গোল্ডফিশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গোল্ডফিশ
ক্যারাসিয়াস অর্যাটাস
Goldfish3.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস e
প্রজাতি: † গ.
ক্যারাসিয়াস অর্যাটাস
দ্বিপদী নাম
গোল্ডফিশ
ক্যারাসিয়াস অর্যাটাস

( লিনিয়াস, ১৭৫৮)[২][৩]
প্রতিশব্দ

গোল্ডফিশ (ক্যারাসিয়াস অর্যাটাস) স্বাদুপানির মাছের প্রজাতি । এই মাছ সিপ্রিনিফর্মেস বর্গের সিপ্রিনিডে পরিবারের সদস্য। এটি অ্যাকোয়ারিইয়ামে রাখা সর্বাধিক মাছের মধ্যে একটি ।

গোল্ডফিশ কার্প পরিবারের অপেক্ষাকৃত ছোট সদস্য (এতে প্রুশিয়ান কার্প এবং ক্রুশিয়ান কার্পও রয়েছে )। গোল্ডফিশ পূর্ব এশিয়ার স্থানীয় মাছ। এক হাজার বছর আগে প্রাচীন চীনতে প্রথম প্রথমবারের মতো এই মাছ বেছে নেওয়া হয়েছিল এবং এর পরে বিভিন্ন স্বতন্ত্র জাতের বিকাশ হয়েছে। গোল্ডফিশের জাত আকার, দেহের আকৃতি এবং রঙে বিভিন্নভাবে পরিবর্তিত হয় (সাদা, হলুদ, কমলা, লাল, বাদামী এবং কালো রঙের বিভিন্ন সমন্বযয়ে পরিচিত)।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রাচীন চীন থেকে শুরু করে, বিভিন্ন প্রজাতির কার্প (সম্মিলিতভাবে এশিয়ান কার্প নামে পরিচিত) হাজার হাজার বছর ধরে খাদ্য মাছ (Aquaculture) হিসাবে বাচ্চার প্রজনন ও লালন-পালন করে আসছে। এর মধ্যে কয়েকটি কার্প ধূসর বা রৌপ্য প্রজাতির, যাদের লাল, কমলা বা হলুদ বর্ণের পরিব্যক্তি উৎপাদন করার প্রবণতা রয়েছে; এটি প্রথম লিপিবদ্ধ করা হয় জিন রাজবংশের সময়ে (২৬৫–৪২০ খ্রি.)। [৪] [৫]

তাং রাজবংশের সময়ে (খ্রি ৬১৮-৯০৭), জলাশয় বাগান শোভাময় পুকুর এবং কার্প বৃদ্ধি করতে জনপ্রিয় ছিল । একটি প্রাকৃতিক জেনেটিক রূপান্তর প্রক্রিয়ায় এই কার্প রূপালী রঙের পরিবর্তে সোনার রঙ (আসলে হলুদ কমলা) উৎপাদন করে। লোকেরা রৌপ্য জাতের পরিবর্তে সোনার জাতটি পুকুর বা অন্যান্য কোন জলে বা পানিতে রেখে শুরু করে প্রজনন ঘটানো। [৬] [৭]

সং রাজবংশের (৯৬০–১২৭৯ খ্রিস্টাব্দ) দ্বারা গোল্ডফিশের গৃহ প্রজনন (domestic breeding) নির্বাচনী দৃঢ়ভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। [৮] ১১৬২ সালে, রাজবংশের সম্রাট লাল এবং সোনার জাত সংগ্রহের জন্য একটি পুকুর তৈরির নির্দেশ দেন। এই সময়ের মধ্যে, রাজকীয় পরিবারের বাইরের লোকেদের কাছে সোনার (হলুদ) জাতের গোল্ডফিশ রাখতে নিষিদ্ধ করা ছিল, যখন হলুদ ছিল সাম্রাজ্যের রঙ । পরে সম্ভবত জিনগতভাবে বংশবৃদ্ধি করা সহজ হলেও এই কারণেই সম্ভবত হলুদ গোল্ডফিশের চেয়ে বেশি কমলা গোল্ডফিশ দেখা যায়। [৯]

