সেকুল ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অধ্যাপক ড.

সেকুল ইসলাম
অধ্যাপক সেকুল ইসলাম.jpeg
অধ্যাপক ড. সেকুল ইসলাম
উপাচার্য
অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
কাজের মেয়াদ
১ আগস্ট ২০১৭ – ২১ জুলাই ২০২১
পূর্বসূরীনজরুল ইসলাম খান
উত্তরসূরীরফিক উদ্দিন আহমেদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৪৯
পশ্চিম বাইশপুর, মতলব দক্ষিণ, চাঁদপুর, বাংলাদেশ
মৃত্যুজুলাই ২০২১ (বয়স ৭১–৭২)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ভিয়েনা প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাশিক্ষাবিদ, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসক

সেকুল ইসলাম (১৯৪৯ - ২০২১) একজন বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক এবং অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সেকুল ইসলাম ১৯৪৯ সালে চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার পশ্চিম বাইশপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[২][৩]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স, ইলেকট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলোজি থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

সেকুল ইসলাম ১৯৭৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স, ইলেকট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (বর্তমানে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং) বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। পর্যায়ক্রমে তিনি বিভাগটির সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক এবং সিলেকশন গ্রেড প্রাপ্ত অধ্যাপক হন। ২০১৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসর গ্রহণের পর থেকে তিনি অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনায় নিয়োজিত ছিলেন।

কর্মজীবনে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শক্তি ইনস্টিটিউটের পরিচালক, ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিয়োগ বোর্ডের সদস্য, সিন্ডিকেট ও একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন।

সেকুল ইসলাম ২০১৭ সালের ১ আগস্ট অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে যোগদান করেন।[৩][৪]

গবেষণাকর্ম ও প্রকাশনা[সম্পাদনা]

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে তার উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া তিনি তিনটি পাঠ্য বইয়ের রচয়িতা।[৩]

সদস্যপদ[সম্পাদনা]

তিনি বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক সোসাইটি, বাংলাদেশ ফিজিক্যাল সোসাইটি, বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটি এবং বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ফর দি এডভান্সমেন্ট অব সায়েন্স-সহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের সদস্য ছিলেন।[৩]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

সেকুল ইসলাম ২০২১ সালের ২১ জুলাই ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "উপাচার্য হিসেবে যোগ দিয়েছেন অধ্যাপক ড. মো. সেকুল ইসলাম"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ৭ আগস্ট ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১ 
  2. "মতলব দক্ষিণের কৃতি সন্তান অধ্যাপক ডঃ সেকুল ইসলাম আর নেই"সাপ্তাহিক ইউনানী কণ্ঠ। ২২ জুলাই ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১ 
  3. "PROF. DR. MD. SEKUL ISLAM Vice Chancellor"অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮ জুলাই ২০২১। ২৪ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. ইয়ামিন, আবু বকর (২৬ জানুয়ারি ২০১৪)। "শিক্ষার সর্বস্তরেই প্রযুক্তির ব্যবহার জরুরি : অধ্যাপক সেকুল ইসলাম"রাইজিংবিডি.কম। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১ 
  5. "ঢাবির সাবেক অধ্যাপক সেকুল ইসলাম আর নেই"দৈনিক শিক্ষা। ২২ জুলাই ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০২১