দ্য লাইট: স্বামী বিবেকানন্দ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দ্য লাইট: স্বামী বিবেকানন্দ
পরিচালকউৎপল (টুটু) সিনহা
চিত্রনাট্যকারজে মিশ্র
অশোক রঞ্জন চক্রবর্তী
উৎসস্বামী বিবেকানন্দ এর জীবনের উপর
শ্রেষ্ঠাংশেদীপ ভট্টাচার্য
গার্গী রায় চৌধুরী
প্রেমাঙ্কুর চট্টোপাধ্যায়
কোর্টনি স্টিফেন্স
বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী
পিয়ালি মিত্র
সায়ক চক্রবর্তী
অর্চিতা সাহু
সুরকারনচিকেতা এবং ডঃ হরিচরণ ভার্মা
চিত্রগ্রাহকউৎপল (টুটু) সিনহা
সম্পাদকসঞ্জীব দত্ত
প্রযোজনা
কোম্পানি
ট্রাই কালার প্রোডাকশন প্রাইভেট লিমিটেড[১]
মুক্তি
  • ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ (2013-02-01) (কলকাতা)
দৈর্ঘ্য১১৭ মিনিট
দেশভারত
ভাষাবাংলা,হিন্দি

দ্য লাইট: স্বামী বিবেকানন্দ (২০১৩) এটি উৎপল (টুটু) সিনহা পরিচালিত একটি দ্বিভাষিক (বাংলা এবং হিন্দি )[২] সিনেমা।এটি ট্রাই কালার প্রযোজনা প্রাইভেট লিমিটেড প্রযোজিত। [৩] এটি স্বামী বিবেকানন্দের জীবন ও শিক্ষার উপর ভিত্তি করে নির্মিত। ছবিটি তাঁর জন্মের দেড়শতম বার্ষিকীতে বিবেকানন্দের শ্রদ্ধা নিবেদন করে তৈরি করা হয়েছিল। [৪] [৫] [৬] এটি ১৮ টি ভাষায় ডাব করা হয়েছিল। [৭]

দীপ ভট্টাচার্য স্বামী বিবেকানন্দের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। যাকে পরিচালক টুটু সিনহা প্রথম একটি বাংলা নাটকে দেখেছিলেন। রামকৃষ্ণ পরমহংস এবং সারদা দেবীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন প্রেমাঙ্কুর চট্টোপাধ্যায় এবং গার্গী রায় চৌধুরী। [৮]

সংক্ষিপ্তসার[সম্পাদনা]

স্বামী বিবেকানন্দের ঘটনাবহুল জীবন এই ছবিতে ধরা পড়েছে। ছবিতে তরুণ নরেন্দ্রনাথ দত্ত থেকে বিশ্ব প্রচারক স্বামী বিবেকানন্দের রূপান্তর দেখানো হয়েছে। দক্ষিণেশ্বরের মরমী সাধক রামকৃষ্ণ পরমহংসের সাথে তাঁর সাক্ষাত, বিবেকানন্দের উত্তর ভারতে ভ্রমণ, পশ্চিম (আমেরিকা, ইউরোপ) ভ্রমণ, ভগিনী নিবেদিতার সাথে সাক্ষাত এবং ভারতে তাঁর কাজগুলি তুলে ধরা হয়েছে।এতে শৈশবকাল থেকে তাঁর জীবনের বিভিন্ন ঘটনা এর মাধ্যমে নরেন্দ্রনাথ থেকে বিবেকানন্দ পর্যন্ত তাঁর যাত্রা উঠে এসেছে। [৯]

শ্রেষ্ঠাংশে[সম্পাদনা]

উৎপাদন[সম্পাদনা]

পটভূমি[সম্পাদনা]

এই চলচ্চিত্রটি পরিচালক টুটু সিনহার বড় পর্দায় প্রথম কাজ। এর আগে তিনি মূলত বিজ্ঞাপন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও টেলিভিশন পরিচালক হিসাবে কাজ করেছিলেন। একটি সাক্ষাত্কারে সিনহা বলেছিলেন- "আমি তৃষ্ণা ও রাজমহলের মতো সিরিয়াল পরিচালনা করেছি। আমি সাধক বামখ্যাপা সিরিয়ালটি এর এক হাজারতম পর্ব পর্যন্ত পরিচালনাও করেছি। আমি সবসময় স্বামীজির উপর একটি চলচ্চিত্র বানাতে চেয়েছিলাম। " [১০]

নির্মাণ[সম্পাদনা]