মিং রাজবংশের সময় (১৩৬৮ -১৬৪৪), গোল্ডফিশ বাড়ির অভ্যন্তরেও উত্থাপিত হতে শুরু করে ।[১০] অভিনব-লেজযুক্ত গোল্ডফিশের প্রথম ঘটনাটি মিং রাজবংশে রেকর্ড করা হয়েছিল। ১৬০৩ সালে, গোল্ডফিশ জাপানে প্রবর্তিত হয়। [১১] ১৬১১ সালে, গোল্ডফিশ পর্তুগাল এবং সেখান থেকে ইউরোপের অন্যান্য অঞ্চলে প্রবর্তিত হয়। [১১]

১৬২০ এর দশকে, ধাতব স্কেলের কারণে দক্ষিণ ইউরোপে গোল্ডফিশকে অত্যন্ত সম্মান করা হতো এবং এটিকে সৌভাগ্য এবং ভাগ্যের প্রতীক মনে করা হতো । বিবাহিত পুরুষদের জন্য তাদের বার্ষিকী বছরে প্রতীক হিসাবে তাদের প্রথম বার্ষিকীতে তাদের স্ত্রীদের গোল্ডফিশ দেওয়া ঐতিহ্য হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এই ঐতিহ্যটি খুব শীঘ্রই শেষ হয়ে গেল, কারণ গোল্ডফিশ আরো অনেক পাওয়া যাচ্ছিল যার কারণে গোল্ডফিশ তাদের মর্যাদা হারায়। গোল্ডফিশ ১৮৫০ সালের দিকে উত্তর আমেরিকায় প্রথম পরিচিত হয়েছিল এবং দ্রুত এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। [১২] [১৩]

জীববিদ্যা[সম্পাদনা]

আকার ও আকৃতি[সম্পাদনা]

২০০৮ সালের এপ্রিল থেকে বিবিসির ধারণা নেদারল্যান্ডসের ১৯ ইঞ্চি (৪৮ সেমি) গোল্ডফিশ বিশ্বের বৃহত্তম গোল্ডফিশ। [১৪] ইংল্যান্ডের ফল্কস্টোন শহরে একটি ট্যাঙ্কে পোষা গোল্ডফিশের খোঁজ পাওয়া যায়। মাছটির নাম ছিল "গোল্ডি" তার পরিমাপ আসে ১৫ ইঞ্চি (৩৮ সেমি) এবং ২ পাউন্ড (০.৯১ কেজি) এবং নেদারল্যান্ডসের মাছের পরে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গোল্ডফিশ। [১৪] ফেডারেশন অফ ব্রিটিশ অ্যাকোয়াটিক সোসাইটির (এফবিএএস) সেক্রেটারি গোল্ডির আকার সম্পর্কে বলেছিলেন, "আমি মনে করব সম্ভবত এমন কয়েকটি বড় গোল্ডফিশ আছে যা লোকে রেকর্ডধারক হিসাবে বিবেচনা করে না, সম্ভবত তা শোভাময় হ্রদে থাকতে পারে"। [১৪] জুলাই ২০১০, ১৬ ইঞ্চি (৪১ সেমি) পরিমাপের একটি গোল্ডফিশ এবং ৫ পাউন্ড (২.৩ কেজি) ইংল্যান্ডের পুলের এক পুকুরে ধরা পড়েছিল। [১৫]

দৃষ্টিশক্তি[সম্পাদনা]

