বাহরাইচ জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাহরাইচ জেলা
উত্তরপ্রদেশের জেলা
উত্তরপ্রদেশে বাহরাইচ জেলার অবস্থান
উত্তরপ্রদেশে বাহরাইচ জেলার অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যউত্তরপ্রদেশ
বিভাগদেবিপাটন
সদর দপ্তরবাহরাইচ
তহশিল
সরকার
 •  লোকসভা কেন্দ্রবাহরাইচ
আয়তন
 • মোট৪৬৯৬.৮ কিমি (১৮১৩.৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট৩৪,৭৮,২৫৭
 • জনঘনত্ব৭৪০/কিমি (১৯০০/বর্গমাইল)
 • পৌর এলাকা১,৮৬,২২৩
জনসংখ্যার উপাত্ত
 • সাক্ষরতা৫১.১%
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
প্রধান মহাসড়কগুলিএনএইচ২৮সি, এসএইচ৯৬
গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত১৭১০ মিমি
ওয়েবসাইটhttp://behraich.nic.in

বাহরাইচ জেলা ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের একটি জেলা, এবং বাহরাইচ শহরটি জেলা সদর। বাহরাইচ জেলা হল দেবিপাটন বিভাগের একটি অংশ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বাহরাইচ ঐতিহাসিক আওধে অবস্থিত। জেলাটি নানপাড়া তালুকদারির একটি অংশ ছিল, যেটি বিভিন্ন রাজার উত্তরাধিকারীরা শাসন করতেন। তাঁদের অধীনে এই জেলার সমস্ত বনাঞ্চল এবং প্রায় তিন শতাধিক গ্রাম ছিল। রাজা বলদেব সিংহ একটি দুর্গ তৈরি করেছিলেন যা পরবর্তীকালে সাদাত আলী দখল করে নেয়। তার স্মরণে বাহরাইচে প্রতিবছর একটি বিখ্যাত দরগা শরিফ মেলার আয়োজন করা হয়।

ঘন বন এবং দ্রুত প্রবাহিত নদীগুলি বাহরাইচ জেলার বিশেষত্ব। বাহরাইচের বিশেষ ঐতিহাসিক মূল্য সম্পর্কে প্রচুর পৌরাণিক তথ্য রয়েছে। এটি মহাবিশ্বের স্রষ্টা ঈশ্বর ব্রহ্মার রাজধানী হিসাবে বিখ্যাত ছিল। এটি গন্ধর্ব বনের অংশ হিসাবেও পরিচিত ছিল।

মধ্যযুগের কিছু ঐতিহাসিকের মতে এই স্থানটি ছিল ভার বংশের রাজধানী। সুতরাং এটিকে "ভারাইচ" নামে ডাকা হত। যা পরবর্তীতে “বাহরাইচ” নামে পরিচিতি লাভ করে।

পুরাণ মতে, রামের পুত্র লব ও রাজা প্রসেনজিৎ বাহরাইচের শাসক ছিলেন। প্রবাসের সময়কালে পাণ্ডব এবং মা কুন্তি এই স্থানে এসেছিলেন।

মহারাজা জনকের গুরু, ঋষি অষ্টাবক্র এখানে থাকতেন। ঋষি বাল্মীকি ও ঋষি বালার্কও এখানে থাকতেন।[১]

ভূগোল[সম্পাদনা]

বাহরাইচের উত্তর-পশ্চিম সীমানায় আছে নাপালের বার্দিয়া এবং উত্তর-পূর্বে বাঁকে জেলা। বাহরাইচের বাকি অংশগুলি উত্তর প্রদেশের অন্যান্য জেলাগুলি দ্বারা বেষ্টিত: পশ্চিমে লখিমপুর এবং সীতাপুর, দক্ষিণ-পশ্চিমে হারদোই, দক্ষিণ-পূর্বে গোন্ডা, এবং পূর্বে শ্রাবস্তী