ফিল্মটি বিভিন্ন স্থানে শুটিং করা হয়েছে। যেমনঃ পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা এবং উড়িষ্যার রায়রঙ্গপুর, শিমিলিপাল ইত্যাদি । এই চলচ্চিত্রের গবেষণামূলক কাজের জন্য পরিচালক টুটু সিনহাকে পুরো ভারতে ভ্রমণ করতে হয়েছিল। রাজস্থানে বিবেকানন্দের জীবনের ঘটনাগুলি ওড়িশায় শুট করা হয়েছিল। [১১] ১৮৯৩ সালের সেপ্টেম্বরে শিকাগোর ওয়ার্ল্ড রিলিজিনস পার্লামেন্টে বিবেকানন্দের বক্তৃতাগুলির দৃশ্যগুলি কলকাতার টাউন হলে শুটিং করা হয়েছিল। [১২]

অভিনেতা বাছাই[সম্পাদনা]

অভিনেত্রীর উক্তি
সারদা মা ছিলেন তাঁর সময়ের অন্যতম মুক্তমনা মহিলা। টুটুর সিনেমাটোগ্রাফি অসাধারণ এবং আমার মনে হয় ছবিটি কেবল বাংলা থেকে নয়, এর বাইরেও দর্শকদের আকর্ষণ করবে।

তার চরিত্র সম্পর্কে গার্গী রায় চৌধুরী[১৩]

এই ছবিতে মূলত থিয়েটার অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নেওয়া হয়েছিল।[১৪]

  • দীপ ভট্টাচার্য স্বামী বিবেকানন্দের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। পরিচালক তাকে সামবেদ নামে একটি বাঙালি নাট্যদলের একটি নাটকে দেখেছিলেন।
  • গার্গী রায় চৌধুরী তরুণ বয়সের সারদা দেবীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। যৌবনে সারদা দেবীর কোনও চিত্র পাওয়া যায় না। প্রযোজনা দলটি কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যাক-রচনা করতে ব্যবহার করেছিল এবং সারদা দেবী তার যৌবনের সময় কীরকম দেখতে হবে তা খুঁজে বের করার জন্য। গবেষণার পরে তারা খুঁজে পেল বাংলা চলচ্চিত্র এবং টেলিভিশন অভিনেত্রী গার্গি রায় চৌধুরী চরিত্রটির জন্য উপযুক্ত। [১৫] তিনি সারদা দেবী চরিত্রে অভিনয় করার বিষয়ে বলেছিলেন - "আমি সর্বকালের সর্বাধিক মুক্তমনা মহিলাদের একজনের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে আমি আনন্দিত" ।[১৬] [১৭]
  • প্রেমাঙ্কুর চট্টোপাধ্যায়, যিনি একজন নাট্য অভিনেতাও ছিলেন, রামকৃষ্ণ পরমহংসের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে এই ছবিতে তাকে চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ দেওয়ার জন্য তিনি চিরকাল পরিচালকের কাছে ঋণী থাকবেন। তিনি আরও বলেছিলেন- "আমি ব্যাখ্যা করতে পারব না আমার কেমন অনুভূতি হয়েছিল যখন আমি এই কথাটি বলেছিলাম 'সত্য এক, কেবল একে বিভিন্ন নামে ডাকা হয়। সমস্ত মানুষ একই সত্যের সন্ধান করছে। ' আমি কৃতজ্ঞ পরিচালক টুটু সিনহা আমাকে রামকৃষ্ণ হিসেবে ভাবতে পেরেছিলেন " [১৮]
  • সায়ক চক্রবর্তী বিবেকানন্দের শৈশব চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। এটি ছিল সায়কের প্রথম চলচ্চিত্র।
  • ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক অভিনেত্রী কোর্টনি স্টিফেনস ভগিনী নিবেদিতার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন।
  • অর্চিতা সাহু অজিত সিংয়ের দরবারে নৃত্যশিল্পী মইনা বাইয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। পরিচালকের মতে মইনা বাইয়ের ভূমিকায় সাহু " ঠিক" ছিলেন।

সাউন্ডট্র্যাক[সম্পাদনা]

ছবিটির সংগীত ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে কলকাতার রোটারি সদনে রিলিজ করা হয়েছিল। [১৯] [২০] ছবিটির সংগীত অ্যালবামে ১৪ টি গান ছিল। চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিচালনা করেছিলেন নচিকেতা চক্রবর্তী এবং ডাঃ হরিচরণ ভার্মা ।এতে গান গেয়েছিল অজয় চক্রবর্তী, সুরেশ ওয়াদকর, কবিতা কৃষ্ণমূর্তি, নচিকেতা চক্রবর্তী, শুভঙ্কর ভাস্কর এবং জাভেদ আলী[২১]

