এশিয়ায় পর্নোগ্রাফি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

এশিয়ায় পর্নোগ্রাফি হল এশিয়ায় সৃষ্ট ও দৃষ্ট পর্নোগ্রাফি এবং পর্নোগ্রাফির এক বা একাধিক প্রকরণ যা বিশ্বের অন্যান্য অংশে প্রদর্শিত ও বাজারজাত করা হয়।

পূর্ব এশিয়া[সম্পাদনা]

উত্তর কোরিয়া[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[১][২]

দক্ষিণ কোরিয়া[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[৩]

গণপ্রজাতন্ত্রী চীন[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[৪][৫][৬]

হংকং[সম্পাদনা]

আঠারো বছরের সময়সীমা।[৭]

জাপান[সম্পাদনা]

স্বল্প আপত্তিকর তবে ব্যাপকভাবে প্রচলিত।[৮][৯][১০][১১][১২][১৩]

চীনা প্রজাতন্ত্র (তাইওয়ান)[সম্পাদনা]

প্রকাশ্যে জনসম্মুখে আঠারো বছরের নিচের কম বয়সীদের জন্য নিষিদ্ধ।[১৪]

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া[সম্পাদনা]

ব্রুনাই[সম্পাদনা]

সংখ্যালঘু উচ্চবিত্তদের জন্য এবং ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

ইন্দোনেশিয়া[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[১৫][১৬][১৭][১৮][১৯]

মালয়েশিয়া[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[২০]

ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জ[সম্পাদনা]

অবৈধ কিন্তু গোপনে বানিজ্যিকভাবে ব্যাপক প্রচলিত।[২১][২২][২৩]

সিঙ্গাপুর[সম্পাদনা]

সামাজিকভাবে প্রচলিত কিন্তু আইনগতভাবে অবৈধ।[২৪][২৫]

থাইল্যান্ড[সম্পাদনা]

অবৈধ ও শিথিলভাবে নিষিদ্ধ।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

ভিয়েতনাম[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ।[২৬]

পশ্চিম এশিয়া[সম্পাদনা]

আজারবাইজান[সম্পাদনা]

আইনগতভাবে তিরষ্কৃত তবে বৈধতা বা অবৈধতার ব্যপারে কিছু উল্লেখিত হয় নি। শিশু পর্নোগ্রাফি নিষিদ্ধ।[২৭][২৮]

দক্ষিণ এশিয়া[সম্পাদনা]

ভারত[সম্পাদনা]

দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র বৈধতা প্রদানকারী দেশ; তবে আঠারো বছরের বয়সসীমা।[২৯][৩০][৩১][৩২][৩৩][৩৪][৩৫]

পাকিস্তান[সম্পাদনা]

অবৈধ ও নিষিদ্ধ। ইন্টারনেটের সকল পর্নগ্রাফিক ওয়েবসাইট চিহ্নিতকরণের মাধ্যমে ব্যান ও নিয়মিত হালনাগাদ পর্যবেক্ষণ।[৩৬]

বাংলাদেশ[সম্পাদনা]

২০১২ সালে বাংলাদেশ ৯ম জাতীয় সংসদ অধিবেশনে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১২ পাশের মাধ্যমে বাংলাদেশে পর্নোগ্রাফি নিষিদ্ধ করা হয়।[৩৭][৩৮][৩৯]

শ্রীলঙ্কা[সম্পাদনা]

কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

মধ্যপ্রাচ্য[সম্পাদনা]

ইরান[সম্পাদনা]

গোপনে প্রচলিত, আইনগতভাবে নিষিদ্ধ এবং প্রশাসনিক আইন প্রয়োগ ও প্রযুক্তিগত প্রতিরোধ ব্যবস্থা।[৪০]

ইসরায়েল[সম্পাদনা]

প্রচলিত; তবে ১৮ বছরের নিচে শিশু পর্ণোগ্রাফি নিষিদ্ধ।

গাজা উপত্যকা[সম্পাদনা]