মাছের দৃষ্টিশক্তি অনুভতি (সেন্স) নিয়ে অধ্যয়ন করা সর্বাধিক অধ্যয়নের মধ্যে গোল্ডফিশ একটি । [১৬] গোল্ডফিশে চার ধরণের শঙ্কু কোষ থাকে যা যথাক্রমে ভিন্ন রঙ সংবেদনশীল: লাল, সবুজ, নীল এবং অতিবেগুনী । চারটি পৃথক প্রাথমিক রঙের মধ্যে পার্থক্য করার ক্ষমতা তাদেরকে টেট্রোক্রোমেট হিসাবে শ্রেণিবদ্ধ করে। [১৭]

শ্রবণশক্তি[সম্পাদনা]

মাছের শ্রবণশক্তি অনুভতি (সেন্স) নিয়ে অধ্যয়ন করা সর্বাধিক অধ্যয়নের মধ্যে গোল্ডফিশ একটি [১৮] তাদের দুইটি অটোলিথ রয়েছে, অটোলিথ দুটো শব্দ কণার গতি সনাক্তকরণের অনুমতি দেয় এবং শব্দ চাপের সনাক্তকরণের সুবিধার্থে ওয়েবারিয়ান ওসিক্যালস সুইমব্ল্যাডারকে অটোলিথের সাথে সংযুক্ত করে। [১৯]

জ্ঞানীয় ক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি[সম্পাদনা]

গোল্ডফিশের শেখার ক্ষমতা খুবই শক্তিশালী । তাদের মধ্যে সামাজিক শিক্ষার দক্ষতাও দেখাযায়। তাদের চাক্ষুষ তীক্ষ্ণতা তাদের স্বতন্ত্র মানুষের মধ্যে পার্থক্য করার ক্ষমতা দেয়। মাছটির মালিক লক্ষ্য করতে পারেন, প্রণীটি তাদের প্রতি অনুকূল প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে (যেমন,কাচের সামনের দিকে সাঁতার কাটা, ট্যাঙ্কের চারপাশে দ্রুত সাঁতার কাটা এবং খাবারের জন্য উপরিভাগে যাওয়া)। যখন অন্য লোক ট্যাঙ্কের কাছে যাবে তখন মাছগুলো লুকিয়ে থাকবে বা থাকে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

মানুষের সাথে থাকতে থাকতে গোল্ডফিশ মানুষকে হুমকি হিসাবে বিবেচনা করা্টা বন্ধ করে দেয়। বেশ কয়েক সপ্তাহ, কখনও কখনও কয়েক মাস ধরে একটি ট্যাঙ্কে রাখার পরে কোনও গোল্ডফিশকে শুধু পানিতে খাবার না দিয়ে হাত দিয়ে খাওয়ানো সম্ভব হয়।

গোল্ডফিশের স্মৃতিকাল কমপক্ষে তিন মাস থাকে এবং এটি বিভিন্ন আকার, রঙ এবং শব্দের মধ্যে পার্থক্য করতে পারে। [২০] [২১] পজেটিভ রেইনফোর্সমেন্ট (positive reinforcement ) ব্যবহার করে, গোল্ডফিশকে বিভিন্ন রঙের হালকা সংকেত সনাক্ত করতে এবং প্রতিক্রিয়া জানাতে প্রশিক্ষণ দেওয়া যেতে পারে [২২] বা কৌশল সম্পাদন করতে প্রশিক্ষণ দেওয়া যেতে পারে। [২৩] খাওয়ানোর ক্ষেত্রে মাছগুলি নির্দিষ্ট রঙগুলিতে সুনির্দিষ্টভাবে সাড়া দেয়।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

