এস্থার দুফ্লো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

এস্থার দুফ্লো (ফরাসি: Esther Duflo) (জন্ম ১৯৭২, প্যারিস, ফ্রান্স) একজন ফরাসি অর্থনীতিবিদ। তিনি বর্তমানে ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অভ টেকনোলজিতে দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়ন অর্থনীতিতে আবদুল লতিফ জামিল অধ্যাপক।

দুফ্লো স্নাতক পর্যায়ে ফ্রান্সের একোল নর্মাল সুপেরিয়রে পড়াশোনা করেন। সেখানে তিনি প্রথমে ইতিহাস পড়া শুরু করেন ও পরে ফরাসি অর্থনীতিবিদ তোমা পিকেতির উপদেশে অর্থনীতিতে মনোযোগ দেন এবং উভয় বিষয়েই ১৯৯৪ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। ১৯৯৯ সালে তিনি ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অভ টেকনোলজি থেকে অর্থশাস্ত্রে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন এবং সাথে সাথেই বিশ্ববিদ্যালয়টির অর্থনীতি বিভাগে যোগ দেন। তাঁর পিএইচডি অভিসন্দর্ভের শিরোনাম ছিল Three Essays in Empirical Development Economics। ২০০২ সালে মাত্র ২৯ বছর বয়সে তিনি সহযোগী অধ্যাপক পদে টেনিউরসহ উন্নীত হন। তিনি এমআইটি-র টেনিউরপ্রাপ্ত ফ্যাকাল্টিদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠদের একজন। এছাড়া তিনি কোলেজ দ্য ফ্রঁসের "Savoirs contre pauvreté" ("দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে জ্ঞান") আন্তর্জাতিক চেয়ার।

দুফ্লোর গবেষণার মূল বিষয় উন্নয়ন অর্থনীতি, যেখানে তিনি স্বাস্থ্য, শিক্ষা, জেন্ডার, রাজনীতি ও ঋণগ্রহণের ব্যবস্থার উপর জোর দিয়েছেন। তিনি এমআইটিতে অভিজিৎ ব্যানার্জির সাথে পভার্টি অ্যাকশন ল্যাবের সহ-পরিচালক। তিনি অর্থশাস্ত্রে কার্য-কারণ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে মাঠ পরীক্ষাকে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ্ধতি হিসেবে প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন।

দুফ্লো তাঁর গবেষণার জন্য ২০০৩ সালে মার্কিন অর্থনৈতিক অ্যাসোসিয়েশনের কাছ থেকে ইলেইন বেনেট পুরস্কার লাভ করেন। পুরস্কারটি চল্লিশ বছরের কম বয়সের প্রতিভাবান মহিলা অর্থনীতিবিদদের দেওয়া হয়ে থাকে। ২০০৫ সালে ফ্রান্সের পত্রিকা ল্য মোঁদ তাঁকে "সেরা তরুণ ফরাসি অর্থনীতিবিদ" পুরস্কার প্রদান করে।

বহুভাষী এস্থার দুফ্লো (তিনি ফরাসি, ইংরেজি, রুশ ও জার্মান ভাষায় কথা বলতে পারেন) অ্যামেরিকান ইকোনমিক জার্নাল:অ্যাপ্লায়েড ইকোনমিক্‌স গবেষণা পত্রিকার সহ-প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক এবং রিভিউ অভ ইকোনমিক্‌স অ্যান্ড স্ট্যাটিস্টিক্‌স গবেষণা পত্রিকার সহসম্পাদক। এছাড়া তিনি ফরাসি পত্রিকা লিবেরাসিওঁতে নিয়মিত মাসিক কলাম লিখে থাকেন।

২০০৮ সালের মে মাসে মার্কিন ম্যাগাজিন ফরেন পলিসি তাঁকে বর্তমান বিশ্বের সেরা ১০০ বুদ্ধিজীবীর একজন হিসেবে নির্বাচিত করে। [১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]