জুল ভার্ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জ্যুল ভ্যার্ন
আনু. ১৮৮৪ সালে ভ্যার্ন
আনু. ১৮৮৪ সালে ভ্যার্ন
জন্মজ্যুল গাব্রিয়্যাল ভ্যার্ন
(১৮২৮-০২-০৮)৮ ফেব্রুয়ারি ১৮২৮
নঁত, ফ্রান্স
মৃত্যু২৪ মার্চ ১৯০৫(1905-03-24) (বয়স ৭৭)
আমিয়াঁ, ফ্রান্স
সমাধিস্থললা মাদল্যান গোরস্তান, আমিয়াঁ, ফ্রান্স
পেশা
  • ঔপন্যাসিক
  • কবি
  • নাট্যকার
ভাষাফরাসি
সময়কাল১৮৫০–১৯০৫
উল্লেখযোগ্য রচনাবলি
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারLegion Honneur Officier ribbon.svg লেজিওঁ দনর – অফিসার (১৮৯২)
দাম্পত্যসঙ্গীঅনরিন আন এবে দ্যু ফ্র‍্যাস্ন দ্য ভিয়ান (বি. ১৮৫৭)
সন্তান৩:
১ ছেলে: মিশেল ভ্যার্ন
২ সৎ মেয়ে:
ভালঁতিন মোরেল
স্যুজান মোরেল

স্বাক্ষর

জ্যুল গাব্রিয়্যাল ভ্যার্ন[ক] (ফরাসি: Jules Gabriel Verne, উচ্চারণ: [ʒyl gabʁijɛl vɛʁn]; ৮ই ফেব্রুয়ারি ১৮২৮ – ২৪শে মার্চ ১৯০৫)[১] ছিলেন একজন ফরাসি ঔপন্যাসিক, কবিনাট্যকার। প্রকাশক পিয়্যার-জ্যুল এৎজেলের সঙ্গে জোট বাঁধার মধ্য দিয়ে তিনি কালজয়ী ভোয়াইয়াজ এক্সত্রাঅর্দিন্যার রচনা করেন,[১] যা মূলত পৃথিবীর কেন্দ্রে যাত্রা (১৮৬৪), সমুদ্রের নীচে কুড়ি হাজার লিগ (১৮৭০) এবং আশি দিনে বিশ্বভ্রমণ (১৮৭২)-সহ একাধিক বেস্টসেলিং রোমাঞ্চকর আভিযানিক উপন্যাসের একটি সংকলন। তাঁর তথ্যসমৃদ্ধ উপন্যাসগুলো সাধারণত ১৯শ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধের প্রেক্ষিতে সেই সময়কার প্রযুক্তিগত অগ্রগতির বিষয়টি বিবেচনা করে রচিত।

ভ্যার্ন অসামান্য সব বিজ্ঞান কল্পকাহিনী রচনার জন্য বিখ্যাত। উড়োজাহাজ, রকেট কিংবা সাবমেরিনের বাস্তবিক ও ব্যবহারিক প্রয়োগের অনেক পূর্বেই তিনি মহাকাশ ভ্রমণ ও সমুদ্রের তলদেশে ভ্রমণের কল্পকাহিনী লিখেছিলেন। পৃথিবীতে আগাথা ক্রিস্টির পরেই তাঁর লেখা সবচেয়ে বেশি বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। তাঁর লেখা বেশ কিছু কাহিনী নিয়ে চলচ্চিত্র ও নাটকও নির্মিত হয়েছে।

