রাণীগঞ্জ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রাণীগঞ্জ
আসানসোল নগরীর অঞ্চল
রাণীগঞ্জ পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
রাণীগঞ্জ
রাণীগঞ্জ
ভারতের পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°৩৭′ উত্তর ৮৭°০৮′ পূর্ব / ২৩.৬২° উত্তর ৮৭.১৩° পূর্ব / 23.62; 87.13স্থানাঙ্ক: ২৩°৩৭′ উত্তর ৮৭°০৮′ পূর্ব / ২৩.৬২° উত্তর ৮৭.১৩° পূর্ব / 23.62; 87.13
রাষ্ট্র ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাবর্ধমান
উচ্চতা৯১ মিটার (২৯৯ ফুট)
জনসংখ্যা (২০০১)
 • মোট১,২২,৮৯১
ভাষা
 • দাপ্তরিকবাংলা, ইংরেজি
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+৫:৩০)
লোকসভা নির্বাচনী এলাকাআসানসোল
বিধানসভা নির্বাচনী এলাকারাণীগঞ্জ
ওয়েবসাইটbardhaman.gov.in

রাণীগঞ্জ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল মহকুমার অন্তর্গত একটি শহর। এই শহরটি অজয় নদদামোদর নদ-এর মাঝামাঝি অবস্থিত। এই অঞ্চল মূলত কয়লা খনির জন্য বিখ্যাত। এই শহরটি হাওড়ার সাথে রেলপথের মাধ্যমে সরাসরি যুক্ত।

রাণীগঞ্জ প্রধানতঃ কয়লা খনি বেষ্টিত জনবহুল এলাকা। রানীগঞ্জের মধ্য দিয়ে একটি পাকা রাস্তা মেজিয়া ঘাটে গিয়ে দামোদর নদীর কাছে মিশেছে। অন্যদিকে রানীগঞ্জ থেকে পিচ ঢালাই রাস্তা পাণ্ডবেশ্বর পর্যন্ত গিয়ে অজয় নদীর সাথে মিশেছে।

ভৌগোলিক উপাত্ত[সম্পাদনা]

অঞ্চলটির অবস্থানের অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ হল ২৩°৩৭′ উত্তর ৮৭°০৮′ পূর্ব / ২৩.৬২° উত্তর ৮৭.১৩° পূর্ব / 23.62; 87.13[১] সমূদ্র সমতল হতে এর গড় উচ্চতা হল ৯১ মিটার (২৯৮ ফুট)। রানীগঞ্জের চারধারে বহু খনি এলাকা আছে। যেমন মহাবীর কলিয়ারী, নর্থ সিয়ারসোল কলিয়ারী, অমৃত নগর কলিয়ারী,দামোদা কলিয়ারী প্রভৃতি।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

ভারতের ২০০১ সালের আদমশুমারি অনুসারে রানীগঞ্জের জনসংখ্যা হল ১২২,৮৯১ জন।[২] এর মধ্যে পুরুষ ৫৩% এবং নারী ৪৭%।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

এখানে সাক্ষরতার হার ৬৪%। পুরুষদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৭২% এবং নারীদের মধ্যে এই হার ৫৬%। সারা ভারতের সাক্ষরতার হার ৫৯.৫%, তার চাইতে রাণীগঞ্জ এর সাক্ষরতার হার বেশি। এই অঞ্চলটির জনসংখ্যার ১১% হল ৬ বছর বা তার কম বয়সী।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

  1. সিয়ারসোল রাজ উচ্চ বিদ্যালয়
  2. গান্ধী মেমোরিয়াল বালিকা বিদ্যালয়
  3. রাণীগঞ্জ বয়েজ উচ্চ বিদ্যালয়
  4. রাণীগঞ্জ মারোয়ারী উচ্চ বিদ্যালয়
  5. যমুনাময়ী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়
  6. ত্রিবেণীদেবী ভালোটিয়া কলেজ
  7. হরশঙ্কর ভট্টাচার্য ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড মাইনিং

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

রাণীগঞ্জ মূলত এখানকার কয়লা খনি এবং খনিজ সংক্রান্ত ব্যবসায়িক কাজের জন্য বিখ্যাত। পূর্ব ভারতের অন্যান্য স্থানের সাথে একটি অর্থনৈতিক বাণিজ্য এলাকা হিসাবে কলকাতার মাধ্যমে রাণীগঞ্জ যুক্ত।

রাণীগঞ্জ ব্লক[সম্পাদনা]

রানিগঞ্জ ব্লকের গ্রামীণ এলাকা ছয়টি গ্রাম পঞ্চায়েত নিয়ে গঠিত। এগুলি হল আমড়াসোতা, এগারা, রতিবাটী, বল্লভপুর, জেমারি ও তিরাট। এই ব্লকের শহরাঞ্চল বাঁশড়া, চেলোদ, রতিবাটী, চাপুই, জেমারি (জে. কে. নগর টাউনশিপ), আমকুলা, মুরগাথুল, রঘুনাথচক, বল্লভপুরবেলেবাথান সেন্সাস টাউন দশটি নিয়ে গঠিত। ব্লকটি রানিগঞ্জ থানার অধীনস্থ। ব্লকের সদর সিয়ারশোল রাজবাড়ি।

ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

এখনকার কয়েকটি নামকরা বাণিজ্য-প্রতিষ্ঠান হল-

  1. সর্বোদয়া গ্র‌ুপ অফ কোম্পানীজ্।
  2. রিলায়েবেল অগ্নি নিরোধ।
  3. ছোট শিবাজী বিড়ি
  4. বেঙ্গল অয়েল মিল।
  5. চিট ফুড কোম্পানি।
  6. মাল্টি কোম্পানি।
  7. সাঁই গ্রুপ।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Raniganj"Falling Rain Genomics, Inc (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৫, ২০০৬ 
  2. "ভারতের ২০০১ সালের আদমশুমারি" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৫, ২০০৬ 

3. পশ্চিম বর্ধমান জেলা https://bn.wikipedia.org/w/index.php?title=%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%A3%E0%A7%80%E0%A6%97%E0%A6%9E%E0%A7%8D%E0%A6%9C&action=edit&section=6