প্রচলিত কথা আছে, গোল্ডফিশের স্মৃতিশক্তি খুবই কম। অনেকের মতে গোল্ডফিশ কোনো বিষয় মনে রাখতে পারে মাত্র তিন সেকেন্ড। এটি একটি সুইডিশ কনসেপ্ট। কেউ কোনও কিছু স্মরণে না আনতে পারলে কখনও কখনওতাকে ঠাট্টা করে বলা হয় তার ‘গোল্ডফিশ মেমোরি’। বাস্তবে গোল্ডফিশের স্মৃতিশক্তি আসলে এত কম নয়। গোল্ডফিশ কোনও ঘটনা কমপক্ষে তিন মাস পর্যন্ত মনে রাখতে পারে [২৪]। এরা বিভিন্ন আকৃতি, রং ও শব্দের মধ্যেও পার্থক্য করতে পারে। এছাড়া বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দিলে গোল্ডফিশরা বিভিন্ন রঙের আলোক সংকেত অনুযায়ী প্রতিক্রিয়া দেখাতে সক্ষম। গবেষণায় পাওয়া যায়, গোল্ডফিশ কিংবা অন্য যেকোনও মাছ তাদের খাবার প্রাপ্তির ভিত্তিতেও স্থান মনে রাখে। মাছদের কয়েকদিন একটি নির্দিষ্ট স্থানে খাবার দিলে কয়েকদিন পর মাছগুলো ঠিকই সেই একই জায়াগায় এসে খাদ্য অনুসন্ধান করবে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে এই স্মরণকাল ১২ দিন পর্যন্ত হতে পারে, যা অন্তত ‘তিন সেকেন্ড’ সময়ের চেয়ে অনেক বেশি[২৫][২৬]

প্রজনন[সম্পাদনা]

গোল্ডফিশ কেবলমাত্র পর্যাপ্ত জল এবং সঠিক পুষ্টিতে যৌন পরিপক্কতায় তার সংখ্যা বৃদ্ধি করতে পারে। বন্দী অবস্থায় বেশিরভাগ গোল্ডফিশ প্রজাতির বিশেষত পুকুরে প্রজনন ঘটে। প্রায়শই বসন্তে এরদের প্রজনন ঘটে এবং এই প্রজনন সাধারণত উল্লেখযোগ্য তাপমাত্রা পরিবর্তনের পরে ঘটে । পুরুষরা গ্রাভিড মহিলা গোল্ডফিশ (ডিম বহনকারী স্ত্রী গোল্ডফিশ) তাড়া করে এবং তাদের ডিম ফাটিয়ে দেয় এবং ডিম থেকে বাচ্চা বের করে দেয়।

অন্যান্য সিপ্রিনিডের মতো গোল্ডফিশের ডিমের স্তর আছে। এর ডিম আঠালো এবং জলজ উদ্ভিদের সাথে সংযুক্ত থাকে, সাধারণত ঘন গাছপালা যেমন কাবম্বা বা এলোডিয়ার সাথে। ডিম ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

গোল্ডফিশ ডিম কোষ বিভাজন দেখায়

এক সপ্তাহ বা তার মধ্যে ডিম তার চূড়ান্ত আকারটি ধরণ করা শুরু করে। যদিও তাদের পরিপক্ক গোল্ডফিশ রঙের বিকাশ হওয়ার জন্য এক বছর কেটে যেতে পার। ততক্ষণ পর্যন্ত তারা তাদের বুনো পূর্বপুরুষদের মতো ধাতব বাদামি রঙে থাকে। জীবনের প্রথম সপ্তাহগুলিতে, ডিম দ্রুত বৃদ্ধি পায় তাদের পরিবেশে প্রাপ্ত বড় গোল্ডফিশ (বা অন্যান্য মাছ এবং পোকামাকড়) থেকে গ্রাস করার উচ্চ ঝুঁকির মধ্যে জন্মগ্রহণ একটি অভিযোজন। [২৭]

কিছু চূড়ান্তভাবে বাছাই করা গোল্ডফিশ তাদের পরিবর্তিত আকারের কারণে প্রাকৃতিকভাবে আর বংশবৃদ্ধি করতে পারে না। "হ্যান্ড স্ট্রিপিং" নামক কৃত্রিম প্রজনন পদ্ধতি্র মাধ্যমে প্রজনন ঘটানো লাগে, তবে সঠিকভাবে সেটা না করা হলে মাছের ক্ষতি করতে পারে। বন্দী অবস্থায়, প্রাপ্তবয়স্করাও তাদের মুখোমুখি একই প্রজাতির অল্প বয়স্ক মাছেদের খেতে পারে।

