ডব্লিউ. এইচ. অড্যান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
ডব্লিউ. এইচ. অড্যান
AudenLibraryOfCongress.jpg
জন্ম (১৯০৭-০২-২১)২১ ফেব্রুয়ারি ১৯০৭
ইয়র্ক, ইংল্যান্ড
মৃত্যু ২৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩(১৯৭৩-০৯-২৯) (৬৬ বছর)
ভিয়েনা, অস্ট্রিয়া
জাতীয়তা জন্মসূত্রে ব্রিটিশ; ১৯৪৬ সাল থেকে আমেরিকান
জাতিসত্তা ইংরেজ
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ক্রাইস্ট চার্চ, অক্সফোর্ড
পেশা কবি
আত্মীয় জর্জ অগাস্টাস অড্যান (পিতা), কনস্ট্যান্স রোজালি বিকনেল অডেন (মা), জর্জ বার্নার্ড অড্যান (ভাই), জন বিকনেল অড্যান (ভাই)

ওয়েস্ট্যান হিউজ অড্যান (ইংরেজি: Wystan Hugh Auden, টেমপ্লেট:PronEng)[১] (২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯০৭ – ২৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৩) ছিলেন একজন অ্যাংলো-আমেরিকান কবি।[২][৩] তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থে ডব্লিউ. এইচ. অড্যান নামটিই বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। তাঁর জন্ম ইংল্যান্ডে হলেও পরবর্তীকালে তিনি মার্কিন নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছিলেন। অড্যানকে বিংশ শতাব্দীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়।[৪] লেখার চারুত্ব ও কৌশলগত দক্ষতা, রাজনৈতিক ও নৈতিকতা-সংক্রান্ত বিষয়গুলির উপস্থিতি এবং গঠন ও উপাদানের বৈচিত্র্যের জন্য তাঁর রচনা প্রসিদ্ধ।[৫][৬] তাঁর কবিতার কেন্দ্রীয় বিষয়বস্তুগুলি হল প্রেম, রাজনীতি ও নাগরিকত্ব, ধর্ম ও নীতিবোধ, অদ্বিতীয় মানবসত্ত্বা ও নামহীন, ব্যক্তিত্বহীন প্রকৃতির পারস্পরিক সম্পর্ক।

বার্মিংহামের একটি পেশাদার মধ্যবিত্ত পরিবারে অড্যান বেড়ে উঠেছিলেন। অক্সফোর্ডের ক্রাইস্ট চার্চ কলেজে তিনি ইংরেজি সাহিত্য অধ্যয়ন করেছিলেন। ১৯২০-এর দশকের শেষদিকে এবং ১৯৩০-এর দশকের প্রথম দিকে তিনি তাঁর প্রথম যুগের কবিতাগুলি লিখেছিলেন। এই কবিতাগুলি আধুনিক সংক্ষিপ্ত শৈলী এবং প্রাচীন প্রবহমান শৈলীর মিশ্রণে রচিত হয়েছিল। কাব্যভাষা ছিল অত্যন্ত শক্তিশালী এবং নাটকীয়তা-পূর্ণ। এই কবিতাগুলি বামপন্থী রাজনৈতিক কবি ও ভাবদ্রষ্টা-রূপে তাঁকে সুপরিচিত করে তুলেছিল। ১৯৩০-এর দশকের শেষদিকে এই কারণে যুক্তরাজ্যে বাস তাঁর পক্ষে কষ্টকর হয়ে ওঠে। ১৯৩৯ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান এবং ১৯৪৬ সালে সেদেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন। ১৯৪০-এর দশকে লেখা তাঁর কবিতাগুলির কেন্দ্রীয় বিষয় ছিল মূলত ধর্মীয় ও নৈতিকতা-সংক্রান্ত। আগের রচনাগুলির তুলনায় এই কবিতাগুলিতে নাটকীয় উপাদান ছিল কম। তবে অড্যানের নিজস্ব ধারায় পুরনো ও নতুন শৈলীর মিশ্রণের প্রক্রিয়া এখানেও অব্যাহত থাকে। ১৯৫০-এর এবং ১৯৬০-এর দশকে তিনি অধিক মনোযোগ দেন শব্দের মাধ্যমে আবেগ প্রকাশ ও গোপন করার শৈলীটির দিকে। এই সময় অপেরা লিবারেটো-জাতীয় রচনার প্রতি তাঁর আগ্রহ বৃদ্ধি পায়। কারণ শক্তিশালী অনুভূতিগুলির প্রকাশের ক্ষেত্রে এই মাধ্যমটি ছিল বেশ উপযুক্ত।[৭]