ইন্টারনেট ছাকন বা ফিল্টারিং ব্যবস্থা প্রনয়ন।[৪১][৪২]

লেবানন[সম্পাদনা]

কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।[৪৩]

সৌদি আরব[সম্পাদনা]

কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং ইন্টারনেটভিত্তিক সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটসমূহ প্রবেশের অযোগ্যকরণ।[৪৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Kongdan Oh (নভেম্বর ১৬, ২০০৯)। The hidden people of North Korea: everyday life in the hermit kingdom। Rowman & Littlefield Publishers। পৃ: ১৫৩। আইএসবিএন 0-7425-6718-4। সংগৃহীত ২০১২-০১-২০ 
  2. N.Korean Military's Morale 'Weakening' , The Chosun Ilbo, 6 July 2011
  3. Kwon (권), Hye-jin (혜진) (২০১২-০৭-৩০)। Yonhap News (Korean ভাষায়) http://www.yonhapnews.co.kr/bulletin/2012/07/30/0200000000AKR20120730074200017.HTML |url= শিরোনাম অনুপস্থিত (সাহায্য)। সংগৃহীত ২০১২-০৯-০২ 
  4. "China creates stern Internet, e-mail rules"USA Today (www.usatoday.com)। ২০০২-০১-১৮। সংগৃহীত ২০০৮-০১-০১ 
  5. Richardson, Tim (২০০৪-০৮-১৬)। "China jails woman in porn crackdown"। The Register (www.theregister.co.uk)। সংগৃহীত ২০০৮-০১-০১ 
  6. http://www.asianlii.org/cn/legis/cen/laws/clotproc361/ Articles 152 and 363 to 367.
  7. "Control of Obscene and Indecent Articles Ordinance"। সংগৃহীত ২০০৬-০৮-২৬ 
  8. Bornoff, Nicholas (১৯৯৪) [১৯৯১]। "18 (Naked Dissent)"। Pink Samurai: An Erotic Exploration of Japanese Society; The Pursuit and Politics of Sex in Japan (Paperback সংস্করণ)। London: HarperCollins। পৃ: ৬০২। আইএসবিএন 0-586-20576-4 
  9. Sharp, Jasper। "Tetsuji Takechi: Erotic Nightmares"midnighteye.com। সংগৃহীত ২০০৭-০৪-১৯ 
  10. Domenig, Roland (২০০২)। "Vital flesh: the mysterious world of Pink Eiga"আসল থেকে ২০০৪-১১-১৮-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৭-০৪-১৯। "Since the mid-1960s, pink eiga have been the biggest Japanese film genre... By the late 1970s the production of pink eiga together with Roman Porno amounted to more than 70% of annual Japanese film production." 
  11. Domenig, Roland (২০০২)। "Vital flesh: the mysterious world of Pink Eiga"আসল থেকে ২০০৪-১১-১৮-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৭-০৪-১৯। "The term pink eiga was first coined in 1963 by journalist Murai Minoru. But it did not come into general use until the late 1960s. In the early years the films were known as 'eroduction films' (erodakushon eiga) or 'three-million-yen-films' (sanbyakuman eiga)." 
  12. Connell, Ryann (মার্চ ২, ২০০৬)। "Japan's former Pink Princess trades raunchy scenes for rural canteen"Mainichi Shimbun। সংগৃহীত ২০০৭-০৪-১৯ [অকার্যকর সংযোগ]
  13. Koizumi, Shinichi (২০০১-১২-০১)। "Porn-star label now a badge of honor for actress"Asahi Shimbunআসল থেকে ২০০১-১২-০৩-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০১০-০১-০২ 
  14. http://dailynews.sina.com/bg/chn/chnpolitics/sinacn/20130108/18184135830.html
  15. Indonesian anti-porn law threatens natives: Penis sheaths to be banned in Papua police crackdown? - News - Bild.de
