বিষয়বস্তুতে চলুন

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা
সভাপতিসাইফুদ্দীন আহমদ[১]
মহাসচিবমুহাম্মদ আজাদ হোসাইন
প্রতিষ্ঠা২১ জানুয়ারি ১৯৮০[২][৩]
সদর দপ্তর২০৭, ড্রীম আবুল হোসেন টাওয়ার (তৃতীয় তলা), ফকিরাপুল(প্রথম লেইন), বক্স কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা
ভাবাদর্শসুন্নী
আন্তর্জাতিক অন্তর্ভুক্তিনা
ওয়েবসাইটhttps://www.chattrasena.org/

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা বাংলাদেশের একটি ছাত্র রাজনৈতিক দল, এটি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের ছাত্র সংগঠন।[৪] এই সংগঠনটি আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের দৃঢ় বিশ্বাস অর্থাৎ ইসলামের নবী মুহাম্মদ এবং তার অনুসারীদের (সাহাবী) এর পথকে অনুসরণ করে। তারা ইসলামী আইনশাস্ত্রের চারটি মাযহাব হানাফি, মালেকী, শাফিয়ী এবং হাম্বলি ও সুফি তরিকা অর্থাৎ কাদেরিয়া, চিশতিয়া, নকশবন্দীয়া, সোহরাওয়ার্দীয়া এবং মুজাদ্দেদিয়া হিসাবে উপলব্ধি করে। এই সংগঠনটি বিশ্ব সন্ত্রাসবাদ এবং তথাকথিত ইসলামী চরমপন্থার বিরোধী গোষ্ঠী। এটি বাংলাদেশের একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধেরও সমর্থক। দলের বর্তমান সভাপতি সাইফুদ্দীন আহমদ এবং সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আজাদ হোসাইন।

প্রতিষ্ঠা[সম্পাদনা]

আহ্বায়কসহ মোট এগারোজন সদস্য নিয়ে ১৯৮০ সালের ২১ জানুয়ারি চট্টগ্রামে চট্টগ্রাম কলেজের পশ্চিমে দেবপাহাড়ে আহলা দরবার শরিফের খানকায়[৫] এই সংগঠনটি আত্মপ্রকাশ করে। প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছিলেন মুহাম্মদ আব্দুল মান্নান

সংগঠনটির পতাকায় লম্বালম্বিভাবে সাদা ও আড়াআড়িভাবে উপরে কালো ও নিচে সবুজ রঙ থাকে। এর লোগোতে একটি অর্ধ চাঁদের উপরে একটি তারা আছে এবং নিচে কোরআনের একটি আয়াতাংশ-"জা'ল হক ওয়া জা'হাকাল বাতিল" (সত্য এসেছে, মিথ্যা বিলুপ্ত হয়েছে) লেখা আছে।

প্রতিবাদ[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের আগস্টে, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা প্রধান মুহাম্মদ নুরুল হক চিশতি এক সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা করেছিলেন যে, দলীয় নেতা নুরুল ইসলাম ফারুকীর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে সারা বাংলাদেশে অর্ধদিবস ধর্মঘট পালিত হবে।[৬][৭][৮]

বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের নেতা নুরুল ইসলাম ফারুকীর হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মঙ্গলবার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আশুগঞ্জ গোলচত্ত্বর এলাকায় মানববন্ধন করেছিল বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা।[৯]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ইসলামী ছাত্রসেনার নতুন কমিটি"। বাংলাদেশ প্রতিদিন। ২৯ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী"। দৈনিক ইনকিলাব। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৮ 
  3. "চট্টগ্রামে ছাত্রসেনার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র্যালি সমাবেশ"। দৈনিক ইনকিলাব। ২২ জানুয়ারি ২০১৮। ১৯ জুন ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৮ 
  4. "সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সুরক্ষা জঙ্গিবাদ রুখা ছাত্রসেনার তিন যুগের আদর্শিক আন্দোলন -ইসলামী ছাত্রসেনা"দৈনিক ইনকিলাব। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৯ 
  5. এম. এ. মতিন (২০১০)। সুন্নি জাগরণের সূচনায় বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা। ২০৫/৫, আল বশির প্লাজা, ফকিরাপুল, ঢাকা: বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা (প্রকাশিত হয় ২০১০-০৭-০৩)। পৃষ্ঠা ৬। 
  6. "Chhatra Sena calls strike for Sunday"bdnews24.com। ৩০ আগস্ট ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-০১ 
  7. "Islami Chhatra Sena to enforce hartal on Sunday"Dhaka Tribune। ২৮ আগস্ট ২০১৪। ১৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-০১ 
  8. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "কাল হরতাল ডেকেছে ছাত্রসেনা"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৯ 
  9. "Bangladesh Islami Chhatra Sena formed a human chain"The Daily Observer। ২৬ আগস্ট ২০১৫। ১৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৪-০১