দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আল-জামিয়া আল-ইসলামিয়া দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দ
الجامعۃ الاسلامیۃ دارالعلوم وقف دیوبند
দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দের লোগো.jpg
অন্যান্য নামসমূহ
दारुल उलूम वक्फ, देवबंद
ধরনইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৯৮২ (৩৮ বছর আগে) (1982)
প্রতিষ্ঠাতাহাকীমুল ইসলাম কারী মুহাম্মদ তৈয়ব কাসমি রহ.
রেক্টরমুহাম্মদ সুফিয়ান কাসমি
ঠিকানা
দেওবন্দ
, , ,
ওয়েবসাইটwww.dud.edu.in

আল-জামিয়া আল-ইসলামিয়া দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দ বা দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দ (হিন্দি: दारुल उलूम वक्फ, देवबंद, আরবিউর্দু: الجامعۃ الاسلامیۃ دارالعلوم وقف دیوبند‎‎) ভারতের একটি মাদরাসা। ( ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান)। কারি মুহাম্মদ তৈয়্যব কাসেমির সাথে ১৯৮০ সালে দারুল উলুম দেওবন্দের প্রাশাসনিক বিরোধের ফলে ১৯৮২ সালে আল্লামা আনোয়ার শাহ কাশ্মীরির পুত্র মাওলানা আনসার শাহ কাশ্মীরীর সহযোগিতায় তাঁরই পৃষ্ঠপোষকতায় (কারি মুহাম্মদ তৈয়্যব কাসেমি) তাঁর সুযোগ্য সন্তান সালেম কাসেমি প্রতিষ্ঠা করেন। [১][২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৬৬ সালের ৩১ মে প্রতিষ্ঠিত হয় বিশ্বখ্যাত মাদরাসা দারুল উলুম দেওবন্দ। যার প্রতিষ্ঠার মূল নায়ক ছিলেন মরহুম মুহাম্মদ কাসেম নানুতাবি। তাঁর পরবর্তীতে তাঁরই দৌহিত্র কারি মরহুম মুহাম্মদ তৈয়্যব কাসেমি। ১৯২৮ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটির মুহতামিম (উপাচার্য) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তৈয়্যব কাসেমি। কিন্তু গোলযোগ দেখা দেয় দারুল উলুম দেওবন্দের শতবর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত মহাসম্মেলনের পর। দারুল উলুম দেওবন্দকে কখনও তিনি রাজনীতির ব্যানারে নেয়াটাকে পছন্দ করতেন না। তাঁর পরিচালিত মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডটিও কোনো রাজনৈতিক সংগঠন ছিলো না, বরং ভারতীয় মুসলমানদের অধিকার আদায়ের একটা অন্যতম প্লাটফর্ম হিসেবে কাজ করতো। এসবের সঙ্গে রাজনৈতিক কিছু ইস্যু যোগ হয়। ফলে প্রতিষ্ঠানটির দেড় শতাধিক দায়িত্বশীল তাঁর সঙ্গে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেন। পড়াশুনো বন্ধ থাকে প্রায় ছয় মাস। ১৯৮২ সালে তাঁরই পৃষ্ঠপোষকতায় তাঁর ছেলে সালেম কাসেমি প্রতিষ্ঠা করেন দারুল উলুম ওয়াকফ দেওবন্দ। এরপর দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যকার মতনৈক্য বিভিন্ন আকার ধারণ করে। কিন্তু কারী মুহাম্মদ তৈয়ব স্পষ্ট করে বলে দিলেন, ‘ইখতিলাফ বাত সে হোতা হ্যায় আওর খেলাফ জাত সে হোতা হ্যায়।’ তাই ভুল বোঝাবুঝির কিচ্ছু নেই। উলামায়ে দেওবন্দ সবসময়ই ঐক্যবদ্ধভাবে থাকবে। আর সেই বাস্তব রূপ এলো ২০০৪ সালে। দু’পক্ষের দুজন তথা মূল দেওবন্দ হতে মরহুম সাইয়্যিদ আসআদ মাদানি ও ওয়াকফ হতে মরহুম সালেম কাসেমি এগিয়ে এলেন। আজ অবধি তা পূর্ণ বহাল রয়েছে। পরিচালক (উপাচার্য) মরহুম কারি মুহাম্মদ তৈয়্যব কাসেমির দৌহিত্র সুফিয়ান কাসেমি। [৩][৪]