  16. KEBIJAKAN HUKUM PIDANA DALAM MENANGGULANGI TINDAK PIDANA PERDAGANGAN BAYI - Diponegoro University | Institutional Repository (UNDIP-IR)
  17. Indonesia passes tough new anti-porn laws - ABC News (Australian Broadcasting Corporation)
  18. Vaswani, Karishma (২০১০-০৩-২৫)। "Indonesia upholds anti-porn bill"BBC News 
  19. Times Online - 'Anti-pornography law challenges the penis-gourd wearers of West Papua'
  20. "Malaysia targets mobile phone sex"। BBC। ২০০৫-০৮-২৯। 
  21. "Pornography: Society at Risk"। mentalhealthlibrary.info। সংগৃহীত ২০০৮-০১-০১ 
  22. "The legality of cam porn"। www.philippines-for-men.com। সংগৃহীত ২০০৮-০১-০১ 
  23. Report: Philippines' Porn Industry 8th Largest in the World - PinoyExchange
  24. Media Development Authority of Singapore"MDA — FAQs"Singapore: Media Development Authority of Singapore। সংগৃহীত ২০১০-০৪-০১ 
  25. Media Development Authority of Singapore"MDA — FAQs"Singapore: Media Development Authority of Singapore। সংগৃহীত ২০১০-০৪-১০ 
  26. "Vietnam — Coalition Against Trafficking of Women"। সংগৃহীত ২০০৬-০৮-২৬ [অকার্যকর সংযোগ]
  27. "Sex in Azerbaijan — Ñåêñ â Àçåðáàéäæàíå — Azerb.com"। সংগৃহীত ২০০৬-১০-০৫ 
  28. "Information concerning the questionnaire of the Special Rapporteur on the sale of children, child prostitution and child pornography" (DOC)। আসল থেকে ২০০৭-০১-০৮-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৬-১০-০৫ 
  29. Articles, Times of India (২৫ নভেম্বর ২০১০)। "Merely viewing porn not a crime, rules HC"Times of India। সংগৃহীত ৮ জুলাই ২০১২ 
  30. What's it like shopping for sex toys in India?, rediff.com
  31. Durex is fine, but is India ready for sex toys?, Economic Times
  32. Pornography filters in India have little impact, Computer World, January 14, 2010.
  33. India at war with Internet porn, Asian Times, June 2010.
  34. Watching Porn At Home Is Not A Criminal Offence: Bombay High Court | Indian Law
  35. "Browsing child porn will land you in jail"Times of India। ২০০৯-০২-১৬। সংগৃহীত Feb ১৬, ২০০৯ [অকার্যকর সংযোগ]
  36. Haque, Jahanzaib (১৭ নভেম্বর ২০১১)। "PTA Approved"Express Tribune। সংগৃহীত ১৩ জুন ২০১২ 
  37. "পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১২ ( ২০১২ সনের ৯ নং আইন )"Legislative and Parliamentary Affairs Division Ministry of Law, Justice and Parliamentary Affairs, Bangladesh। bdlaws.minlaw.gov.bd। ৮ মার্চ ২০১২। সংগৃহীত ৩১ জুলাই ২০১৫ 
  38. "Anti-Pornography Law in Bangladesh"। lawyersbangladesh.com। ৩ জানুয়ারি ২০১২। সংগৃহীত ৩১ জুলাই ২০১৫ 
  39. http://www.shossainandassociates.com/index.php?p=view-article&article-pornography-control-act
  40. "Death Penalty For Porn In Iran?"। Cbsnews.com। সংগৃহীত ১২ অক্টোবর ২০১৪ 
  41. AFP: Hamas takes aim at Internet porn in Gaza
  42. "Hamas bans pornographic websites in Gaza Strip"। Reuters। ২০০৮-০৫-১৯। 
  43. "Authorities arrest Syrian-Lebanese porn gang"The Daily Star। সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১১। সংগৃহীত আগস্ট ২৮, ২০১২ 
  44. "Saudis 'defeating' internet porn"BBC News। ২০০০-০৫-১০।