মুক্তি[সম্পাদনা]

ছবিটির পরিচালক এবং প্রযোজক দুজনেই ২০১২ সালে ছবিটি মুক্তি দিতে চেয়েছিলেন। তবে পোস্ট প্রোডাকশনের জন্য তারা এটি ২০১২ সালে মুক্তি দিতে পারেন নি। এরপরে তারা স্বামী বিবেকানন্দের দেড়শতম জন্মবার্ষিকীর আগের দিন ২০১৩ সালের ১১ জানুয়ারীতে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার টার্গেট করেছিলেন। তবে তারা সেদিন ও ছবিটি মুক্তি দিতে পারেননি। অবশেষে ছবিটি ২০১৩ সালের ২৩ আগস্ট ২০১৩তে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। [২২] কলকাতার নন্দনে এই চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ারের আয়োজন করা হয়েছিল। [২৩] অনেক রাজ্য সরকার যেমন মহারাষ্ট্র, গুজরাট এবং পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্যে এই সিনেমাটিকে করমুক্ত হিসাবে ঘোষণা করেছিল।

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র সমালোচকদের মিশ্র পর্যালোচনা অর্জন করেছিল। টাইমস অফ ইন্ডিয়া ফিল্মটিকে ৫ এর মধ্যে সাড়ে তিন রেট দিয়েছিল এবং ছবিটি সম্পর্কে বলেছিল "আবার দেখা যাচ্ছে যে কিছু ছবি এখনও টলিউডে তৈরি হয়। যা কোনও হাইপ পায় না। তবুও তাদের শিল্পকর্ম ভাল হয় " এই পর্যালোচনায় দীপ ভট্টাচার্যের অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়েছিল। [২৪] ইন্টারনেটে ওয়াশিংটন বাংলা রেডিও তাদের পর্যালোচনাতে লিখেছিল: "প্রেমাঙ্কুর এবং দীপ ছবিতে প্রমাণ করেছেন যে নাট্য অভিজ্ঞতা অভিনেতাদের জন্য একটি দুর্দান্ত সম্পদ হতে পারে"। [২৫]


আরো দেখুন[সম্পাদনা]

  • স্বামী বিবেকানন্দ (১৯৯৮ চলচ্চিত্র)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

 

  1. "Vide"www.tricolourproductions.net। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫ 
  2. "Cast and crew"। Tricolour movies। Archived from the original on ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  3. "Cast and Crew"। Gomolo। ১৭ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  4. "Embrace a good way of living"Bengal Post। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ 
  5. "I am inspired by Rekhaji: Archita Sahu"The Times of India। ৯ জুন ২০১২। ৮ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  6. "The Light – Swami Vivekananda"। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  7. "Archita in The Light-Swami Vivekananda Hindi and Bengali Movie"। Full Orissa Movies। ২৩ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  8. "I am inspired by Rekhaji: Archita Sahu"The Times of India। ৯ জুন ২০১২। ৮ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  9. "New film on Swami Vivekananda's life in making"The Hindu Business Line। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  10. "Embrace a good way of living"Bengal Post। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ 
  11. "I am inspired by Rekhaji: Archita Sahu - Times Of India"web.archive.org। ২০১৩-০৮-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫ 
  12. "Town Hall-e Chicago"Aajkal। ১৬ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩  (বাংলা ভাষায়)
  13. "Gargi to play Ma Sarada - Times Of India"archive.ph। ২০১৩-০২-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫ 
  14. "Gargi to play Ma Sarada - Times Of India"archive.ph। ২০১৩-০২-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫ 
  15. "I am inspired by Rekhaji: Archita Sahu"The Times of India। ৯ জুন ২০১২। ৮ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  16. PTI। "New film on Swami Vivekananda's life in making"@businessline (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-০৫ 
  17. "Gargi to play Ma Sarada"The Times of India। ৭ জুন ২০১২। ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  18. "Vivekananda film premiered"Manorama Online। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  19. "Music Release of the New Devotional Film "The Light""। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  20. "Music launch of Bengali movie 'The Light: Swami Vivekananda'"। Gomolo। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  21. "The Light Swami Vivekananda soundtracks"। ২৫ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  22. "The Light Swami Vivekananda"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৩  (বাংলা ভাষায়)
  23. "Swami Vivekananda Biopic The Light (2013) Opens in Kolkata"। Washington Bangla Radio। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  24. "The Light: Swami Vivekananda review"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ 
  25. "WBRi review"। WBRi। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]