket Arena ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৩ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে – Navhind Times online. Published 17 April 2011. Retrieved 29 October 2012.
  4. Frindall, Bill (২০০৯)। Ask BeardersBBC Books। পৃষ্ঠা 91–92। আইএসবিএন 978-1-84607-880-4 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]