মাদালসা শর্মা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাদালসা শর্মা চক্রবর্তী
Madalsa Sharma grace the first look launch of Dil Salaa Sanki (09) (cropped).jpg
জন্ম (1993-09-26) ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৩ (বয়স ২৬)
জাতীয়তাভারতীয়
অন্যান্য নামমাদালাসা, মাদ্দালাসা,[১] মিঠি[২]
পেশাঅভিনেত্রী, মডেল
দাম্পত্য সঙ্গীমহাক্ষয় চক্রবর্তী (বি. ২০১৮)

মাদালসা শর্মা (বা মদালসা শর্মা; জন্ম: ২৬শে সেপ্টেম্বর ১৯৯৩) হলেন একজন ভারতীয় মডেলঅভিনেত্রী। তিনি হিন্দি, তেলুগু, কন্নড়, তামিল, জার্মান এবং পাঞ্জাবি ভাষার চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।[৩]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মাদালসা শর্মা ১৯৯৩ সালের ২৬শে সেপ্টেম্বর তারিখে ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বইয়ে চলচ্চিত্র নির্মাতা ও পরিচালক সুভাষ শর্মা এবং অভিনেত্রী শীলা শর্মার ঘরে জন্মগ্রহণ করেছেন।[৪] মার্বেল আর্চ স্কুল থেকে স্কুল জীবনের পড়াশোনা শেষ করার পরে তিনি মুম্বইয়ের মিঠিভাই কলেজের ইংরেজি সাহিত্য বিভাগে অধ্যয়ন করেছিলেন।[৫]

তিনি বলেছিলেন যে, "আমি সর্বদা জানতাম যে আমি অভিনেতা হতে চাই"।[৬] তিনি কিশোর নমিত কাপুর পরিচালিত প্রতিষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন এবং অভিনয়ের পাঠ গ্রহণ করেছিলেন। অন্যদিকে তিনি গণেশ আচার্য্য এবং শ্যামক দাবরের অধীনে নৃত্য শিখতেন।[৪] তিনি মিঠুন চক্রবর্তীর পুত্র মিমোহ চক্রবর্তীর সাথে ২০১৮ সালের ১০শে জুলাই তারিখে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন।

পেশা[সম্পাদনা]

মাদালসা শর্মা ২০০৯ সালে ই. ভি. ভি. সত্যনারায়ণ দ্বারা পরিচালিত তেলুগু চলচ্চিত্র ফিটিং মাস্টার-এ অভিনয়ের মধ্য দিয়ে অভিনয় জগতে অভিষেক করেছিলেন।[৭] এই চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িকভাবে একটি সফল চলচ্চিত্র ছিল এবং এই চলচ্চিত্রে মাদালসার অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছিল। পরের বছর তিনি শৌর্য্য নামক একটি কন্নড় চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে কন্নড় চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। এই ছবিটি মাদালসার অভিনয় জীবনে এক দুর্দান্ত সাফল্য এনে দিয়েছিল।[৮] ২০১০ সালে সুরেশ প্রোডাকশনের ব্যানারে আলস্যম অমৃতম নামে আরও একটি তেলুগু চলচ্চিত্রে তাঁকে দেখা গিয়েছিল। ড. রমা নায়ডু মাদলসাকে চলচ্চিত্রের নায়িকা হিসাবে বেছে নিয়েছিলেন, এই চলচ্চিত্রটি শুধু ব্যবসায়িকভাবেই ভালো করেনি, এটি মাদালসার অভিনয় জীবনকে এক অন্য স্তরে নিয়ে গেছে। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি ইতিবাচক মন্তব্য পেয়েছিলেন।[৯][১০][১১][১২]

নৃত্য পরিচালক গণেশ আচার্য দ্বারা পরিচালিত অ্যাঞ্জেল নামক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি হিন্দি চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। এই চলচ্চিত্রটি ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে মুক্তি পেয়েছিল। এই চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িকভাবে দারুণ ফলাফল অর্জন করেছিল এবং মাদালসার অভিনয় সকলের নজর কাড়ার পাশাপাশি সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছিল। এরপরেই তিনি আরেকটি তেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন, যার নাম মেম ভায়াসুকু ভাচাম

সম্প্রতি, বাজয়ন্তী ফিল্মস প্রযোজিত ই টিভি তেলুগু-তে প্রচারিত জনপ্রিয় রিয়ালিটি টেলিভিশন অনুষ্ঠান সুপার ২-এ তাঁর সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছিলেন, যার ফলে তিনি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন। পাথাইরাম কোডি নামক তামিল চলচ্চিত্র মুক্তির পরে তিনি বেশ কয়েকটি টেলিভিশন বিজ্ঞাপনের কাজ করার প্রস্তাব পেয়েছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Maddalasa adds 'D' for good luck – The Times of India"। Timesofindia.indiatimes.com। ১১ অক্টোবর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  2. "Madalsa Sharma turns Mithi"। ১৯ এপ্রিল ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০১৪ 
  3. "The Tribune, Chandigarh, India – The Tribune Lifestyle"। Tribuneindia.com। ৯ জানুয়ারি ১৯৭৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  4. P Vasudeva rao। "Eyeing young & bubbly roles"। The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  5. "Cinema Connect"। The Indian Express। ৩০ এপ্রিল ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  6. "Cinema Connect | The Indian Express | Page 99"। The Indian Express। ৩০ এপ্রিল ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  7. "Comedy, EVV style"। The Hindu। ১৩ জানুয়ারি ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  8. Wire, Sampurn। "Madalasa Sharma's Kannada Debut"। The New Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  9. 123telugu। "Alasyam Amrutham Movie Review"। 123telugu.com। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  10. "Alasyam Amrutham Review"। CineGoer.com। ৫ ডিসেম্বর ২০১০। ৬ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  11. "Thambikku Indha Ooru is ridiculous – Rediff.com Movies"। Movies.rediff.com। ৮ মার্চ ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 
  12. "'Thambikku Intha Ooru' has no depth – IBNLive"। Ibnlive.in.com। ২৯ এপ্রিল ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]