যৌনকর্মী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

যৌনকর্মী তুলনামূলকভাবে একটি নতুন শব্দ যা দিয়ে দেহব্যবসায় জড়িত ব্যক্তিদের বোঝানো হয়ে থাকে। ঐতিহাসিকভাবে যে সকল নারী অর্থের বিনিময়ে অন্য পুরুষের সঙ্গে যৌনসঙ্গমে মিলিত হতে সম্মত হন এবং হয়ে থাকেন তাদের গণিকা বা বেশ্যা বা পতিতা বলে অভিহিত করা হয়। পুরুষ কর্তৃক অর্থের বিনিময়ে অন্যের সঙ্গে যৌনসঙ্গমে মিলিত হওয়ার ধারণাটি নতুন এবং বাংলা অভিধানে এ জন্য কোন পৃথক শব্দ নেই। তবে নবসৃষ্ট যৌনকর্মী শব্দটি নারী ও পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রে সমপ্রযোজ্য।

যৌনকর্মী শব্দটি ইংরেজি sex worker শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ যার আভিধানিক অর্থ, দেহব্যবসার সাথে জড়িত সকল ব্যক্তি যৌনকর্মী বলে।[১]

পতিতালয়[সম্পাদনা]

বাঈজীবাড়ী[সম্পাদনা]

যৌনকর্মীদের মনস্তত্ত্ব[সম্পাদনা]

স্বাস্থ্য ঝুঁকি[সম্পাদনা]

অর্থ সম্প্রসারণ[সম্পাদনা]

দেহব্যবসায় যারা প্রত্যক্ষভাবে যৌনসেবা প্রদান করেন এবং যারা এর সাথে পরোক্ষভাবে কাজ করেন যৌনকর্মী শব্দটি তাদের সবাইকে নির্দেশ করে। যারা প্রত্যক্ষভাবে যৌনসেবা প্রদান করেন তাদের অধিকাংশ সময় 'গণিকা' বা 'বেশ্যা' বলা হয়; অপরদিকে যারা পরোক্ষভাবে কাজ করেন তাদের বলা হয় দালাল বা কুটনী, দালাল ছাড়াও আরও পরোক্ষ যৌনকর্মীর অস্তিত্ব বিদ্যামান । দালাল যৌনকর্মী (কুটনী) টাকার বিনিময়ে মক্কেল ও গণিকার সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে, মক্কেলের যৌনকাজের জন্য এরা মক্কেলের সাথে সরাসরি সাক্ষাৎ করে কথা বলে সবকিছু ঠিক করে, প্রয়োজনে নিরাপদ স্থানও ঠিক করে দেয়। গণিকা বা বেশ্যার দালালের বাইরেও আরো অনেক ধরনের যৌনকর্মী আছে, যারা পরোক্ষভাবেই যৌনব্যবসার সাথে জড়িত, তাদের মধ্যে আসতে পারে, ফৌনিন-যৌনকর্মী (ফনো-সেক্স-ওয়ার্কার) যারা মোবাইল ফোনালাপের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে যৌনসেবা প্রদান করে, ওয়েব-ক্যাম ব্যবহার করে সরাসরি মক্কেলের সাথে যৌন-ভিত্তিক কার্যক্রমের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে যৌনসেবা প্রদান করে করে । যৌন-ভিত্তিক একধরনের চলচ্চিত্রও তৈরী হয় যাকে পর্ন ফিল্ম বা ব্লু ফিল্ম বা নীল ছবিও বলা হয়ে থাকে, এই ধরনের চলচ্চিত্রে যারা অভিনয় করেন তাদের পর্ন তারকা বলা হয়। এই পর্ন তারকারা পরোক্ষভাবে মক্কেলদেরকে যৌনপল্লীর দিকে ঠেলে দেয় তাই এদেরকেও যৌনকর্মী বলা হয়, শুধু তাই নয় নীল ছবিকে ঘিরে বিশাল পরিমান ব্যবসাও বিদ্যামান। অনুরূপে, যৌন আবেদন বিষয়ক অনেক বই পাওয়া যায় যেগুলো চটি বই হিসাবে পরিচিত, চটি বইয়ের লেখকদের চটি লেখক বলা হয়, চটি লেখক প্রকাশক থেকে শুরু করে বইয়ে ভিতর ব্যবহৃত উলঙ্গ, অর্ধ-উলঙ্গ বা আবেদনময়ী ছবির মডেল এদের সবাইকে যৌনকর্মী বলা যেতে পারে।