বাজার[সম্পাদনা]

২০১৮ সালে চীন থেকে আমদানি হওয়া লাইভ গোল্ডফিশ এবং অন্যান্য ক্রুশিয়ান কার্পের বাজার ছিল ১.২ মিলিয়ন। কিছু উচ্চ মানের জাতের দাম ১২৫ ডলার থেকে ৩০০ ডলার পর্যন্ত । [২৮]

অভিজোযন ক্ষমতা[সম্পাদনা]

গোল্ডফিশের রয়েছে বরফ শীতল পানিতে বেঁচে থাকার অদ্ভুত অভিজোযন ক্ষমতা। মানুষ সহ অধিকাংশ প্রাণী যেখানে অক্সিজেন ছাড়া কয়েক মিনিটের মধ্যে মারা যায়, সেখানে উত্তর ইউরোপের বরফ ঢাকা জলাভূমিতে গোল্ডফিশ মাসের পর মাস বেঁচে থাকে। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন বরফে ঢাকা শীতল হ্রদের পানিতে বাঁচতে গোল্ডফিশ শরীরের ল্যাকটিক অ্যাসিড অ্যালকোহলে রূপান্তরিত করে ফেলে। অক্সিজেনের অভাবে শরীরে ল্যাকটিক অ্যাসিড তৈরি হয়। সেটি যদি শরীর থেকে কোনো প্রাণী বের না করতে পারে, তাহলে কয়েক মিনিটের মধ্যে সে মারা যাবে। কিন্তু গোল্ডফিশ এবং একই জাতের দু-একটি মাছ এই ল্যাকটিক অ্যাসিড অ্যালকোহলে রূপান্তরিত করে তা বেঁচে থাকার শক্তি হিসাবে ব্যবহার করতে পারে। বরফ যত বেশি সময় থাকবে, গোল্ডফিশের শরীরে তত বেশি অ্যালকোহল তৈরি হবে। সেটি সেই প্রতিকুল পরিবেশে তার বেঁচে থাকার জ্বালানি হিসাবে কাজ করে। শুধু অক্সিজেনের অভাব হলেই তাদের শরীরে সেই ব্যতিক্রমী ক্ষমতা তৈরি হয়। বরফে ঢাকা হ্রদের পানিতে কোনো কোনো গোল্ডফিশের শরীরে অ্যালকোহলের মাত্রা এতটাই বেশি থাকে যে রক্তে সেই মাত্রার জন্য পুলিশ কোনো মানুষকে মদ খেয়ে গাড়ি চালানোর দায়ে আটকাতে পারে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Carassius auratus "বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2016.3প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন। ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৭ 
  2. "USGS-NAS, Non-indigenous Aquatic Species"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-২৯ 
  3. "Carassius auratus (Linnaeus, 1758)"। Fishbase। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-২৯ 
  4. "Goldfish"। Ocean Park। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১১-১৬ 
  5. Roots, Clive (২০০৭)। Domestication। Greenwood Press। পৃষ্ঠা 20–21। আইএসবিএন 978-0-313-33987-5 
  6. "Background information about goldfish"। Bristol Aquarists' Society। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৭-২৮ 
  7. Nutrafin Aquatic News, Issue #4, 2004, Rolf C. Hagen, Inc. (USA) and Rolf C. Hagen Corp. (Montreal, Canada)
  8. Smartt, Joseph (২০০১)। Goldfish varieties and genetics: A handbook for breeders। Blackwell Science। পৃষ্ঠা 21আইএসবিএন 978-0-85238-265-3 
  9. "goldfish"। সেপ্টেম্বর ১, ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০২-২৮ 
  10. Roots, Clive (২০০৭)। Domestication। Greenwood Press। পৃষ্ঠা 20–21। আইএসবিএন 978-0-313-33987-5 
  11. "Background information about goldfish"। Bristol Aquarists' Society। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-০৭-২৮ 
  12. Brunner, Bernd (২০০৩)। The Ocean at Home। Princeton Architectural Press। আইএসবিএন 978-1-56898-502-2 
  13. Mulertt, Hugo (১৮৮৩)। The Goldfish And Its Systematic Culture With A View To Profit। Cincinnati [McDonald & Eick, print.]। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৭-০৭ 
  14. "Giant goldfish 'simply amazing'"। BBC News। ১৭ এপ্রিল ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১০ 
  15. "Surrey schoolboy catches 5lb goldfish in Dorset lake"। BBC News। ১৫ জুলাই ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১০ 
