অন্তরে অন্তরে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অন্তরে অন্তরে
পরিচালকশিবলি সাদিক
প্রযোজকমেহবুব হোসেন
চিত্রনাট্যকারশিবলি সাদিক
কাহিনীকারফেরদৌস
শ্রেষ্ঠাংশেসালমান শাহ
মৌসুমী
আনোয়ারা
রাজিব
সুরকারআলম খান
চিত্রগ্রাহকমাহফুজুর রহমান খান
সম্পাদকমুজিবুর রহমান দুলু
পরিবেশকআশা প্রডাকশনস লিমিটেড
মুক্তি১০ জুন, ১৯৯৪
দৈর্ঘ্য১৩৭ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

অন্তরে অন্তরে ১৯৯৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র। ছায়াছবিটি পরিচালনা করছেন শিবলি সাদিক[১] কাহিনী লিখেছেন ফেরদৌস ও চিত্রনাট্য লিখেছেন শিবলি সাদিক। আশা প্রডাকশনস লিমিটেডের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছেন মেহবুব হোসেন। এতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন সালমান শাহ, মৌসুমী,[২] আনোয়ারা, রাজিব প্রমুখ।[৩]

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

রওশন চৌধুরীর ছেলে এক বিদেশী মেয়েকে বিয়ে করে বাড়ি আসলে তিনি তার ছেলেকে ত্যাজ্য করেন এবং তার স্ত্রী ফাতেমা চৌধুরীকে তারা যেন কোনভাবেই এই বাড়িতে না ঢুকতে পারে এমন ওয়াদা করান। ফাতেমা চৌধুরী মৃত্যুশয্যায় তার স্বামীর আদেশ মেনে নেন। রওশন চৌধুরীর মৃত্যুর পর জেলে সম্প্রদায়ের মধ্যে ঝামেলা দেখা দিলে রওশন চৌধুরী মীমাংসা করতে যান। এই সময় মানিক জেলের মেয়ে ঝিনুক তার মাথায় পাথর ছুড়ে মারে। ফাতেমা চৌধুরীর ঝিনুককে ভালো লাগে এবং তাকে তার পালিত নাতি হিসেবে মানিকের কাছ থেকে চেয়ে নেয়। ঝিনুক চৌধুরী বাড়িতে বড় হতে থেকে। ইতিমধ্যে বিদেশ ফেরত শান তার দাদীর সাথে দেখা করতে আসে। কিন্তু ফাতেমা চৌধুরী তার স্বামীকে দেওয়া ওয়াদা পালন করার জন্য তাকে বাড়িতে আশ্রয় দিতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে শান অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে বাড়িতে ডেকে নেয়। ঝিনুকের সেবা শুশ্রূষায় শান ভালো হয়ে উঠে। দাদী শানের বিয়ে তার আরেক নাতনী কান্তার সাথে ঠিক করে। কিন্তু শান ঝিনুককে ভালোবাসে। দাদী তা জানতে পারলে ঝিনুককে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ নিয়েই কাহিনী আবর্তিত হয়।

শ্রেষ্ঠাংশে[সম্পাদনা]

  • সালমান শাহ - শান
  • মৌসুমী - ঝিনুক
  • আনোয়ারা - ফাতেমা রওশন চৌধুরী, শানের দাদী
  • রাজিব - মানিক, ঝিনুকের বাবা
  • নাসির খান - জাহেদ চৌধুরী
  • শারমিন - ফাতেমা চৌধুরীর মেয়ে
  • শশী - কান্তা চৌধুরী, জাহেদ চৌধুরীর মেয়ে
  • শওকত আকবর - রওশন চৌধুরী, শানের দাদা
  • ফকরুল হাসান বৈরাগী
  • দিলদার
  • কবির খাঁ - রজব
  • জামিলুর রহমান শাখা - ফাতেমা চৌধুরীর ম্যানেজার
  • সেতু ইসলাম
  • আলী আমজাদ

সঙ্গীত[সম্পাদনা]

অন্তরে অন্তরে ছায়াছবিটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আলম খান। গীত রচনা করেছেন মনিরুজ্জামান মনির। গানে কণ্ঠ দিয়েছেন রুনা লায়লা, এন্ড্রু কিশোর, খান আসিফ আগুন, রিজিয়া পারভিনখালিদ হাসান মিলু[৪]

গানের তালিকা[সম্পাদনা]

নং.শিরোনামগীতিকারসুরকারকণ্ঠশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."ও দাদী ও দাদী"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানএন্ড্রু কিশোর 
২."কালতো ছিলাম ভালো"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানরুনা লায়লা 
৩."এখানে দুজনে নিরজনে"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানরুনা লায়লা ও এন্ড্রু কিশোর 
৪."অন্তরে অন্তরে"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানখালিদ হাসান মিলু 
৫."ও হিরো আই লাভ ইউ"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানরিজিয়া পারভিন 
৬."ভালোবাসিয়া গেলাম ফাঁসিয়া"মনিরুজ্জামান মনিরআলম খানরুনা লায়লা ও খান আসিফ আগুন 

পুরস্কার[সম্পাদনা]

পুরস্কার বিভাগ বিজয়ী
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেত্রী আনোয়ারা
শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বিশিষ্ট চলচ্চিত্রকার শিবলী সাদিক আর নেই"দৈনিক সমকাল। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৮ জানুয়ারি ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "সালমান শাহ'র নায়িকারা"সিলেটভিউ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  3. "আজ আফসোস সালমান শাহ্ ভক্তদের"বাংলাদেশ লাইভ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫। ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  4. "'অন্তরে অন্তরে' ছবির রিমেকে নীরব-অমৃতা"দৈনিক মানবকণ্ঠ। ঢাকা, বাংলাদেশ। ১৩ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]