বাহমানি সালতানাত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাহমানি সালতানাত

 

১৩৪৭–১৫২৭
বাহমানি সালতানাত, ১৪৭০ খ্রিষ্টাব্দ
রাজধানী গুলবারগা (১৩৪৭–১৪২৫)
বিদার (১৪২৫–১৫২৭)
ভাষাসমূহ ফার্সি, উর্দু, দক্ষিণী, মারাঠি, তেলেগু, কন্নড়
ধর্ম ইসলাম (সুন্নি)[১][২]
সরকার রাজতন্ত্র
সুলতান
 -  ১৩৪৭–১৩৫৮ আলাউদ্দিন বাহমান শাহ
 -  ১৫২৫–১৫২৭ কালিমউল্লাহ শাহ
ঐতিহাসিক যুগ মধ্যযুগ
 -  সংস্থাপিত ৩ আগস্ট ১৩৪৭
 -  ভাঙ্গিয়া দেত্তয়া হয়েছে ১৫২৭
সতর্কীকরণ: "মহাদেশের" জন্য উল্লিখিত মান সম্মত নয়

বাহমানি সালতানাত (বাহমানি সাম্রাজ্য নামেও পরিচিত) ছিল দক্ষিণ ভারতের একটি মুসলিম রাজ্য এবং মধ্যযুগে ভারতের অন্যতম বৃহৎ রাজ্য।[৩]

বাহমানি সালতানাত দক্ষিণ ভারতের প্রথম স্বাধীন মুসলিম রাজ্য ছিল।[৪] তুর্কি বংশোদ্ভূত সেনাপতি আলাউদ্দিন বাহমান শাহ দিল্লির সুলতান মুহাম্মদ বিন তুগলকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে বাহমানি সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন।[৫] ১৩৪৭ থেকে ১৪২৫ সাল পর্যন্ত আহসানাবাদ (গুলবারগা) ছিল বাহমানি রাজধানী। এরপর মুহাম্মাদাবাদে (বিদার) রাজধানী স্থানান্তরিত করা হয়। দক্ষিণাত্যের নিয়ন্ত্রণকে কেন্দ্র করে বাহমানিদের সাথে বিজয়নগর সাম্রাজ্যের প্রতিদ্বন্দ্বীতা চলতে থাকে। মাহমুদ গাওয়ানের মন্ত্রীত্বকালীন সময় সালতানাতের ক্ষমতা সর্বো‌চ্চ শিখরে পৌছায়। বিজয়নগরের সম্রাট কৃষ্ণদেবরায় বাহমানি সালতানাতের টিকে থাকা শেষ পর্যায়কে পরাজিত করার পর বাহমানি সালতানাত ভেঙে যায়।[৬] ১৫১৮ সালের পর সালতানাত ভেঙে পাঁচটি রাজ্যের উদ্ভব হয়: আহমেদনগর সালতানাত, গোলকুন্ডা সালতানাত, বিদার সালতানাত, বেরার সালতানাত, বিজাপুর সালতানাত। এদেরকে সম্মিলিতভাবে দক্ষিণাত্য সালতানাত বলা হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Burjor Avari, Islamic Civilization in South Asia: A History of Muslim Power and Presence in the Indian subcontinent, (Routledge, 2013), 91.
  2. Farooqui Salma Ahmed, A Comprehensive History of Medieval India: From Twelfth to the Mid-Eighteenth Century, (Dorling Kindersley Pvt. Ltd., 2011), 170.
  3. "The Five Kingdoms of the Bahmani Sultanate"। orbat.com। ২০০৭-০২-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-০৫ 
  4. Ansari, N.H. "Bahmanid Dynasty" Encyclopaedia Iranica
  5. Sen, Sailendra (২০১৩)। A Textbook of Medieval Indian History। Primus Books। পৃষ্ঠা 106–108,117। আইএসবিএন 978-9-38060-734-4 
  6. Eaton, Richard M.। A Social History of the Deccan, 1300-1761: Eight Indian Lives। পৃষ্ঠা 88। 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]