ধ্রুব এষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ধ্রুব এষ
Dhruba Esh 2017.jpg
২০১৭ সালে ধ্রুব এষ
জন্ম (1967-01-07) ৭ জানুয়ারি ১৯৬৭ (বয়স ৫৬)
জাতীয়তাবাংলাদেশি
শিক্ষাস্নাতক (চারুকলা)
মাতৃশিক্ষায়তনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাপ্রচ্ছদ শিল্পী‚ কবি‚ সাহিত্যিক, শিল্প সম্পাদক
নিয়োগকারীসেবা প্রকাশনী
পুরস্কারবাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার

ধ্রুব এষ (জন্ম ৭ জানুয়ারি ১৯৬৭) একজন বাংলাদেশি চিত্রশিল্পী, যিনি প্রচ্ছদ শিল্পী হিসেবে বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেছেন।[১] এছাড়া তিনি কবিতা ও গল্প লিখে থাকেন। মধ্য ১৯৯০-এর পর তিনি ঔপন্যাসিক হুমায়ূন আহমেদের অধিকাংশ গ্রন্থের প্রচ্ছদ অঙ্কন করেছেন। এছাড়া তিনি সেবা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত মাসিক পত্রিকা রহস্যপত্রিকার শিল্প সম্পাদক হিসেবে কর্মরত আছেন।[২] শিশুসাহিত্যে অবদানের জন্য ২০২২ সালে তিনি বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার অর্জন করেন। [৩]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ধ্রুব এষ ১৯৬৭ সালের ৭ জানুয়ারি সুনামগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন।[৪] তার পিতার নাম ভূপতি রঞ্জন এষ ও মাতার নাম লীলা এষ। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেন।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ধ্রুব এষ ১৯৮৯ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত অবস্থায় মোস্তাক আহমেদের একটি কাব্যগ্রন্থের প্রচ্ছদ অঙ্কনের মাধ্যমে প্রচ্ছদশিল্পী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।[৬] প্রথম দিকে তিনি ইমদাদুল হক মিলনের বইয়ের প্রচ্ছদ করতেন। পরে প্রকাশকদের মাধ্যমে হুমায়ুন আহমেদের সাথে পরিচয় হয় এবং সখ্য গড়ে ওঠে। তারপর থেকে হুমায়ূনের অধিকাংশ বইয়ের প্রচ্ছদ এঁকেছেন ধ্রুব। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে দ্য ডেইলি স্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি ২৫ হাজার বইয়ের প্রচ্ছদ তৈরির কথা বলেন।[৬] তিনি বলেন,

বাংলাদেশে প্রচ্ছদশিল্পে আধুনিকতা আনার জন্য কেউ কেউ আমাকে কৃতিত্ব দেন। তবে এর মূল কৃতিত্ব হুমায়ূন আহমেদের। তিনি আমাকে প্রথম বলেছিলেন, আমার বইয়ের প্রচ্ছদে ফিগার আঁকতে হবে না। এই স্বাধীনতা আমাকে একলাফে অনেকদূর এগিয়ে দিয়েছে।[৭]

সাহিত্যকর্ম[সম্পাদনা]

  • সুপারি পাতার গাড়ি (শিশুসাহিত্য-২০০০)
  • সূর্য মামার বাচ্চাদের গল্প (শিশুসাহিত্য-২০০১)
  • ঠিক দুক্কুর বেলা (শিশুসাহিত্য-২০০৪)
  • ভূতপুর (শিশুসাহিত্য-২০০৭)
  • রাফখাতা (শিশুসাহিত্য-২০০৯)
  • আরেক নীশিতা (শিশুসাহিত্য-২০১০)
  • বাম হাতে ছয় আঙুল (উপন্যাস-২০১৩)
  • অসকাল (উপন্যাস-২০১৩)
  • সেরা সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় (সম্পাদনা-২০০৯)
  • ফালতু বচন (রম্যরচনা-২০২০)

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • গ্রন্থ অলঙ্করণে কালি প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বাংলার গল্প বাঙালির গল্প গ্রন্থের জন্য পাঞ্জেরী ছোটকাকু আনন্দ আলো শিশুসাহিত্য পুরস্কার - ২০১৯[৮]
  • সিলেট মিরর পুরস্কার ২০২২। সাহিত্যে অসামান্য অবদানের জন্য দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলের দৈনিক সিলেট মিরর তাঁকে এই পুরস্কার প্রদান করে।
  • বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ২০২২।

বইয়ের প্রচ্ছদ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ধ্রুব এষ: শিল্পী, ঋষি না বাউল?"। ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৭ 
  2. রহস্যপত্রিকা, আগস্ট ২০১২; ২৮ বর্ষ, ১০ সংখ্যা; পৃষ্ঠা ৩। সেগুনবাগিচা, ঢাকা থেকে প্রকাশিত।
  3. রিপোর্ট, স্টার অনলাইন (২০২৩-০১-২৫)। "যারা পেলেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার ২০২২"The Daily Star Bangla (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০১-২৫ 
  4. "রঙিন বইয়ের ছবি করে মজা পান ধ্রুব এষ"দ্য রিপোর্ট। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. "রঙিন বইয়ের ছবি করে মজা পান ধ্রুব এষ"। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৮ 
  6. "DHRUBA ESH"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  7. "ধ্রুব এষ: শিল্পী, ঋষি না বাউল?"। ২১ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৮ 
  8. "পুরস্কার পেলেন পাঁচ বরেণ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান"দৈনিক প্রথম আলো। ২৪ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মার্চ ২০১৯ 

২০২২<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম= জমকালো আয়োজনে সিলেট মিরর পুরস্কার প্রদান সম্পন্ন| ইউআরএলঃhttps://dailysylhetmirror.com/news/57800