অনেক যৌনকর্মী অাছেন যারা টাকার বিনিময়ে টিভিতে সরাসরি যৌন অনুষ্ঠান, অথবা ওয়েবক্যামে যৌন কর্মক্ষমতা প্রদর্শন কিংবা আবেদনময়ী নাচ করেন, এছাড়াও তারা আরো অনেক ধরনের যৌন-ভিত্তিক অনুষ্ঠানে যান। উদাহরণস্বরূপ: striptease, Go-Go dancing, lap dancing, Neo-burlesque, এবং peep show ইত্যাদি। অনেক সময় যৌন চিকিৎসক যৌনকর্মীর মাধ্যমে যৌনরোগীদের এক ধরনের থেরাপি দিয়ে থাকেন যাতে যৌন দুর্বল ব্যক্তিরা অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে যৌন সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পারে। অনেকসময় যৌনসঙ্গমের সময় যারা দূর্বলতায় ভোগেন ডাক্টাররা তাদের বিভন্ন রকমের পর্ন ভিডিও দেখার পরামর্শ দিয়ে থাকেন । আমাদের সমাজসহ সারা বিশ্বেই যৌন কর্মীদের অবহেলা ও খারাপ চোখে দেখা হয়ে থাকে , কিন্তু যৌনরোগীদের থেরাপিতে কাজসহ যৌনকর্মীদের নানা ধরনের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখপূর্বক অনেকেই গণিকাদের কলঙ্ক দেওয়ার পক্ষপাতি নয়, অনেক সময় যৌনকর্মীদের কলঙ্ক না দেওয়ার জন্য তারা আহ্বান করে থাকেন । যৌন ব্যবসায় পৃথিবীর প্রাচীনতম পেশা হলেও "যৌনকর্মী" শব্দটি ১৯৭৮ সনে প্রথম ব্যবহার করেন যৌনকর্মী অধিকারবাদী ক্যারল লেই (Carol Leigh)।১৯৮৭ সনে Frédérique Delacoste এবং Priscilla Alexander সম্পাদিত মহিলা যৌনকর্মীদের লেখা "Sex Work" নামক কবিতা সংকলন প্রকাশ হওয়ার থেকে শব্দটি জনপ্রিয় হওয়া শুরু করে, এরপর থেকেই থেকে যৌনকর্মী শব্দটি ব্যপক বিস্তৃতি লাভ করে, সরকারী-বেসরকারী এজেন্সী, বেসরকারী সংগঠন এবং এমনকি গবেষণা প্রবন্ধে, একাডেমিক পাবলিকশনসহ বিভিন্ন পত্র-পত্রিকাতেও শব্দটি ব্যপকভাবে ব্যবহৃত হয়। এমনকি "sex worker" শব্দযুগলের সংজ্ঞা Oxford English Dictionary এবং Merriam-Webster অভিধানের তালিকাভুক্ত ।

দেহব্যবসা বিরোধী, গণিকা বিরোধী নারীবাদী, গণিকা নিষিদ্ধকরণের সমর্থক এবং সামাজিক রক্ষণশীলদের কাছে শব্দটি অগ্রহনযোগ্য। এরা দেহব্যবসাকে নিপীড়ন অথবা অপরাধ হিসাবে দেখে।

কার্যক্ষেত্র[সম্পাদনা]

এমনকি বাংলাদেশও দেহব্যবসা বৈধ[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "sex worker - definition of sex worker in English | Oxford Dictionaries"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১২ 
  2. anna.shinkovskaya। "Bangladesh Society for the Enforcement of Human Rights (BSEHR) and Ors v. Government of Bangladesh and Ors" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৩