বার্টো বার্টলেট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বার্টো বার্টলেট
Barto Bartlett.jpg
১৯৩০-৩১ মৌসুমে সংগৃহীত স্থিরচিত্রে বার্টো বার্টলেট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামএডওয়ার্ড লসন বার্টলেট
জন্ম(১৯০৬-০৩-১০)১০ মার্চ ১৯০৬
ফ্লিন্ট হল, সেন্ট মাইকেল, বার্বাডোস
মৃত্যু২১ ডিসেম্বর ১৯৭৬(1976-12-21) (বয়স ৭০)
বেভিল, সেন্ট মাইকেল, বার্বাডোস
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৪)
১১ আগস্ট ১৯২৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৩১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯২৩–১৯৩৯বার্বাডোস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪২
রানের সংখ্যা ১৩১ ১,৫৮১
ব্যাটিং গড় ১৮.৭১ ২৩.২৫
১০০/৫০ ০/১ ১/৮
সর্বোচ্চ রান ৮৪ ১০৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ৮/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮

এডওয়ার্ড লসন (বার্টো) বার্টলেট (ইংরেজি: Barto Bartlett; জন্ম: ১০ মার্চ, ১৯০৬ - মৃত্যু: ২১ ডিসেম্বর, ১৯৭৬) বার্বাডোসের সেন্ট মাইকেল এলাকার ফ্লিন্ট হলে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯২৮ থেকে ১৯৩১ সময়কালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে বার্বাডোস দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও ১৯২৮ সালে ইংল্যান্ড সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাসের সর্বপ্রথম টেস্টে অংশ নেয়ার গৌরব অর্জন করেছেন এডওয়ার্ড বার্টলেট নামে পরিচিত বার্টো বার্টলেট

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

সেন্ট মাইকেলের ফ্লিন্ট হল এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বার্টো বার্টলেট ১৯২৩-২৪ মৌসুম থেকে ১৯৩৮-৩৯ মৌসুম পর্যন্ত বার্বাডোসের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

১৯২৮ সালে কার্ল নুনেসের নেতৃত্বাধীন ওয়েস্ট দলের সাথে ইংল্যান্ড গমন করেন। ঐ সফরেই সফরকারী দলটির ইতিহাসের প্রথম টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছিল। প্রস্তুতিমূলক খেলায় নটিংহ্যামশায়ারের বিপক্ষে ১০৯ রানের একমাত্র ব্যক্তিগত সেঞ্চুরিটি করেছিলেন তিনি। ১৯৩০-৩১ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সদস্যরূপে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন। অ্যাডিলেডে সিরিজের প্রথম টেস্টে ১১৯ মিনিটে ৮৪ রানের মনোরম ইনিংস খেলেন। এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনের সর্বোচ্চ রানের টেস্ট ইনিংস ছিল।[১]

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

১৯৭৮ সালের সংস্করণে উইজডেন তাদের স্মরণিকায় মন্তব্য করে যে, উইকেটে অল-রাউন্ড ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করেছিলেন তিনি। সংগৃহীত রানগুলো স্পষ্ট সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচিত করতো। দূর্ভাগ্যবশতঃ স্বার্থপরের মতো দল নির্বাচকমণ্ডলী বিচার বিশ্লেষণ করেছিলেন।

জুন, ১৯৮৮ সালে বার্বাডোস ক্রিকেট বাকলের সাথে হারম্যান গ্রিফিথের পরিবর্তে বার্টো বার্টলেটের স্থিরচিত্র ১০১ বার্বাডীয় ৫০সি স্ট্যাম্পে প্রকাশ করা হয়। ব্রিজটাউনের পার্সেল পোস্ট অফিস থেকে এ ভুল হয়েছিল। ৬ জুন, ১৯৮৮ তারিখ সোমবার সকাল ৯টার পূর্বেই এগুলো উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে ১১ জুলাই, ১৯৮৮ তারিখে হারম্যান গ্রিফিথের চিত্র সম্বলিত সঠিক ৫০সি স্ট্যাম্প প্রকাশ করা হয়েছিল। ১০১ সিরিজের বার্টলেটের স্ট্যাম্পগুলো বেশ উঁচু দামে বিক্রয় হয়েছিল।

দেহাবসান[সম্পাদনা]

২১ ডিসেম্বর, ১৯৭৬ তারিখে বার্বাডোসের সেন্ট মাইকেল এলাকার বেভিলে সত্তর বছর বয়সে বার্টো বার্টলেটের দেহাবসান ঘটে। উইজডেনের ১৯৩৪ সালের সংস্করণে ভুলবশতঃ তার মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ করেছিল।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]