দেবযানী রাজকুমারন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দেবযানী রাজকুমারন
Renowned Tamil Film Director, Shri Bharathiraja lighting the lamp to inaugurate the 13th Mumbai International Film Festival, in Chennai. Actress, Smt. Devayani Rajakumaran, the Vice Consul of Consulate General of Russia.jpg
জন্ম
সুষমা জয়দেব

(1974-06-22) ২২ জুন ১৯৭৪ (বয়স ৪৬)[১]
পেশাঅভিনেত্রী, শিক্ষিকা
কার্যকাল১৯৯৩–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীরাজকুমারন
(২০০১–বর্তমান)

সুষমা জয়দেব (পেশাগতভাবে দেবযানী নামে পরিচিত) হলেন একজন ভারতীয় অভিনেত্রী, যিনি বেশ কয়েকটি কন্নড়, হিন্দি, বাংলা, তামিল, মালয়ালম, তেলুগু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সূর্য বংশম এবং ২০০০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ভারতী চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তামিলনাড়ু রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং ১৯৯৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কধল কোট্টাই (১৯৯৬) -এ অভিনয়ের জন্য একটি বিশেষ পুরস্কার অর্জন করেছেন।[২][৩] তিনি ১৯৯৬ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত তামিল চলচ্চিত্র জগতের একজন শীর্ষস্থানীয় অভিনেত্রী ছিলেন। তিনি বেশ কয়েকটি ব্যবসায়িকভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন; যার মধ্যে নিনাইথেন ভান্ধাই (১৯৯৮), নী ভারুভাই এনা (১৯৯৯), থেনালী (২০০০), ফেন্ডস (২০০১), অনান্ধম (২০০১) এবং আজাগি (২০০২) অন্যতম। এর পাশাপাশি সান টিভিতে বেশ সফল ধারাবাহিক কোলাঙ্গল -এ অভিনয়ের জন্য তিনি সেরা টেলিভিশন অভিনেত্রী বিভাগে পুরস্কার লাভ করেছেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

দেবযানী ১৯৭৪ সালের ২২শে জুন তারিখে ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বইয়ে সুষমা জয়দেব নামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর বাবা জয়দেব কর্ণাটকের ম্যাঙ্গালোরের এবং মা লক্ষ্মী আম্মাল তামিলনাড়ুর নাগেরকাইলের বাসিন্দা। নকুল ও ময়ুর নামে তাঁর দুই ছোট ভাই রয়েছে। নকুল তামিল চলচ্চিত্র জগতে একজন অভিনেতা ও গায়ক হিসাবে কাজ করছেন,[৪] অন্যদিকে ময়ুর একটি আসন্ন চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিষেক করবেন।[৫]

তিনি পরিচালক রাজকুমারনের সাথে একটি সম্পর্কে আবদ্ধ ছিলেন, যাঁর সাথে তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। তাঁদের পিতা-মাতা উভয়ই তাঁদের সম্পর্কের অনুমোদন দেননি, যার ফলে এই দম্পতি তাঁদের ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন।[৬] অতঃপর ২০০১ সালের ১৯শে এপ্রিল তারিখে তাঁরা একান্তে বিয়ে করেছিলেন।[৭][৮] তাঁদের ইনাইয়া ও প্রিয়াঙ্কা নামে দুটি কন্যা রয়েছে।[৯] বর্তমানে তিনি চেন্নাইয়ের আন্না সালাইয়ের চার্চ পার্ক স্কুলে শিশুদের পড়াচ্ছেন।[১০][১১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

কোয়েল নামক একটি হিন্দি চলচ্চিত্রে কোয়েল চরিত্রে অভিনয় করার মাধ্যমে দেবযানী তাঁর চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেছিলেন; পরে এটি প্রযোজনার সময় বাতিল করা হয়েছিল।[১২] তিনি শত পঞ্চমী নামে একটি বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি তামিল চলচ্চিত্রে খ্যাতি অর্জনের পূর্বে একটি মারাঠি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছিলেন। তাঁর কর্মজীবনের প্রথম দিকের চলচ্চিত্রগুলো ৯০-এর দশকের শুরুতে এবং মধ্যে মুক্তি পেয়েছে।

১৯৯৬ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত দেবযানী ৩৫টিরও বেশি চলচ্চিত্রে নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন এবং কামাল হাসান, প্রশান্ত, অজিত, বিজয়, শরৎ কুমার, পার্থিবান এবং বিক্রমের মতো শীর্ষস্থানীয় অভিনেতাদের সাথে অভিনয় করেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]