সুধা চন্দ্রন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুধা চন্দ্রন
Sudha chandran rabindranath tagore 150th birth aniversary celebration.jpg
২০১২ সালে সুধা চন্দ্রন
জন্ম (1965-09-27) ২৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৫ (বয়স ৫৫)[১][২]
দাম্পত্য সঙ্গীরবি ডাং (বি. ১৯৯৪)[৩]

সুধা চন্দ্রন (জন্ম: ২৭শে সেপ্টেম্বর ১৯৬৫), একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অভিনেত্রী এবং একজন ভরতনাট্যম নৃত্যশিল্পী। ১৯৮১ সালে, যখন তাঁর বাবা-মায়ের সাথে তিনি মাদ্রাজ থেকে ফিরছিলেন, সেই সময় তামিলনাড়ুর তিরুচিরাপল্লীর কাছে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন। [৪] তার পায়ে গ্যাংগ্রিন হয়ে যায় এবং এটি কেটে ফেলার ডাক্তারদের সিদ্ধান্তে তাঁর বাবা-মাকে সম্মত হতে হয়েছিল। [৫] তবে পরবর্তীকালে তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত ভরতনাট্যম নৃত্যশিল্পী হয়েছিলেন। চন্দ্রন কহিঁ কিসি রোজ -এ রমলা সিকান্দ, নাগিন ১, ২ এবং ৩ -এ যামিনি, দেইভম থান্ধ ভেদু -এ চিত্রাদেবী, তামিল পুনর্নির্মাণ সাথ নিভানা সাথিয়া এবং হাম পাঞ্চ -এর (২য় মরশুমে) আনন্দর প্রথম স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয়ের জন্য পরিচিত। তিনি ঝলক দিখলা জা-২ -এর প্রতিযোগী ছিলেন। ১৯৮৫ সালে, তিনি তেলুগু ছবি ময়ূরী -তে অভিনয় করেছিলেন। তিনি অনর্গলভাবে ইংরেজি, তামিল, মালয়ালম, হিন্দি, তেলুগু এবং কন্নড় ভাষা বলতে পারেন।

প্রথম এবং ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

সুধা চন্দ্রনের জন্ম মুম্বাইয়ে[৬] তিনি নেটভুর সাথে একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, তিনি মুম্বাইয়ে জন্মগ্রহণ করেছিলেন ও বেড়ে উঠেছিলেন, তবে তাঁর পরিবার তামিলনাড়ুর তিরুচিরাপল্লীর ভাইয়ালুর থেকে এসেছে। তাঁর বৃদ্ধ দাদা-দাদী, যাঁরা ছিলেন চতুর্থ প্রজন্মের, তাঁরা তামিলনাড়ু থেকে কেরলের পালক্কাদে পাড়ি জমিয়েছিলেন। তাঁর বাবা কে ডি চন্দ্রন, ইউএসআইএস-এ কাজ করেছেন এবং তিনি একজন প্রাক্তন অভিনেতা। সুধা চন্দ্রন মুম্বাইয়ের মিঠিবাই কলেজ থেকে বিএ এবং পরে অর্থনীতিতে এমএ পাশ করেন। [৭]

১৯৮১ সালের মে মাসে, প্রায় ১৬ বছর বয়সে, তামিলনাড়ুতে, চন্দ্রন একটি দুর্ঘটনার শিকার হন, যাতে তাঁর পায়ে আঘাত লাগে। তিনি স্থানীয় হাসপাতালে তাঁর জখমের প্রাথমিক চিকিৎসা করেছিলেন এবং পরে তাঁকে মাদ্রাজের বিজয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা আবিষ্কার করলেন যে, তাঁর ডান পায়ে গ্যাংগ্রিন তৈরি হয়েছে, তাঁর অঙ্গচ্ছেদ প্রয়োজন। [৮] চন্দ্রন বলেছিলেন যে, এই সময়টি ছিল তাঁর জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময়। পরবর্তীকালে তিনি কৃত্রিম জয়পুর পায়ের সাহায্যে কিছুটা গতিশীলতা ফিরে পেয়েছিলেন। [৯] তিনি দুই বছরের ব্যবধানে নৃত্যে ফিরে এসে ভারত, সৌদি আরব, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, কুয়েত, বাহরাইন, ইয়েমেন এবং ওমানে নৃত্যানুষ্ঠান করেছিলেন । তাঁর জীবনী ৮-১০ বছর বয়সী স্কুল শিশুদের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত আছে। [১০]

[১১] সুধা চন্দ্রন ১৯৯৪ সালে সহকারী পরিচালক রবি ড্যাংকে বিয়ে করেন। [১২] তাঁকে বেরেলির ইনভার্টিস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট প্রদান করা হয়।

