সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ
সিলেট প্রকৌশল মহাবিদ্যালয়
Sylhet Engineering College Campus.jpg
ধরন প্রকৌশল কলেজ
স্থাপিত ২০০৭
অধ্যক্ষ ডঃ ইঞ্জিঃ মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ
শিক্ষার্থী প্রায় ৬০০
ঠিকানা টিলাগড়, সিলেট ৩১১০, বাংলাদেশ ।, সিলেট, বাংলাদেশ
শিক্ষাঙ্গন শহর
অধিভুক্তি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
ওয়েবসাইট www.sec.ac.bd

সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বাংলাদেশের সিলেট শহরে অবস্থিত একটি স্নাতক পর্যায়ের প্রকৌশল কলেজ। এটি একটি পাবলিক কলেজ যা ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সিলেট বিভাগের অন্যতম সেরা প্রকৌশল বিদ্যাপীঠ । এটি বুয়েট, কুয়েট, চুয়েটরুয়েটের মত বি.এস. সি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী প্রদানকারী (পাবলিক) প্রকৌশল কলেজ। এটি ভবিষ্যতে "সিলেট প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়" হবার জন্য তৈরি করা হয়েছে। সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর অধিভুক্ত প্রকৌশল কলেজ।

ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ সিলেট শহরের টিলাগড় এলাকায় অবস্থিত। এই ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজটি ৮ একর জায়গা নিয়ে গঠিত।এর পাশেই রয়েছে সিলেটের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। ৩টি বিশাল একাডেমিক ভবন (সিএসই, ইইই, সিই ভবন), ১টি লাইব্রেরি ও প্রশাসনিক ভবন, অধ্যক্ষের বাসভবন, শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের বাসভবন নিয়ে কলেজের পুরো কাঠামোটি গঠিত। এছাড়াও ছাত্রদের জন্য ২টি ও ছাত্রীদের ১টি আবাসিক হল রয়েছে।

বিভাগ সমুহ[সম্পাদনা]

  1. তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক প্রকৌশল বিভাগ (Department of Electrical & Electronic Engineering)
  2. পুরকৌশল বিভাগ (Department of Civil Engineering)
  3. কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ (Department of Computer Science & Engineering)

প্রতিটি বিভাগ ৪ বছর মেয়াদি বি.এস.সি.(ইঞ্জিনিয়ারিং) ডিগ্রী প্রদান করে থাকে।

কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং - সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

ভর্তি প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

এসএসসি এবং এইসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা মোট জিপিএ এর ভিত্তিতে লিখিত ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হতে পারে।একাডেমিক কার্যক্রম বছরে ২টি সেমিস্টারে ক্রেডিট পদ্ধতিতে সম্পন্ন হয়। ভর্তি প্রক্রিয়া প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের আদলে হয়ে থাকে।

কার্যক্রম[সম্পাদনা]

সাপ্তাহিক ছুটির দিন (শুক্রবার) বাদে প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ক্লাস হয়ে থাকে। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা সফরের আয়োজন করা হয়। কলেজে সব রকম প্রশাসনিক কর্মকান্ড সম্পন্ন করে এর প্রশাসনিক কার্যালয়। প্রশাসনিক কার্যালয়ের অধীনস্থ আরো কয়েকটি উপবিভাগ রয়েছে। বছরজুড়েই ক্যাম্পাসে নানারকম সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড চলে এবং বিশেষ দিবস উদযাপিত হয়। যেমন - আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস, বৈশাখ, বসন্ত বরণ, রবীন্দ্র জয়ন্তী ইত্যাদি।

ক্যাম্পাস রেডিও[সম্পাদনা]

কলেজের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের পরিচালনায় একটি “ক্যাম্পাস রেডিও” সম্প্রচারিত হয়। এটিই দেশের সর্বপ্রথম ক্যাম্পাস রেডিও। মূলতঃ কলেজের শিক্ষার্থীরাই এটি পরিচালনা করে থাকে।

কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

গ্রন্থাগারটি প্রশাসনিক ভবনের পাশে অবস্থিত। এটি প্রয়োজনীয় বইয়ে সমৃদ্ধ। প্রতিটি কক্ষে প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করতে পারে। প্রয়োজনে তারা বই ধার নিতে পারে।

বিভিন্ন সংগঠন[সম্পাদনা]

সহশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ক্যাম্পাসে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন রয়েছে । জাতীয় দিবস, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিশেষ বিশেষ দিনে এসব সংগঠন বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করে থাকে।

  • স্বরবর্ণ সাংস্কৃতিক সংগঠন
  • SEC সিএসই সোসাইটি
  • রংবাজ
  • SEC ডিবেট সোসাইটি
  • আহবান (ক্যাম্পাস ব্যান্ডদল)
  • SEC ফটোগ্রাফিক এসোসিয়েশন
  • SEC সনাতন হিন্দু সোসাইটি
  • SEC ক্রিকেটারস এসোসিয়েশন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]