বয়েই গেলো (টিভি ধারাবাহিক)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বয়েই গেলো
বয়েই গেলো (টিভি ধারাবাহিক) এর লোগো.png
বয়েই গেলো এর লোগো
ফরম্যাটহাস্যরসাত্মক নাটক
পরিচালকস্বর্ণেন্দু সমাদ্দার
অভিনয়েরোহিত সামন্ত
মধুবনী ঘোষ
সৌরভ
চিত্রা সেন
সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়
পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়
মনু মুখোপাধ্যায়
সানন্দা বসাক
প্রস্তুতকারক দেশ ভারত
মূল ভাষাবাংলা
পর্বসংখ্যা৪৫০+
নির্মাণ
প্রযোজকরবি ওঝা প্রোডাকশন এন্টারপ্রাইজেস
সম্পাদকঅমিত নস্কর
ব্যাপ্তিকাল৩০ মিনিট
সম্প্রচার
মূল চ্যানেলজি বাংলা
মূল প্রদর্শনী২২শে জুলাই, ২০১৩ – ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৪

'বয়েই গেলো' জি বাংলায় সম্প্রচারিত একটি জনপ্রিয় ধারাবাহিক[১][২]স্বর্ণেন্দু সমাদ্দারের পরিচালনায় রবি ওঝা প্রোডাকশন এন্টারপ্রাইজেস প্রযোজিত এই ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন রোহিত সামন্ত[৩], মধুবনী ঘোষ, সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়[৪], পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, মনু মুখোপাধ্যায়, চিত্রা সেন, রত্না ঘোষাল সহ আরো অনেক নতুন-পুরাতন মুখ। মূলত ঘটি-বাঙাল লড়াই নিয়ে নির্মিত এ ধারাবাহিকটি দর্শকদের মনে আলাদা স্থান করে নিয়েছে। সোম থেকে শনি রাত ৯টা ৩০ মিনিটে প্রচারিত হয় এই ধারাবাহিক[৫]। এ সম্পর্কে পরিচালক বলেন, "একেবারে লাইট হার্টেড প্রেমের গল্প"।[২]

কাহিনী[সম্পাদনা]

পাশাপাশি দুই বাড়িতে থাকে বসাক ও সেনগুপ্ত পরিবার। বসাকরা বাঙাল ও সেনগুপ্তরা ঘটি। এই দুই বাড়ি নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে প্রতিদিনই ঝগড়া বাঁধে। কিন্তু অজ্ঞাত কোন কারণে একে-অপরের কিংবা পাড়ার যেকোন সমস্যা সমাধানে এই দুই পরিবার ঐক্যবদ্ধ থাকে।[১][৬]

বসাক পরিবার[সম্পাদনা]

বসাক পরিবারের প্রধান ভবতোষ বসাক (পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়)। এছাড়া আছে তাঁর বিধবা বোন ভবতারিণী দেবী বা ভেবলি (চিত্রা সেন), তাঁর দুই ছেলে পরিতোষঅনিমেষ এবং তাদের স্ত্রী। তাঁর বড় নাতি অর্জুন বসাক (রোহিত সামন্ত), মেজ নাতি বিরসা বসাক (সৌরভ) এবং ছোট নাতি পার্থ বসাক (সুজয় সাহা)।

সেনগুপ্ত পরিবার[সম্পাদনা]

সেনগুপ্ত পরিবারের প্রধান হলেন হরনাথ সেনগুপ্ত (মনু মুখোপাধ্যায়)। এছাড়া রয়েছে তাঁর স্ত্রী, দুই ছেলে। বড় ছেলে বোঁচাইয়ের প্রথম স্ত্রী কোন অজ্ঞাত কারণে চলে গেছে এবং তাঁর মেয়ে কৃষ্ণা সেনগুপ্ত (বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায় পরে মধুবনী ঘোষ)। বোঁচাই আবার বিয়ে করেন এবং তাঁদের চন্দন নামের এক ছেলে রয়েছে। হরনাথের ছোট ছেলে ছোটাই (সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়) এর দুই মেয়ে। বড় মেয়ে পলা সেনগুপ্ত (সানন্দা বসাক) এবং মেয়ে মীরা। তাদের দুই বাড়িতেই কাজ করে চম্পা নামের এক কাজের মেয়ে। এছাড়া এই বাড়িতে প্রায় রোজই আসে হরনাথের নাতনি রাধিকা (নিবেদিতা বিশ্বাস)।

এছাড়াও ধারাবাহিকটিতে আরো অনেক চরিত্র রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চায়ের দোকানদার ক্যাংলা লন্ড্রিতে কাজ করে ঘেচু। এছাড়াও আরো নানান চরিত্র রয়েছে। এই চরিত্রদের নিয়ে নানা সম্পর্কের টানাপোড়েনের হাস্যরসের মাধ্যমে এই ধারাবাহিকের কাহিনী এগিয়ে গিয়েছে।[৬]

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

বয়েই গেলো ধারাবাহিকের প্রচারণামূলক পোস্টার

চরিত্র পরিবর্তন[সম্পাদনা]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

পশ্চিমবঙ্গ টেলি আকাদেমি অ্যাওয়ার্ড ২০১৪-এ বয়েই গেলো দুটো পুরস্কার লাভ করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Boyei Gelo Zee Bangla"। ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. "জম্পেশ টিভি ধারাবাহিক"। ২৮ জানুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 01 August 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. "নকল গোঁফ না তো!"। ৫ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 02 August 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  4. "চাচা কাহিনী"। সংগ্রহের তারিখ 01 August 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "বয়েই গেলো জি বাংলায়"। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  6. "Boyei Gelo Details"। ২ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  7. "Rohit Samanta, Basabdatta in Zee Bangla Boyei Gelo Serials"। ২০ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  8. "টিভির বাংলা সিরিয়ালের দারুণ ভক্ত মমতা"Manobjamin। সংগ্রহের তারিখ 05 January 2014  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)