গুয়াতেমালা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
República de Guatemala
গুয়াতেমালা প্রজাতন্ত্র
পতাকা কোট অফ আর্মস
নীতিবাক্য
"País de la Eterna Primavera"
"চিরন্তন বসন্তে দেশ"
জাতীয় সঙ্গীত
Himno Nacional de Guatemala
গুয়াতেমালার জাতীয় সঙ্গীত

রাজধানী
(ও বৃহত্তম নগরী)
গুয়াতেমালা সিটি
১৪°৩৮′ উত্তর ৯০°৩০′ পশ্চিম / ১৪.৬৩৩° উত্তর ৯০.৫০০° পশ্চিম / 14.633; -90.500
রাষ্ট্রীয় ভাষাসমূহ স্প্যানিশ
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ গুয়াতেমালান
সরকার ঐকিক রাষ্ট্রপতি সাংবিধানিক প্রজাতন্ত্র
 -  রাষ্ট্রপতি Otto Pérez Molina
 -  উপরাষ্ট্রপতি Roxana Baldetti
স্বাধীনতা
 -  স্পেন থেকে ১৫ই সেপ্টেম্বর, ১৮২১ 
আয়তন
 -  মোট ১০৮ বর্গ কিমি. (১০৭তম)
৪২ বর্গ মাইল 
 -  জলভাগ (%) ০.৪
জনসংখ্যা
 -  জুলাই ২০১১ আনুমানিক ১৩,৮২৪,৪৬৩ (৬৯তম)
 -  জুলাই ২০০৭ আদমশুমারি ১২,৭২৮,১১১ 
 -  ঘনত্ব 129/বর্গ কিলোমিটার 
৩৪৮.৬/বর্গ মাইল
জিডিপি (পিপিপি) ২০১১ আনুমানিক
 -  মোট $৭৩.০২২ বিলিয়ন[১] 
 -  মাথাপিছু $৪,৯৬৫[১] 
জিডিপি (নামমাত্র) ২০১১ আনুমানিক
 -  মোট $৪৬.৩৮৩ বিলিয়ন[১] 
 -  মাথাপিছু $৩,১৫৪[১] 
জিনি (২০০৭) ৫৫.১ (high
এইচডিআই (২০১১) অপরিবর্তিত ০.৫৭৪[২] (medium) (১৩১তম)
মুদ্রা কেতসাল (GTQ)
সময় স্থান কেন্দ্রীয় সময় (ইউটিসি-৬)
ট্রাফিকের দিক ডান দিকে
ইন্টারনেট টিএলডি .gt
কলিং কোড ৫০২

গুয়াতেমালা বা গুয়াতেমালা প্রজাতন্ত্র (স্পেনীয় ভাষায়: República de Guatemala রেপুভ়্‌লিকা দ়ে গ়্ৱাতেমালা আ-ধ্ব-ব: [re'puβlika ðe ɣwate'mala]) মধ্য আমেরিকার একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র। এর উত্তর-পশ্চিমে মেক্সিকো, দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রশান্ত মহাসাগর, উত্তর-পূর্বে বেলিজক্যারিবীয় সাগর, এবং দক্ষিণ-পূর্বে হন্ডুরাসএল সালভাদোর। গুয়াতেমালা মধ্য আমেরিকার সবচেয়ে জনবহুল রাষ্ট্র। রুক্ষ পাহাড় ও আগ্নেয়গিরি, নয়নাভিরাম হ্রদ ও সবুজের সমারোহে সমৃদ্ধ এই দেশটিতে মধ্য আমেরিকার এক-তৃতীয়াংশ জনগণের বাস। উচ্চভূমিতে অবস্থিত গুয়াতেমালা সিটি (Ciudad de Guatemala সিউদাদ দে গুয়াতেমালা) দেশের রাজধানী ও বৃহত্তম শহর। শহরটি জাতীয় জীবনের সমস্ত দিক নিয়ন্ত্রণ করে।

লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশগুলির তুলনায় গুয়াতেমালাতে আদিবাসী জাতির লোকেদের সংখ্যা অনেক বেশি। গুয়াতেমালার অর্ধেক জনগণই মায়া জাতির লোক। মায়ারা অতীতে এই অঞ্চলে একটি সমৃদ্ধ সভ্যতা গড়ে তুলেছিল। দেশের বাকি অর্ধেক লোকেরা হল মেস্তিজো, অর্থাৎ ইউরোপীয় ও আদিবাসী আমেরিকানদের মিশ্র জাতি। এরা গুয়াতেমালাতে লাদিনো নামে পরিচিত।

গুয়াতেমালার সংস্কৃতি পুরাতন আর নূতনের মিশ্রণ। এর বিরাটসংখ্যক আদিবাসী জনগণ এখনও প্রাচীন রীতিনীতি ধরে রেখেছে। অন্যদিকে গুয়াতেমালা সিটি ও অন্যান্য শহর এলাকাকে কেন্দ্র করে লাদিনোরা আধুনিক ইউরোপীয় ও উত্তর আমেরিকান ধাঁচের জীবনযাপন করে। গুয়াতেমালার পল্লী উচ্চভূমির জীবনে মায়া সংস্কৃতির শেকড় এখনও গভীর। এসব এলাকায় এখনও বহু আদিবাসী মানুষ কোন না কোন মায়া ভাষাতে কথা বলেন, সনাতনী ধর্ম ও গ্রামীণ রীতিনীতি পালন করেন এবং ঐতিহ্যবাহী বস্ত্র ও অন্যান্য হস্তশিল্প প্রস্তুত করে থাকেন। লাদিনো ও মায়া সংস্কৃতির এই সহাবস্থান গুয়াতেমালার সমাজে জটিলতার সৃষ্টি করেছে, যে সমাজে ধনী ও দরিদ্রের মধ্যে বৈষম্য প্রকট। এই বিভাজন গুয়াতেমালার ইতিহাসের নানা টানাপোড়েন ও সংঘাতের প্রধান উৎস।

গুয়াতেমালার অর্থনীতি ঐতিহ্যগতভাবে কফি, কলা, চিনি ও অন্যান্য ক্রান্তীয় শস্য রপ্তানির উপর নির্ভরশীল। দেশটির একটি ক্ষুদ্র ধনী গোষ্ঠী বড় বড় এস্টেট বা জমিদারির অধিকারী। অন্যদিকে কৃষিশ্রম সরবরাহকারী জনগোষ্ঠী, বিশেষত আদিবাসীরা অত্যন্ত দরিদ্র। গুয়াতেমালা ১৮২১ সালে স্পেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করার পর সামরিক স্বৈরশাসকেরা এর রাজনীতিতে আধিপত্য বিস্তার করে। বর্ধনশীল সামাজিক ও অর্থনৈতিক বৈষম্য ও সরকারী নিপীড়নের ফলে ১৯৬০-এ দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়। ১৯৮০-র দশকের শেষের দিকে গণতান্ত্রিক বেসামরিক শাসনের দিকে দেশটি এগোতে থাকে। ১৯৯৬ সালে একটি শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে ৩৬ বছর দীর্ঘস্থায়ী গৃহযুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে। এই যুদ্ধে দুই লক্ষেরও বেশি গুয়াতেমালান নিহত বা নিখোঁজ হন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রাজনীতি[সম্পাদনা]

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ[সম্পাদনা]

ভূগোল[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ "Guatemala"। International Monetary Fund। সংগৃহীত December 22, 2011 
  2. "Human Development Report 2011"। United Nations। 2011। সংগৃহীত December 22, 2011 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]