ডেভিড হিউজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডেভিড হিউজ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামডেভিড পল হিউজ
জন্ম (1947-05-13) ১৩ মে ১৯৪৭ (বয়স ৭২)
নিউটন-লে-উইলোজ, ল্যাঙ্কাশায়ার, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬৭–১৯৯১ল্যাঙ্কাশায়ার
১৯৭৫/৭৬–১৯৭৬/৭৭তাসমানিয়া
১৯৭১–১৯৭২মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৪৪৭ ৪৫৮
রানের সংখ্যা ১০,৪১৯ ৪,৯৯৩
ব্যাটিং গড় ২১.৭৯ ২০.৬৩
১০০/৫০ ৮/৪৫ ০/১১
সর্বোচ্চ রান ১৫৩ ৯২*
বল করেছে ৪৩,৪৫৮ ৮,৪৮২
উইকেট ৬৫৫ ২৪৮
বোলিং গড় ৩০.৩১ ২৩.৫৫
ইনিংসে ৫ উইকেট ২০
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৭/২৪ ৬/২৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩২৫/– ১৪৬/–
উৎস: ক্রিকইনফো.কম, ১৩ নভেম্বর ২০১৮

ডেভিড পল হিউজ (ইংরেজি: David Hughes; জন্ম: ১৩ মে, ১৯৪৭) ল্যাঙ্কাশায়ারের নিউটন লে উইলোজ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ও সাবেক ইংরেজ প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট তারকা। ১৯৬৭ থেকে ১৯৯১ সময়কালে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর কাউন্টি ক্রিকেটে ল্যাঙ্কাশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিং করতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিংয়ে পারদর্শিতা দেখিয়েছেন ডেভিড হিউজ

কাউন্টি ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ল্যাঙ্কাশায়ারের নিউটন লে উইলোজ এলাকায় ডেভিড হিউজের জন্ম। ১৯৬৭ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৯৭০ সালে ক্যাপ লাভ করেন।

দুই দশকেরও অধিক সময়কাল ল্যাঙ্কাশায়ারের পক্ষে সাহসী ভূমিকা নিয়ে অগ্রসর হয়েছেন। এ সময়ে ১০৪১৯ রান তুলেছেন ও ৬৫৫ উইকেট দখল করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বামহাতি স্পিনার হিসেবে খেলতেন।

২৮ জুলাই, ১৯৭১ তারিখে জিলেট কাপের সেমিফাইনালে গ্লুচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে নয় নম্বরে ব্যাট হাতে মাঠে নামেন। দলটির জয়ের জন্যে তখনো ৫ ওভারে ২৫ রানের দরকার ছিল। মন্দ আলোকের কারণে আম্পায়ারদ্বয় খেলা শেষ করেন ও পরের দিন সকালে নিয়ে যান। এ অবস্থায় তিনি আম্পায়ার আর্থার জেপসনকে জিজ্ঞেস করলেন, আপনি তো চাঁদ দেখতে পাচ্ছন। এটি আসলে কতদূরে?[১] হিউজ এক ওভারেই ২৪ রান তুলেন ও ল্যাঙ্কাশায়ারকে জয় এনে দেন।

১৯৮০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে ল্যাঙ্কাশায়ারের সদস্যরূপে তিনবার বিদেশ গমন করেন। তবে, স্বদেশে অবস্থানকালীন অংশগ্রহণকৃত ৪৪৭টি প্রথম-শ্রেণীর খেলাগুলোর বাইরে মাত্র দশটি খেলায় অনুপস্থিতি ছিল তার। ১৯৭১-৭২ মৌসুমে ডি. এইচ. রবিন্স একাদশের সদস্যরূপে দক্ষিণ আফ্রিকা গমন করেন। ১৯৭৫-৭৬ ও ১৯৭৬-৭৭ মৌসুমে তাসমানিয়ার পক্ষে খেলেন।

অধিনায়কত্ব লাভ[সম্পাদনা]

১৯৮৭ সালে ল্যাঙ্কাশায়ারের অধিনায়কত্ব লাভ করেন। ১৯৯১ সালে অবসরগ্রহণের পূর্ব-পর্যন্ত এ দায়িত্বে ছিলেন ডেভিড হিউজ। তন্মধ্যে অধিনায়কত্ব লাভের শুরুর দিকের বছরে ল্যাঙ্কাশায়ার দল কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে দ্বিতীয় স্থানে ছিল।

ঘরোয়া ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে অসাধারণ ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৮৮ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননায় ভূষিত হন ডেভিড হিউজ। ১৯৮১ ও ১৯৯২ সালে দুইবার আর্থিক সুবিধা গ্রহণের খেলার জন্য মনোনীত হন। এতে তিনি সর্বমোট £১৪৫০০০ পাউন্ড-স্টার্লিং লাভ করেছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. The Times, obituary of David Mortimore, 19 February 2014

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]