  16. Neumeyer, C. (২০০৩)। "Color Vision in Fishes and Its Neural Basis"। Sensory Processing in Aquatic Environments। Springer-Verlag। পৃষ্ঠা 223 
  17. Neumeyer, Christa (১৯৮৮)। Das Farbensehen des Goldfisches: Eine verhaltensphysiologische Analyse। G. Thieme। আইএসবিএন 978-3137187011 
  18. Ladich, F., & Fay, R. R. (2013). Auditory evoked potential audiometry in fish. Reviews in Fish Biology and Fisheries, 23(3), 317-364.
  19. FAY, R. R., & POPPER, A. N. (1974). Acoustic stimulation of the ear of the goldfish (Carassius auratus). Journal of Experimental Biology, 61(1), 243-260.
  20. Research by the School of Psychology at the University of Plymouth in 1994. Goldfish were trained to push a lever to earn a food reward; when the lever was fixed to work only for an hour a day, the fish soon learned to activate it at the correct time. See: Gee, P; Stephenson, D (জুলাই ১৯৯৪)। "Temporal discrimination learning of operant feeding in goldfish": 1–13। ডিওআই:10.1901/jeab.1994.62-1পিএমআইডি 16812735পিএমসি 1334363অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  21. The Discovery Channel's show MythBusters tested the contemporary legend that goldfish only had a memory span of three seconds and were able to prove that goldfish had a longer memory span than commonly believed. The experiment involved training the fish to navigate a maze. It was evident that they were able to remember the correct path of the maze after more than a month. MythBuster Results: A goldfish’s memory lasts only three seconds
  22. Demonstrated in a 1994 public experiment at the Palais de la Découverte science museum. The experimental details and results are described in: "Poissons rouges: la mémoire dans l'eau"। এপ্রিল ১৯৯৪। 
  23. "Send Your Fish to School"। ABC News। মে ৭, ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৮, ২০১২ 
  24. https://en.wikipedia.org/wiki/Goldfish
  25. Research by the School of Psychology at the University of Plymouth in 1994. Goldfish were trained to push a lever to earn a food reward; when the lever was fixed to work only for an hour a day, the fish soon learned to activate it at the correct time. See: Gee, P; Stephenson, D; Wright, DE (জুলাই ১৯৯৪)। "Temporal discrimination learning of operant feeding in goldfish"Journal of the experimental analysis of behavior62: 1–13। ডিওআই:10.1901/jeab.1994.62-1পিএমআইডি 16812735পিএমসি 1334363অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  26. The Discovery Channel's show MythBusters tested the contemporary legend that goldfish only had a memory span of 3 seconds and were able to prove that goldfish had a longer memory span than commonly believed. The experiment involved training the fish to navigate a maze. It was evident that they were able to remember the correct path of the maze after more than a month. MythBuster Results: A goldfish’s memory lasts only three seconds
  27. Loh, Richmond। "Goldfish (Carassius auratus)" (PDF)। The Fish Vet.com। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৩১, ২০১৩ 
  28. Selyukh, Alina (২০১৯-১০-১৬)। "The Goldfish Tariff: Fancy Pet Fish Among The Stranger Casualties Of The Trade War"NPR। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৭