বিষয়বস্তুতে চলুন

ভারতে পর্নোগ্রাফি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পর্নোগ্রাফির আইন বিষয়ক মানচিত্র (এশিয়া):
  ছোটোখাটো কিছু নিষেধাজ্ঞা ছাড়া পর্নোগ্রাফি পুরোপুরি বৈধ
  আংশিকভাবে বৈধ/ বৈধ তবে বড় ধরনের নিষেধাজ্ঞা বিদ্যমান
  অবৈধ
  বৈধ নাকি অবৈধ এরকম কোনো পরিষ্কার আইন নেই
ভারতের একটি স্থানীয় যৌন উত্তেজক ম্যাগাজিন 'ডেবোনায়ার' এর প্রচ্ছদ

ভারতে পর্নোগ্রাফি বেআইনি। পর্ন দেখা এবং নিজের কাছে পর্ন রাখা অপরাধ হিসেবে গণ্য এবং এ সমস্ত জিনিস প্রযোজনা, প্রকাশনা এবং সরবরাহ করাও অবৈধ, এই আইনের প্রয়োগ হিসেবে ভারতে পর্নোগ্রাফিক ওয়েব সাইট ব্লক করে রাখা হয়।[১]

২০১৯ সালে ভারত সরকার জনপ্রিয় পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইটগুলো ব্লক করে রেখেছিলো যাতে মানুষ ওগুলোতে ঢুকতে না পারে, কারণ হিসেবে বলা হয় যে দেহরাদুন শহরে দশম শ্রেণীর এক মেয়েকে তার চেয়ে বয়সে বড় চারজন ছেলে ধর্ষণ করে এবং সেই ছেলেগুলো পর্নাসক্ত ছিলো, উত্তরখণ্ড প্রদেশের উচ্চ বিচারালয় ভারত সরকারের কাছে পরে পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইট ব্লক করার আবেদন জানায় কারণ অনেক আইনজীবীই মনে করেছিলেন যে পর্নোগ্রাফি দেখেই তরুণেরা নারীদের প্রতি লোলুপ দৃষ্টি দেয়।[২][৩]

ইতিহাস

[সম্পাদনা]

ভারতে নগ্ন ছবি সর্বপ্রথম ষাটের দশকে বাজারে ম্যাগাজিন আকারে পাওয়া যেত তবে ওগুলো ছিলো বিদেশী এবং সত্তরের দশক থেকে ভারতীয় স্থানীয় সাময়িকী বের হয় এক্ষেত্রে। প্রাথমিকভাবে এগুলোর ক্রেতা স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছেলেরা হলেও পরে নব্বইয়ের দশকে মেয়েরাও কেনা শুরু করে।[৪]

  • পর্নোগ্রাফিক বিষয়বস্তু বিক্রি করা এবং সরবরাহ করা ভারতের আইনে অবৈধ, ধারা ২৯২ অনুযায়ী এরূপ কর্ম অবৈধ।[৫]
  • আইটি অ্যাক্ট-৬৭বি এবং ধারা ২৯৩ অনুযায়ী কোনো ব্যক্তির কাছে পর্নোগ্রাফি বিক্রি করা দণ্ডনীয় অপরাধ।[৬]
  • ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যাক্ট ২০০০ এর ৬৭বি শাখা অনুযায়ী চাইল্ড পর্নোগ্রাফি কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ।[৭]
  • ধারা ২৯২, ২৯৩ অনুযায়ী পর্নোগ্রাফি তৈরি, প্রকাশ করা এবং সরবরাহ করা অবৈধ কাজ।[৮]
  • ২০২১ সালের আইটি অ্যাক্ট অ্যামেন্ডমেন্ড অনুযায়ী ভারতের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকমিউনিকেশন্স ৬৩টি পর্নোগ্রাফিক ওয়েব সাইট ব্লক করে দেয়।[৯][১০][১১]

আরও দেখুন

[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Rajak, Brajesh (২০১১) [2011]। Pornography Laws: XXX Must not be Tolerated (Paperback সংস্করণ)। Delhi: Universal Law Co.। পৃষ্ঠা 61আইএসবিএন 978-81-7534-999-5 
  2. "Govt says porn sites blocked by Jio, Airtel, and others after 3 court orders, hints watching porn not illegal"indiatoday.in। ২৫ জুলাই ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  3. "Here is the full list of 827 porn websites blocked by DoT"indianexpress.com। ১৩ নভেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  4. Abraham, L. (2001). Redrawing the Lakshman rekha: Gender differences and cultural constructions in youth sexuality in urban India. South Asia, 24, 133–156.
  5. "Section 292 in The Indian Penal Code"indiankanoon.org। ১৮ এপ্রিল ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  6. "Section 293 in The Indian Penal Code"indiankanoon.org। ২৪ মে ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ 
  7. "Central Government Act: Section 67 [B] in The Information Technology Act, 2000"Indian Kanoon। ৭ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুলাই ২০১৮ 
  8. Rajak, Brajesh (২০১১)। Pornography Laws: XXX Must not be Tolerated. In order to curb this Jio has blocked around 827 pornographic sites in Oct 2018. (Paperback সংস্করণ)। Delhi: Universal Law Co.। পৃষ্ঠা 61আইএসবিএন 978-81-7534-999-5  অজানা প্যারামিটার |orig-date= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  9. "857 porn sites banned in India; Govt plans ombudsman for Net content"FE Tech Bytes (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২১-১২-২৭। ২৮ মে ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৮ 
  10. "Here is the full list of 827 porn websites blocked by DoT"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-১০-২৯। ২৯ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৮ 
  11. "63 porn sites banned by the govt; check full list of names"Business Today (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০৯-৩০। ২৮ মে ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-০৫-২৮ 

বহিঃসংযোগ

[সম্পাদনা]