তপন চক্রবর্তী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
তপন চক্রবর্তী
পেশাসাহিত্যের
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
সময়কালবিংশ শতাব্দী
ধরনবিজ্ঞান, প্রযুক্তিপরিবেশ
বিষয়লিখালিখি
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারবাংলা একাডেমী পুরস্কার (২০১২)

তপন চক্রবর্তী (জন্ম: 20 /01/1942 খ্রিস্টাব্দে ) আধুনিক বাংলা সাহিত্যের একজন প্রখ্যাত সাহিত্যিক। তিনি প্রধানত: বিজ্ঞান, প্রযুক্তিপরিবেশ বিষয়ে লিখালিখি করে থাকেন।

জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতি[সম্পাদনা]

তপন চক্রবর্তী জন্ম : ২০ জানুয়ারি, ১৯৪২ পিতা : জ্যোতিরিন্দ্রনাথ চক্রবর্তী, মাতা : চপলাবালা চক্রবর্তী । গ্রাম : সুখছড়ি, উপজেলা : লােহাগড়া, জেলা : চট্টগ্রাম ।[সম্পাদনা]

আনুষ্ঠানিক শিক্ষা : সুখছড়ি জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয় (অষ্টম শ্রেণি); প্রবর্তক বিদ্যাপীঠ (মাধ্যমিক); চট্টগ্রাম সরকারি কলেজ (উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক বিজ্ঞান); এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। (স্নাতকোত্তর প্রাণিবিদ্যা)।[সম্পাদনা]

চাকুরি : টেকনাফ হাইস্কুল; প্রবর্তক বিদ্যাপীঠ; শের-এ-বাংলা এ. কে. ফজলুল হক কলেজ; রাঙামাটি কলেজ; চট্টগ্রাম সিটি কলেজ; ত্রিবেণীদেবী ভলােটিয়া কলেজ, রানীগঞ্জ, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত; বাংলা একাডেমির স্বেচ্ছাবসর গ্রহণকারী উপপরিচালক; এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক শিক্ষা উন্নয়ন প্রােজেক্টে ইনস্ট্রাকশন্যাল ম্যাটেরিয়ালস ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক স্থানীয় শিক্ষা উপদেষ্টা। অনানুষ্ঠানিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড। ১.বাংলাদেশ ও ভারতে বিজ্ঞান বিষয়ক অসংখ্য সেমিনার ও কর্মশালায় অংশগ্রহণ ও কর্মশালা পরিচালনা ।। ২.বাংলাদেশ রেডিওতে বহুবছর ধরে বিজ্ঞানের ফিচার লেখা ও নানান বিজ্ঞান বিষয়ক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ ও অনুষ্ঠান পরিচালনা । ৩.বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিজ্ঞান বিষয়ক অনুষ্ঠান পরিচালনা ও অংশগ্রহণ। বাংলাদেশের বাংলা ভিশন ও মাছরাঙা ইত্যাদি চ্যানেলে বিজ্ঞান বিষয়ক আলােচনায় অংশগ্রহণ । ৪.সভা-সমিতিতে, সভাপতি, প্রবন্ধ উপস্পক, আলােচক, প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি হিশেবে দায়িত্বপালন । ৫. বাংলাদেশ ও ভারতের প্রতিনিধিত্বশীল সংবাদপত্রে ও সাময়িকীতে বিজ্ঞানবিষয়ক নিবন্ধ রচনা ।।[সম্পাদনা]

শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

গ্রন্থ[সম্পাদনা]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তিনি ১৪১৮ বঙ্গাব্দে স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান-প্রযুক্তি শাখায় আমাদের বনের প্রাণী বইটির জন্য অগ্রণী ব্যাংক শিশু একাডেমী শিশুসাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন।[১] এছাড়াও তিনি ২০১২ সালে বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন।[২][৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "অগ্রণী ব্যাংক-শিশু একডেমী শিশুসাহিত্য পুরস্কার | Bangladesh Shishu Academy" (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১৮ 
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৪ মার্চ ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২০১৩-০৭-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০২-১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]