জেরাল্ড বন্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জেরাল্ড বন্ড
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজেরাল্ড এডওয়ার্ড বন্ড
জন্ম৫ এপ্রিল, ১৯০৯
কেপ টাউন, কেপ প্রদেশ
মৃত্যু২৭ আগস্ট, ১৯৬৫
কেপ টাউন, কেপ প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ১৫০)
২৪ ডিসেম্বর ১৯৩৮ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২৮
রানের সংখ্যা ১৬০৪
ব্যাটিং গড় ৪১.১২
১০০/৫০ ০/০ ১/১১
সর্বোচ্চ রান ১৭০
বল করেছে ১৬ ১৪৬২
উইকেট - ২০
বোলিং গড় - ৩৫.৩৫
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং - ৪/১৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/- ১১/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৪ জুলাই ২০২০

জেরাল্ড এডওয়ার্ড বন্ড (ইংরেজি: Gerald Bond; জন্ম: ৫ এপ্রিল, ১৯০৯ - মৃত্যু: ২৭ আগস্ট, ১৯৬৫) কেপ প্রদেশের কেপ টাউন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৩০-এর দশকের শেষদিকে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন জেরাল্ড বন্ড

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯২৯-৩০ মৌসুম থেকে ১৯৩৮-৩৯ মৌসুম পর্যন্ত জেরাল্ড বন্ডের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। আক্রমণধর্মী ডানহাতি ব্যাটসম্যান ছিলেন জেরাল্ড বন্ড। ডানহাতি মাঝারিসারির কিংবা একটু উপরেরসারিতে ব্যাটিং করতেন জেরাল্ড বন্ড। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম পেস বোলিং করতেন তিনি। ১৯২৯-৩০ মৌসুম থেকে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স দলে অনিয়মিতভাবে খেলতেন।

১৯৩৬-৩৭ মৌসুমে নিজস্ব স্বর্ণালী সময় অতিবাহিত করেন। এ পর্যায়ে ডারবানে অনুষ্ঠিত খেলায় নাটালের বিপক্ষে ১৭০ রান তুলে নিজস্ব স্বর্ণালী মুহূর্ত অতিক্রমণ করেন। এটিই তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে একমাত্র শতরানের ঘটনা ছিল। ঐ পর্যায়ে তার দল ৬৬৪/৬ রানের বিপরীতে খেলছিল। ১৭০ রান করলেও তার দল ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়বরণ করে।[২] পরের খেলায় ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের পক্ষে ব্যাটিং উদ্বোধনে নামেন তিনি। বর্ডারের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তিনি মিডিয়াম-পেস বোলিং করে ৪/১৭ লাভ করেন। এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনের সেরা বোলিং পরিসংখ্যান ছিল।[৩]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জেরাল্ড বন্ড। ২৪ ডিসেম্বর, ১৯৩৮ তারিখে জোহেন্সবার্গে সফরকারী ইংল্যান্ড বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

জেরাল্ড বন্ডের টেস্ট খেলোয়াড়ী জীবন বেশ ক্ষণস্থায়ী ছিল। ১৯৩৮-৩৯ মৌসুমে ইংরেজ দল দক্ষিণ আফ্রিকা গমন করে। সফররত ইংরেজ দলের বিপক্ষে ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের সদস্যরূপে দুই উইকেট পান। তন্মধ্যে, ওয়ালি হ্যামন্ড তার শিকারে পরিণত হয়েছিলেন। এছাড়াও, উভয় ইনিংসে ১৩ রান করে সংগ্রহ করেছিলেন।[৪]

এরপর, পাঁচ-টেস্ট নিয়ে গড়া সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলার জন্যে তাকে দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। ইংল্যান্ডের ব্যাটিংকালে তিনি ষষ্ঠ বোলার হিসেবে বোলিং করার জন্যে আমন্ত্রিত হন। তাকে মাত্র দুই ওভার বোলিং করার সুযোগ দেয়া হয়। কোন উইকেট পাননি ও ১৬ রান খরচ করে ফেলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে তাকে নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নবম অবস্থানে ব্যাটিংয়ে নামানো হয়। সচরাচর, ওয়েস্টার্ন প্রভিন্সের সদস্যরূপে ৩ কিংবা ৪ নম্বরে ব্যাটিং করতেন। প্রথম বলেই তিনি আউট হন ও ঐ ইনিংসে তিনজন ব্যাটসম্যানের অন্যতম হিসেবে এ দূর্ভাগ্যজনক অধ্যায়ের শিকার হন।[৫]

অবসর[সম্পাদনা]

তাকে আর দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে খেলানো হয়নি ও এরপর আর কোন প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায়ও অংশ নেননি। ২৭ আগস্ট, ১৯৬৫ তারিখে ৫৬ বছর বয়সে কেপ প্রদেশের কেপ টাউন এলাকায় জেরাল্ড বন্ডের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Gerald Bond"। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-১৫ 
  2. "Scorecard: Natal v Western Province"। www.cricketarchive.com। ১৯৩৭-০৩-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-২৫ 
  3. "Scorecard: Border v Western Province"। www.cricketarchive.com। ১৯৩৭-০৩-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-২৫ 
  4. "Scorecard: Western Province v MCC"। www.cricketarchive.com। ১৯৩৮-১১-১২। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-২৫ 
  5. "Scorecard: South Africa v England"। www.cricketarchive.com। ১৯৩৮-১২-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০১-২৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]