জ্যুল ভ্যার্নের জন্ম ১৮২৮ সালে ফ্রান্সের পশ্চিমে বিস্কে উপসাগরের তীরে অবস্থিত নঁত নামের বন্দর শহরে। তাঁর বাবা পিয়ের ভ্যার্ন, এবং মা সোফি আলৎ দ্য লা ফুই। তাঁর শৈশব কাটে এখানকার বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে। তারা গ্রীষ্মকাল কাটাতেন নঁতের কাছেই ব্রে শহরে। সেখানে ভ্যার্ন ও তাঁর ভাই পল প্রায়ই এক ফ্রঁ দিয়ে এক দিনের জন্য নৌকা ভাড়া নিতেন। ভ্যার্নের মতে, নদীতে প্রচুর জলযানের চলাচলের দৃশ্য তাঁর কল্পনাশক্তির স্ফুরণ ঘটায়। ১২ বছর বয়সে জাহাজের কেবিনবয় হিসেবে কাজ নিয়ে বাড়ি থেকে পালাতে গিয়ে ধরা পড়ে মায়ের কাছে প্রতিজ্ঞা করেন এখন থেকে নিজের মনের মধ্যেই ঘুরে বেড়াবেন। বাবার ইচ্ছায় আইন বিষয়ে পড়াশোনা করে আইনজীবী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করে বেশ প্রসার লাভ করেন। অভিযানপ্রিয় জ্যুল ভ্যার্ন খুব দ্রুত বিরক্ত হয়ে পড়েন এ পেশার প্রতি এবং ১৮৬৭ সালে আইন ব্যবসা ছেড়ে পাড়ি জমান আমেরিকায়।

সাহিত্যাঙ্গনে ভ্যার্নের প্রবেশ ঘটে মঞ্চনাটক লেখার মাধ্যমে। তাঁর লেখা মঞ্চনাটক বেশ জনপ্রিয়তা পায়। তার লেখা প্রথম বই বেলুনে পাঁচ সপ্তাহ অত্যন্ত অবাস্তব বলে কোন প্রকাশক ছাপতে রাজী না হওয়ায় তিনি রেগে গিয়ে এর পাণ্ডুলিপি আগুনে পুড়িয়ে ফেলার সময় তার স্ত্রীর হস্তক্ষেপে তা রক্ষা পায়। পরে এ বইটি প্রকাশিত হলে রাতারাতি প্রচন্ড জনপ্রিয়তা পায়। ব্যক্তিগত জীবনে প্রচণ্ড ঘরকুনো এই লেখক তার বাড়ীর চিলেকোঠায় বসেই লিখে গেছেন বিশ্বমাতানো সব কল্পবিজ্ঞান কাহিনী। তার সৃষ্ট চরিত্রগুলির মধ্যে ফিলিয়াস ফগ্‌, ক্যাপ্টেন নিমো, রোবার ও ক্যাপ্টেন হ্যাটেরাস উল্লেখযোগ্য। ১৮৫৭ সালের সিপাহী বিদ্রোহনানা সাহেবের ইতিহাস আশ্রিত তার উপন্যাস টাইগার্স এন্ড ট্রেটস-এ অবিভক্ত ভারতবর্ষ ও বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের নিখুঁত বর্ণনা পাওয়া যায়। জুল ভার্ন মৃত্যুবরণ করেন ২৪ মার্চ ১৯০৫ আমেরিকায়।

সম্মাননা[সম্পাদনা]

ফ্রান্স সাহিত্য অ্যাকাডেমি তাকে "অর্ডার অব মেরিট" সম্মানে ভূষিত করে। জুল ভার্ন ইংল্যান্ড রয়াল অ্যাকাডেমির সম্মানসূচক সদস্যপদ লাভ করেন।

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

উপন্যাস[সম্পাদনা]

"বিশ্বের শেষ প্রান্তে বাতিঘর" জুলস ভার্নের সাহিত্য পর্যায়ের অন্যতম সেরা উপন্যাস হিসেবে বিবেচিত হয়।
Jules Verne Algerie.jpg

Recueils de nouvelles[সম্পাদনা]

Conte fantastique[সম্পাদনা]

-->

পাদটীকা ও তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Evans, Arthur B. (২৩ এপ্রিল ২০২০)। "Jules Verne: French author"। Encyclopædia Britannica, Inc.। Encyclopædia Britannica (online সংস্করণ)। ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

Bibliography

Sources

Biography

Reviews

Misc


উদ্ধৃতি ত্রুটি: "lower-alpha" নামক গ্রুপের জন্য <ref> ট্যাগ রয়েছে, কিন্তু এর জন্য কোন সঙ্গতিপূর্ণ <references group="lower-alpha"/> ট্যাগ পাওয়া যায়নি