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে পঞ্চায়েতি রাজ মন্ত্রক দেশের ২৫০টি সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া জেলাগুলির মধ্যে বাহরাইচ জেলাও একটি বলে ঘোষণা করেছিল [মোট ৬৪০ জেলার মধ্যে)।[২] এটি উত্তর প্রদেশের ৩৪টি জেলার মধ্যে একটি যা বর্তমানে পশ্চাদপদ অঞ্চল অনুদান তহবিল কর্মসূচী (বিআরজিএফ) থেকে অনুদান পাচ্ছে।[২]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিক জনসংখ্যা
বছরজন.ব.প্র. ±%
১৯০১৭,৬৪,৪৭৭—    
১৯১১৭,৬১,৬১১−০.০৪%
১৯২১৭,৭৪,৩১৭+০.১৭%
১৯৩১৮,২৫,৯২৩+০.৬৫%
১৯৪১৯,০১,৬৭৫+০.৮৮%
১৯৫১৯,৭৮,৫৫৩+০.৮২%
১৯৬১১০,৯৮,৬৯৫+১.১৬%
১৯৭১১২,৮২,২১৮+১.৫৬%
১৯৮১১৬,৭২,৪১০+২.৬৯%
১৯৯১২০,৯০,৮৫২+২.২৬%
২০০১২৭,০১,৪৭৮+২.৬%
২০১১৩৪,৮৭,৭৩১+২.৫৯%
সূত্র:[৩]

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে বাহরাইচ জেলা জনসংখ্যা ৩,৪৭৮,২৫৭ জন।[৪] জনসংখ্যারভিত্তিতে এটি ভারতে ৯০তম স্থানে আছে (মোট ৬৪০ জেলার মধ্যে)।[৪] জেলার জনসংখ্যার ঘনত্ব ৭০৬ জন প্রতি বর্গকিলোমিটার (১,৮৩০ জন/বর্গমাইল)।[৪] এর জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ২০০১ - ২০১১ এর দশকে ৪৬.০৮% ছিল।[৪] বাহরাইচে প্রতি ১০০০ পুরুষের জন্য ৮৯১ মহিলা (যৌন অনুপাত) রয়েছে,[৪] এবং সাক্ষরতার হার এর ৫১.১%।

বাহরাইচ একটি "এ" শ্রেণীর জেলা, অর্থাৎ এখানকার আর্থ-সামাজিক এবং মৌলিক সুযোগ-সুবিধা জাতীয় গড়ের নীচে রয়েছে।[৫]

২০১১ সালের ভারতের আদমশুমারি আনুসারে, জেলার ৯২.৭১% জনগণ মূলত হিন্দিতে এবং ৭.০২% উর্দুতে কথা বলে।[৬]

বাহরাইচ জেলায় ধর্ম[৭]
ধর্ম শতাংশ
হিন্দু
  
৬৫.৭১%
মুসলমান
  
৩৩.৫৩%
অন্যান্য†
  
০.৭৬%

তথ্যসূচী[সম্পাদনা]

  1. "Baharaich"Government of Uttar Pradesh। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৯ 
  2. Ministry of Panchayati Raj (৮ সেপ্টেম্বর ২০০৯)। "A Note on the Backward Regions Grant Fund Programme" (PDF)। National Institute of Rural Development। ৫ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১১ 
  3. Decadal Variation In Population Since 1901
  4. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 
  5. MINUTES OF THE 34th MEETING OF EMPOWERED COMMITTEE TO CONSIDER AND APPROVE REVISED PLAN FOR BALANCE FUND FOR THE DISTRICTS OF GHAZIABAD, BAREILLY, BARABANKI, SIDDHARTH NAGAR, SHAHJANPUR, MORADABAD, MUZAFFAR NAGAR, BAHRAICH AND LUCKNOW (UTTAR PRADESH) UNDER MULTI-SECTORAL DEVELOPMENT PROGRAMME IN MINORITY CONCENTRATION DISTRICTS HELD ON 22nd JULY, 2010 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে. No. 3/64/2010-PP-I, GOVERNMENT OF INDIA, MINISTRY OF MINORITY AFFAIRS
  6. 2011 Census of India, Population By Mother Tongue
  7. "Census 2011 Bahraich District"Census 2011। সংগ্রহের তারিখ ১ জুলাই ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]