মেনিনজাইটিস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মেনিনজাইটিস / মস্তিষ্কপর্দার প্রদাহ
Meninges-en.svg
শ্রেণীবিভাগ এবং বহিঃস্থ সম্পদ
বিশিষ্টতাস্নায়ুবিদ্যা[*], সংক্রামক রোগ[*]
আইসিডি-১০G০০G০৩
আইসিডি-৯-সিএম৩২০৩২২
ডিজিসেসডিবি২২৫৪৩
মেডলাইনপ্লাস০০০৬৮০
ইমেডিসিনmed/2613 emerg/৩০৯ emerg/৩৯০
পেশেন্ট ইউকেমেনিনজাইটিস
মেএসএইচD০০৮৫৮১ (ইংরেজি)

মেনিনজাইটিস (ইংরেজি: Meningitis) বা মস্তিষ্কপর্দার প্রদাহ মস্তিস্ক বা সুষুম্নাকান্ডের আবরণকারী পর্দা বা মেনিনজেসের প্রদাহজনিত একটি রোগ।[১][২] মেনিনজাইটিস শব্দটি এসেছে গ্রিক μῆνιγξ méninx, যার অর্থ "পর্দা" এবং চিকিৎসাবিজ্ঞানের -itis শব্দটি থেকে যার অর্থ প্রদাহ। [৩] মেনিনজাইটিস একটি জরুরী অবস্থা, যেখানে দ্রুত চিকিৎসা অপরিহার্য।

কারণ[সম্পাদনা]

মেনিনজাইটিস সাধারণত ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক বা অন্য পরজীবীর সংক্রমণে হয়ে থাকে। এছাড়াও বিরল কিছু ক্ষেত্রে কর্কটরোগ (ক্যানসার) বা স্বয়ং-অনাক্রম্য (অটোইমিউন) রোগের কারণেও হতে পারে।

লক্ষণ[সম্পাদনা]

এ রোগের লক্ষণগুলো হল

  • জ্বর
  • মাথাব্যথা
  • ঘাড় শক্ত হয়ে যাওয়া
  • আলো ও শব্দ অসহনশীলতা
  • খিঁচুনি ও মুখ দিয়ে শ্লেষ্মা বের হওয়া।
  • অসংলগ্নতা
  • বমি বা বমিভাব

শিশুদের ক্ষেত্রে লক্ষণগুলো চিহ্নিত করা কঠিন

  • জ্বর
  • খিটখিটে মেজাজ
  • খেতে অনীহা
  • অতিরিক্ত ক্লান্তি
  • ত্বকে লাল দানা (মেনিংগোকক্কাল মেনিনজাইটিস)

চিকিৎসা[সম্পাদনা]

মেনিনজাইটিস নিশ্চিত হবার জন্য সুষুম্নাকাণ্ডের চারপাশের তরল নিয়ে পরীক্ষা করা হয়। দায়ী পরজীবি শনাক্ত করে সে অনুযায়ী ব্যাকটেরিয়া নিরোধক (অ্যান্টিবায়োটিক), ভাইরাস নিরোধক ( অ্যান্টিভাইরাল) অথবা ছত্রাক নিরোধক (অ্যান্টিফাঙ্গাল) ঔষধ ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও স্টেরয়েড এবং লক্ষণ অনুযায়ী চিকিৎসা দেয়া হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. pmhdev। "Meningitis - National Library of Medicine" 
  2. "Meningitis" 
  3. Liddell HG, Scott R (১৯৪০)। "μήνιγξ"। A Greek-English Lexicon। Oxford: Clarendon Press। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]