মুড়ি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বেঙ্গালুরুর উলসুর বাজারের একটি দোকানে বিক্রির জন্য রাখা মুড়ি

মুড়ি হচ্ছে ভাজা চালধান ভাজলে ফেটে গিয়ে খই (popped rice) হয়ে যায়। ভাজা অর্থে তেলে ভাজা নয়। গরম বালিতে চাল (অর্থাৎ খসা ছাড়ানো ধান)কে ভেজে তৈরি হয় মুড়ি যা ফাঁপা ফোলা (puffed rice) কিন্তু খই এর মত ফাটা নয়।

কেন মুড়ি খাবেন ? গ্রামাঞ্চলের বেশিরভাগ মানুষের সকালের নাস্তা আর সন্ধ্যায় আর টিফিন হচ্ছে মুড়ি। বিগত দু’দশক যাবৎ শহরের লোকও সকালের নাস্তায় ১ কাপ চা এবং খানিকটা মুড়িকে বেশ পছন্দ করে। কম ক্যালোরির পেট ভরানোর খাবার হিসেবে এখন উচ্চবিত্ত মহলেও মুড়ির প্রচলন বাড়ছে। যাদের বার বার ক্ষুধা পায়, অথচ সারাদিনে বেশিরভাগ সময়ে অফিসে বা বাড়িতে বসে কাজ করার জন্য শরীরে ক্যালোরির চাহিদা কম, তাদের জন্য লাঞ্চ আর ডিনারের মাঝখানে বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে মুড়ি হতে পারে আদর্শ খাবার। পেঁয়াজ, শসা, গাজর কুচিয়ে সামান্য কাঁচা লঙ্কা আর আদার কুচি দিয়ে মাখালে মুড়ি খেতেও বেশ সুস্বাদু। যারা ওজন বাড়ার সমস্যায় ভুগছেন, ওজন কমানোটা যাদের পক্ষে একান্ত প্রয়োজন, তারা বিকেলের টিফিনটা অনায়াসে সারাতে পারেন মুড়ি দিয়ে। অনেকটা জল টেনে নেয় বলে মুড়ি খেলে বেশ খানিকটা পেট ভরা থাকে, শরীরে অতিরিক্ত ক্যালোরি চলে যাবার ভয়টাও থাকে না। পেটের নানা গোলমালে শুকনো মুড়ি বা জলে ভেজা মুড়ি খাওয়ার রেওয়াজ অনেকের মধ্যে রয়েছে।