বোলিং (ক্রিকেট)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

বোলিং ক্রিকেট খেলায় ব্যবহৃত একটি পরিভাষাক্রিকেট বলকে পিচের শেষ প্রান্তে পুতানো উইকেট বরাবর নিক্ষেপের মাধ্যমে ব্যাটসম্যানকে পরাস্ত করতে কিংবা রান না করার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। একজন খেলোয়াড় যদি বোলিংরত অবস্থায় থাকেন, তাহলে তিনি বোলার হিসেবে চিহ্নিত হবেন। স্পেশালিস্ট বোলার পরিভাষাটি সচরাচর শুধুমাত্র বোলিংয়ে পারদর্শী খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে তাকে শুধুমাত্র বোলাররূপে অভিহিত করা হয়ে থাকে। একইভাবে স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান পরিভাষাটি শুধুমাত্র ব্যাটিংয়ে পারদর্শী খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। যদি একজন বোলার ব্যাটিং এবং বোলিং - উভয় বিভাগেই সমান পারদর্শীতা প্রদর্শন করেন, তাহলে তিনি অল-রাউন্ডারের মর্যাদা পান। ম্যালকম মার্শাল, রিচার্ড হ্যাডলি, ক্রেগ ম্যাকডারমট, কপিল দেব, মুত্তিয়া মুরালিধরন, ইমরান খান প্রমূখ ক্রিকেটার বিশ্ব ক্রিকেট ইতিহাসে শীর্ষস্থানীয় বোলাররূপে পরিচিত ব্যক্তিত্ব।

বোলিং কৌশল[সম্পাদনা]

সঠিক বোলিং কলা-কৌশল রপ্ত করার জন্য কনুই বাঁকানোর নির্দিষ্ট মানদণ্ড রয়েছে। ব্যাটসম্যানকে লক্ষ্য করে বোলিংয়ের ভঙ্গীমা প্রদর্শনকে বল বা ডেলিভারি নামে আখ্যায়িত করা হয়। বোলার কর্তৃক সফলভাবে ছয়টি বল ডেলিভারি দেয়াকে ওভার বলে। বোলার এক ওভার বোলিং করলে পরবর্তী ওভার তার দলীয় সঙ্গী পিচের অপর প্রান্ত থেকে বোলিং করে থাকেন। ক্রিকেটের আইনে কিভাবে একটি বল ডেলিভারি করতে হয়, তার সংজ্ঞা দেয়া আছে।[১] যদি কোন কারণে অবৈধভাবে বোলিং করা হয়, তাহলে খেলা পরিচালনাকারী কর্মকর্তা হিসেবে আম্পায়ার নো বল হিসেবে ঘোষণা করতে পারেন।[২] আবার, ব্যাটিং প্রান্তে অবস্থানরত ব্যাটসম্যানের নাগালের বাইরে দিয়ে বল চলে গেলে আম্পায়ার ওয়াইড ঘোষণা করতে পারেন।[৩]

শীর্ষস্থানীয় বোলার[সম্পাদনা]

পুরুষ[সম্পাদনা]

আইসিসি শীর্ষ ১০ টেস্ট বোলার
অবস্থান পরিবর্তন খেলোয়াড়ের নাম দলের নাম রেটিং
অপরিবর্তিত ডেল স্টেইন  দক্ষিণ আফ্রিকা ৯০৬
অপরিবর্তিত রায়ান হ্যারিস  অস্ট্রেলিয়া ৮৭০
বৃদ্ধি মিচেল জনসন  অস্ট্রেলিয়া ৮৪৪
হ্রাস ভার্নন ফিল্যান্ডার  দক্ষিণ আফ্রিকা ৮৩৭
অপরিবর্তিত সাঈদ আজমল  পাকিস্তান ৭৮৭
অপরিবর্তিত টিম সাউদি  নিউজিল্যান্ড ৭৮৩
বৃদ্ধি ট্রেন্ট বোল্ট  নিউজিল্যান্ড ৭৩৭
বৃদ্ধি জেমস অ্যান্ডারসন  ইংল্যান্ড ৭৩৫
বৃদ্ধি কেমার রোচ  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭৩৩
অপরিবর্তিত পিটার সিডল  অস্ট্রেলিয়া ৭৩৩
তথ্যসূত্র: আইসিসি র‌্যাঙ্কিংস, ২৮ জুলাই, ২০১৪
আইসিসি শীর্ষ ১০ ওডিআই বোলার
অবস্থান পরিবর্তন খেলোয়াড়ের নাম দলের নাম রেটিং
অপরিবর্তিত সাঈদ আজমল  পাকিস্তান ৭৮৯
বৃদ্ধি সুনীল নারাইন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭১৪
বৃদ্ধি জেমস অ্যান্ডারসন  ইংল্যান্ড ৭০৬
হ্রাস ডেল স্টেইন  দক্ষিণ আফ্রিকা ৭০৩
বৃদ্ধি ক্লিন্ট ম্যাককে  অস্ট্রেলিয়া ৬৬৬
হ্রাস রবীন্দ্র জাদেজা  ভারত ৬৬৬
হ্রাস লনয়াবো সতসবে  দক্ষিণ আফ্রিকা ৬৬৪
হ্রাস মরনে মরকেল  দক্ষিণ আফ্রিকা ৬৫৬
বৃদ্ধি মিচেল জনসন  অস্ট্রেলিয়া ৬৩৯
১০ বৃদ্ধি মোহাম্মদ হাফিজ  পাকিস্তান ৬৩৭
তথ্যসূত্র: রিলায়েন্সআইসিসি র‌্যাঙ্কিংস - ওডিআইবোলিং, ২৮ জুলাই, ২০১৪
আইসিসি শীর্ষ ১০ টি২০আই বোলার
অবস্থান পরিবর্তন খেলোয়াড়ের নাম দলের নাম রেটিং
অপরিবর্তিত স্যামুয়েল বদ্রি  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮৪৮
অপরিবর্তিত সুনীল নারাইন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮১১
বৃদ্ধি সচিত্র সেনানায়েকে  শ্রীলঙ্কা ৭১২
অপরিবর্তিত সাঈদ আজমল  পাকিস্তান ৭১১
অপরিবর্তিত রবিচন্দ্রন অশ্বিন  ভারত ৭০৮
অপরিবর্তিত মিচেল স্টার্ক  অস্ট্রেলিয়া ৬৮৯
বৃদ্ধি লাসিথ মালিঙ্গা  শ্রীলঙ্কা ৬৬১
বৃদ্ধি শহীদ আফ্রিদি  পাকিস্তান ৬৬০
অপরিবর্তিত মোহাম্মদ হাফিজ  পাকিস্তান ৬৬০
১০ বৃদ্ধি সাকিব আল হাসান  বাংলাদেশ ৬৫৯
তথ্যসূত্র: আইসিসি র‌্যাঙ্কিংস-টি২০আইবোলিং, ২৮ জুলাই, ২০১৪


মহিলা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Laws of Cricket: Law 42 (Fair and unfair play)"। Lords.org। সংগৃহীত 2013-01-23 
  2. "Laws of Cricket: Law 24 (No ball)"। Lords.org। সংগৃহীত 2013-01-23 
  3. "Laws of Cricket: Law 25 (Wide ball)"। Lords.org। সংগৃহীত 2013-01-23 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]