গদ্য প্রবন্ধ এবং সাহিত্য, রাজনীতি, মনস্তত্ত্ব ও ধর্মীয় বিষয়ে সমালোচনামূলক লেখালিখিতেও তাঁর বিশেষ খ্যাতি ছিল। বিভিন্ন সময়ে নানা তথ্যচিত্র, কাব্যনাটক ইত্যাদিতেও কাজ করেছিলেন তিনি। তাঁর কর্মজীবনের পুরো সময়টাতেই তিনি ছিলেন একাধারে বিতর্কিত ও প্রভাবশালী। মৃত্যুর পর চলচ্চিত্র, সম্প্রচার ও অন্যান্য মাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার দরুন তাঁর "ফিউনারেল ব্লুজ" ("স্টপ অল দ্য ক্লকস") ও "সেপ্টেম্বর ১, ১৯৩৯" কবিতাদুটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে।

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. The first syllable of "Auden" rhymes with "law" (not with "how").
  2. Auden, W. H.; ed. by Edward Mendelson (২০০২)। Prose, Volume II: 1939–1948। Princeton: Princeton University Press। পৃষ্ঠা 478। আইএসবিএন 0-691-08935-3  Auden used the phrase "Anglo-American Poets" in 1943, implicitly referring to himself and T. S. Eliot.
  3. The first definition of "Anglo-American" in the OED (2008 revision) is: "Of, belonging to, or involving both England (or Britain) and America." "Oxford English Dictionary (access by subscription)"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-২৫  See also the definition "English in origin or birth, American by settlement or citizenship" in Chambers 20th Century Dictionary। ১৯৮৩। পৃষ্ঠা 45।  See also the definition "an American, especially a citizen of the United States, of English origin or descent" in Merriam Webster's New International Dictionary, Second Edition। ১৯৬১। পৃষ্ঠা 103।  See also the definition "a native or descendant of a native of England who has settled in or become a citizen of America, esp. of the United States" from The Random House Dictionary, 2009, available online at "Dictionary.com"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-২৫ 
  4. Smith, Stan, ed. (২০০৪)। The Cambridge Companion to W. H. Auden। Cambridge: Cambridge University Press। আইএসবিএন 0-521-82962-3 
  5. Academy of American Poets। "W. H. Auden"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  6. Brodksy, Joseph (১৯৮৬)। Less Than One: selected essays। New York: Farrar, Straus and Giroux। পৃষ্ঠা 357। আইএসবিএন 0-374-18503-4 
  7. Fuller, John (১৯৯৮)। W. H. Auden: a commentary। London: Faber and Faber। আইএসবিএন 0-571-19268-8 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

মুদ্রিত গ্রন্থ[সম্পাদনা]

See also the listings on the criticism page at the W. H. Auden Society web site. In the list below, unless noted, publication data and ISBN refer to the first editions; many titles are also available in later reprints.

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

সাধারণ জীবনী ও সমালোচনামূলক রচনা[সম্পাদনা]

বিশেষ বিষয়বস্তু[সম্পাদনা]

অড্যান গবেষণা[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

See also the descriptive list on the links page at the W. H. Auden Society web site.

  • "The W. H. Auden Society: news, links, books, notes, etc."। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • Oxford Dictionary of National Biography। "Auden, Wystan Hugh (1907–1973)" (Subscription access only)। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • টেমপ্লেট:NRA
  • "Fourteen poems by Auden (Academy of American Poets site)"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২০ 
  • "W. H. Auden on the BBC Poetry Season site (warning: links not available outside UK)"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৭-০৬ 
  • "Auden reads "On Reading a Child's Guide to Modern Physics""। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • "Recorded interviews with the BBC"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • Michael Newman (Spring ১৯৭৪)। "W. H. Auden, The Art of Poetry No. 17"Paris Review। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • Fenton, James (২০০৭-০২-০৩)। ""A voice of his own", The Guardian, 3 Feb. 2007"। London। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০২-০৩ 
  • Bucknell, Katherine (২০০৭-০২-০৪)। ""In praise of a guilty genius", The Observer, 4 Feb. 2007"The Guardian। London। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০২-০৬ 
  • "W. H. Auden at Swarthmore"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২০ 
  • "Back issues of The W. H. Auden Society Newsletter"। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০১-২১ 
  • Yale College Lecture on W.H. Auden audio, video and full transcripts from Open Yale Courses
  • Wikiquote page of quotations from W. H. Auden (with notes on misattributions).


টেমপ্লেট:Austrian State Prize for European Literature