কেওক্রাডং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেওক্রাডং
Flag Marker on Keokaradong (New).JPG
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক স্থাপিত বিজ্ঞপ্তি ফলক
উচ্চতা৯৮৬ মিটার (৩,২৩৫ ফুট)
তালিকাসমূহবাংলাদেশের পর্বতসমূহের তালিকা
অবস্থান
কেওক্রাডং বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
কেওক্রাডং
কেওক্রাডং
মায়ানমার ও বাংলাদেশ সীমান্তে কেওক্রাডং-এর অবস্থান
অবস্থানরুমা, বান্দরবান
স্থানাঙ্ক২১°৫৬′৫৯″ উত্তর ৯২°৩০′৫১″ পূর্ব / ২১.৯৪৯৭২° উত্তর ৯২.৫১৪১৭° পূর্ব / 21.94972; 92.51417স্থানাঙ্ক: ২১°৫৬′৫৯″ উত্তর ৯২°৩০′৫১″ পূর্ব / ২১.৯৪৯৭২° উত্তর ৯২.৫১৪১৭° পূর্ব / 21.94972; 92.51417
ভূবিদ্যা
ধরনপর্বত

কেওক্রাডং[১] (ইংরেজী: Keokradong) নামে সুপরিচিত, বাংলাদেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। এটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় জেলা বান্দরবানে অবস্থিত। এক সময় এটিকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ ধরা হত। তবে আধুনিক গবেষণায় এই তথ্য ভুল প্রমাণিত হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ সাকা হাফং

অবস্থান ও উচ্চতা[সম্পাদনা]

কেওক্রাডং বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলায় অবস্থিত। অর্থাৎ বান্দরবানেরও দক্ষিণ-পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত। একসময় যখন একে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মনে করা হতো তখন এর উচ্চতা পরিমাপ করা হয়েছিল ১,২৩০ মিটার।[২] কিন্তু অধুনা রাশিয়া কর্তৃক পরিচালিত এসআরটিএম উপাত্ত এবং জিপিএস গণনা থেকে দেখা গেছে এর উচ্চতা ১,০০০ মিটারের বেশি নয়। শৃঙ্গের শীর্ষে সেনাবাহিনী কর্তৃক উৎকীর্ণ যে ফলক দেখা যায় তাতে এর উচ্চতা লেখা হয়েছে ৩,১৭২ ফুট। জিপিএস সমীক্ষায় উচ্চতা পাওয়া গেছে ৯৭৪ মিটার (৩,১৯৬ ফুট)। এই পরিমাপটি রুশীয় পরিমাপের সাথে খাপ খায়। এসআরটিএম উপাত্ত এবং মানচিত্রের মাধ্যমে এই পরিমাপ করা হয়েছে। অবশ্য বর্তমানে রুশীয় এসআরটিএম উপাত্ত এবং ইউএসজিএস-এর মাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে কিওক্রাডাং-এর প্রকৃত অবস্থান এটি নয় (উপরে উল্লেখিত ভৌগোলিক স্থানাংকে নয়)। তারা এ স্থান থেকে আরও উত্তরে কেওক্রাডাং এর অবস্থান শনাক্ত করেছেন এবং এর উচ্চতা ৮৮৩ মিটার পরিমাপ করেছেন।[৩]

নামকরণ[সম্পাদনা]

কেওক্রাডং শব্দটি মারমা ভাষা থেকে এসেছে। মারমা ভাষায় কেও মানে 'পাথর', কাড়া মানে 'পাহাড়' আর এবং ডং মানে 'সবচেয়ে উঁচু'। অর্থাৎ কেওক্রাডং মানে সবচেয়ে উঁচু পাথরের পাহাড়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]