নিল ওয়াগনার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
নিল ওয়াগনার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম নিল ওয়াগনার
জন্ম (১৯৮৬-০৩-১৩) ১৩ মার্চ ১৯৮৬ (বয়স ২৯)
প্রিটোরিয়া, ট্রান্সভাল প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরণ বামহাতি
বোলিংয়ের ধরণ বামহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
ভূমিকা বোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক (ক্যাপ ২৫৬) ২৫ জুলাই ২০১২ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
২০০৬-০৭ নর্দার্নস
২০০৮-বর্তমান ওতাগো
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ১৪ ৮৩ ৫৭ ৪৪
রানের সংখ্যা ১৯৪ ১,৫১১ ২৭৫ ৬১
ব্যাটিং গড় ১২.৯৩ ১৮.৮৮ ১০.৫৭ ৫.০৮
১০০/৫০ ০/০ ০/৬ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৭ ৭০ ৩৮ ১৪
বল করেছে ৩,০১৬ ১৬,৩৮৫ ২,৭৫৮ ৯১৬
উইকেট ৫০ ৩৫৭ ৮৭ ৫৩
বোলিং গড় ৩৫.০১ ২৫.১৪ ২৭.৩৬ ২৪.৭৯
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৬
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a -
সেরা বোলিং ৫/৬৪ ৭/৪৬ ৫/৩৪ ৪/৩৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/– ২৩/– ৮/– ১০/–
উত্স: ESPNcricinfo, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৪

নিল ওয়াগনার (ইংরেজি: Neil Wagner; জন্ম: ১৩ মার্চ, ১৯৮৬) দক্ষিণ আফ্রিকার ট্রান্সভাল প্রদেশের প্রিটোরিয়ায় জন্মগ্রহণকারী নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটার। বর্তমানে তিনি নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করছেন। বামহাতি ব্যাটসম্যান ও বামহাতি মিডিয়াম ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলার মাঠে নেমে থাকেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

আফ্রিকানাস হোয়ের সিউনস্কুলে অধ্যয়নকালীন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রথম একাদশে অংশ নেন। ২০০৯ সালে নিউজিল্যান্ডের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় হিসেবে সতীর্থ পিটার ফুলটনের পার্শ্বে অবস্থান করেছেন। একসময় তিনি নর্দার্নস ক্রিকেট দলের হয়ে খেলতেন। এছাড়াও, ওতাগো ক্রিকেট দলের হয়ে খেলছেন তিনি।

একাডেমি দলের পক্ষে জিম্বাবুয়েবাংলাদেশ সফর করেন। ঐ দেশগুলোয় তিনি টেস্ট খেলায় দ্বাদশ ব্যক্তির ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। এরপর ২০১৩ বাংলাদেশ সফরে শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। খেলায় তিনি ৫ উইকেট লাভ করেন।

বিশ্বরেকর্ড[সম্পাদনা]

৬ এপ্রিল, ২০১১ তারিখে ওয়েলিংটন ক্রিকেট দলের বিপক্ষে ডাবল হ্যাট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন। তিনি একে-একে তার প্রথম চার বলে স্টুয়ার্ট রোডস, জো অস্টিন-স্মেলি, জিতেন প্যাটেল এবং ইলি তুগাগাকে দলীয় ৭০তম ওভার ও নিজস্ব ১৪শ ওভারে আউট করেন। একই ওভারের ষষ্ঠ বলে মার্ক গিলেস্পিকে আউট করে পঞ্চম উইকেট লাভ করেন যা বিশ্বে প্রথম। ইনিংসে বোলিং বিশ্লেষণ ছিল ৬/৩৬ যা তার নিজস্ব সেরা বোলিং।[১][২]

টেস্টে ৫-উইকেট[সম্পাদনা]

# পরিসংখ্যান খেলা প্রতিপক্ষ মাঠ শহর দেশ বছর
৫/৬৪  বাংলাদেশ শের-ই-বাংলা ঢাকা বাংলাদেশ ২০১৩

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]