হুজাতুল ইসলাম একাডেমী[সম্পাদনা]

দারুল উলুম ওয়াকফের গবেষণা বিভাগ 'হুজযাতুল ইসলাম একাডেমী'। এই একাডেমী দেওবন্দের পণ্ডিতদের বিশেষত মুহাম্মদ কাসেম নানুতুবির আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করে। আরবি ও ইংরেজি ভাষায় ও স্থানীয় ভাষায় লেখনী প্রকাশনা, বক্তৃতা সহ নানা কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় এই একাডেমীর ব্যানারে। [৫][৬]

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

  • নিদায়ে দারুল উলুম ওয়াকফ (মাসিক উর্দু পত্রিকা)। [৭]
  • ওয়াহ্দাত আল-উম্মাহ (দ্বি-বার্ষিক আরবী পত্রিকা)।[৭]
  • ভয়েস অফ দারুল উলূম (ত্রৈমাসিক ইংরেজি পত্রিকা)। [৭]

শিক্ষার ধরণ[সম্পাদনা]

  • আলিম: ইসলামীক ধর্মীয় জ্ঞান বিভাগের ৮ বছরের স্নাতকোত্তর কোর্স [৮]
  • মুফতি: ইসলামিক জুরিসপুডেন্সে এক বছরের স্নাতকোত্তর প্রোগ্রাম। [৯]
  • তাফসির : তাফসিরে কোরআনের উপর এক বছর স্নাতক প্রোগ্রাম। [১০]
  • আরবি সাহিত্য ও ভাষা শিক্ষা: আরবি সাহিত্যে ১ বছরের স্নাতকোত্তর প্রোগ্রাম। [১০]
  • গবেষণা: এই কোর্সটি হুজাতুল ইসলাম একাডেমী পরিচালনা করে। [১০]
  • উর্দু হাফস: দুই বছরের তাজউইদ কোর্স (পূর্বশর্ত: কুরআনের হাফেজ ও উর্দু ভাষাতে দক্ষতা)।
  • আরবিক হাফস: এক বছরের তাজউইদ কোর্স (পূর্ব শর্ত: কুরআনের হাফেজ, 65% মার্ক সহ আলিম কোর্স)।
  • কীরাত সাবা আরবী: এক বছরের কীরাত কোর্স (পূর্বের শর্তঃ কুরআনের হাফেজ ও আরবিক হাফস)।
  • কিরাত সাবা উর্দু

উল্লেখযোগ্য প্রাক্তন শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

  • মুফতি আলতাফ হোসেন কাশমি, আনন্তনাগ, জম্মু ও কাশ্মিরের বিচারপতি ও স্পিকার।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Muhammadullah Khalili Qasmi। "Mawlana Anzar Shah Kashmiri: A Tribute to His Life and Services"IlmGate.org। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০১৯ 
  2. "Renaissance of Darul Uloom Deoband"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  3. "Deoband rector Maulana Salim Qasmi no more"RisingKashmir.com। সংগ্রহের তারিখ ২ জুন ২০১৯ 
  4. "The Founder of Darul Uloom"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২০ 
  5. "Hujjatul Islam Academy"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  6. "Hujjatul Islam Academy"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২০ 
  7. "Publications"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২০ 
  8. "8 Year Degree Course at Darul Uloom Waqf"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  9. "Postgraduate programs at Darul Uloom Waqf"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৯ 
  10. "Postgraduate Diploma Courses"dud.edu.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]