পেশা[সম্পাদনা]

চন্দ্রন তার নিজের জীবনের উপর ভিত্তি করে নির্মিত তেলুগু ছবি ময়ূরী দিয়ে তাঁর চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেছিলেন। ছবিটি পরে তামিলমালয়ালমে ডাবিং করা হয়েছিল। [১৩] এটি হিন্দিতে নাচে ময়ুরী নামে পুনর্নির্মাণ করা হয়েছিল, যেখানে চন্দ্রন শেখর সুমন, অরুণা ইরানি এবং দিনা পাঠকের সাথে আবার অভিনয় করেছিলেন। তিনি ১৯৮৬ সালে ময়ুরীতে অভিনয়ের জন্য বিশেষ জুরি পুরস্কার বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

টেলিভিশনে চন্দ্রনের উল্লেখযোগ্য অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে কহিঁ কিসি রোজ এবং কে স্ট্রিট পালি হিল। তিনি ২০০৭ সালে নৃত্যের রিয়েলিটি শো ঝালক দিখলা জা-২ এর প্রতিযোগী ছিলেন। তিনি ২০১৫ সালে টিভি ধারাবাহিক নাগিনে যামিনি চরিত্রে উপস্থিত হয়েছিলেন।

বিচারক হিসাবে[সম্পাদনা]

বছর কার্যক্রম চ্যানেল ভাষা
২০১৯ ঠাকরপ্পান কমেডি মাজভিল মনোরমা মালয়ালম
২০১৮ ডান্স জোড়ি ডান্স জুনিয়র্স জি তামিল তামিল
২০১৮/২০১৯ কমেডি স্টার্স সিজন- ২ এশিয়ানেট মালয়ালম
২০১৭/২০১৮ জি ডান্স লিগ জি তামিল তামিল
২০১৭ ডান্সিং খিলাড়িস জি তামিল
মলয়ালি ভীট্টাম্মা ফুল টিভি মালয়ালম
২০১৬/২০১৭ ডান্স জোড়ি ডান্স [১৪] জি তামিল তামিল
২০১৩ উগ্রম উজ্জ্বলাম [১৫] মাজভিল মনোরমা মালয়ালম
লিটল স্টার্স এশিয়ানেট
২০১২ মারাঠি তারকা জি মারাঠি মারাঠি
২০০৯ সুপার ডান্সার জুনিয়র-২ [১৬] অমৃতা টিভি মালয়ালম
২০০৮ ক্রেজি কিয়া রে ডিডি জাতীয় হিন্দি
সুপার ডান্সার অমৃতা টিভি মালয়ালম
২০০৭ সুপার ডান্সার জুনিয়র অমৃতা টিভি

পুরস্কার[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sudha Chandran Herself"Indiatimes। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  2. Madon, Vimala (৭ মার্চ ২০১৬)। "Women's Day special – against all odds"Gulf News। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৬ 
  3. Farook, Farhana (২৭ নভেম্বর ২০০৭)। "I view the accident as a blessing: Sudha Chandran"DNA। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৬ 
  4. https://timesofindia.indiatimes.com/entertainment/kannada/music/Natya-Mayuri-from-state-gets-her-groove-back/articleshow/46660655.cms
  5. "Sudha Chandran's story about her accident will leave you inspired"The Times of India। ১৮ জানুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৬ 
  6. Never-say-die attitude: BACK ON THE BIG SCREEN – Sudha Chandran The Hindu. 22 February 2010. Retrieved
  7. Swaminathan, Rajeshwari (২৭ জুলাই ২০১৫)। "Her Friends Stood by Her"The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০১৬ 
  8. Amarnath K. Menon (৯ ডিসেম্বর ২০১৩)। "Mayuri: A profile in courage"। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  9. Patel, Priyanka J (৯ ডিসেম্বর ২০১১)। "I choose to fight in my life: Sudha Chandran – The Times of India"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৬-১৭ 
  10. "Inspiration for world" (Malayalam ভাষায়)। ২৪ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  11. "Sudha Chandran performing a hindi Play Kuch Meetha Ho Jaye" (English ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুন ২০১৯ 
  12. Times of India https://timesofindia.indiatimes.com/tv/news/hindi/sudha-chandran-i-married-my-husband-ravi-in-a-temple-24-years-back/articleshow/69111752.cms  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  13. "Fighting fate"। ২৮ মার্চ ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  14. "Laila, Sneha and Sudha Chandran have a blast on the sets of Dance Jodi Dance Juniors; see video"Times of India 
  15. "'Ugram Ujjwalam' another feather in my cap: Sudha Chandran"। ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  16. "Diva and loving it"The Hindu