ইসিক বিশ্ববিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইসিক বিশ্ববিদ্যালয়
Iu logo-mavi.png
ধরনবেসরকারী
স্থাপিত১৯৯৬[১]
সভাপতিপ্রফেসর ড.শিরিন টেকানয়া
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
৬৫০
স্নাতক৬৬১০
স্নাতকোত্তর৮৫০
অবস্থান, ,
শিক্ষাঙ্গনশিলি ক্যাম্পাস
খেলাধুলাইসিক ক্রীড়া ক্লাব-৪ , ক্রীড়া টিম
অধিভুক্তিইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয় এসোসিয়েশন
ওয়েবসাইট[১]

ইসিক বিশ্ববিদ্যালয় (তুর্কি ভাষা: Işık Üniversitesi) তুরস্কের ইস্তানবুলে অবস্থিত একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি (ফিজিয়ে স্কুল ফাউন্ডেশন ইসিক স্কুল) ফিজে-ই মেকতেপলারি ভাকফি ইসিক ওকুলারের একটি অংশ, যেটি ১৮৮৫ সালের ১৪ ডিসেম্বর তারিখে স্যালোনিকা শহরে ফেজে-ই সাবিয়ান স্কুল কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল (বর্তমানে থেসালোনিকি)। ইসিক বিশ্ববিদ্যালয় তুরস্কে স্টিমের (STEAM) (বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল, কলা, গণিত) প্রথম প্রতিনিধি।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

(ফিজিয়ে স্কুল ফাউন্ডেশন ইসিক স্কুল) ফেজিয়ে মেকতেপলারি ভাকফি ইসিক ওকুলারের ইতিহাস ১৮৮৫ সালে ১৪ ডিসেম্বর তারিখে স্যালোনিকা শহরে ফিজ-ই সাবিয়ান স্কুল প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল। পরবর্তীকালে এটি সেমোনী এফেন্দি স্কুলসহ স্যালোনিকাতে অতিরিক্ত স্কুল প্রতিষ্ঠা করে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক তুর্কি প্রজাতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা মোস্তফা কামাল আতাতুর্ক পড়াশুনা করেছেন।

বালকান যুদ্ধের পরে, যখন শহরটি গ্রিসের অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল, তখন প্রতিষ্ঠানটি ইস্তাম্বুলের নিনতা ন্যাসিয়ে সুলতান ম্যানশনে স্থানান্তরিত হয়েছিল। ১৯৩৫ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চাশতম বার্ষিকীর সময় মোস্তফা কামাল আতাতুর্ক এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নামটি "ফেজিয়ে" থেকে "ইসিক" (যার অর্থ তুর্কি ভাষায় "আলো") করা হয়েছিল। ১৯৮৬ সালে, ফাউন্ডেশনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য, মাসলাক ক্যাম্পাসটি তৈরি সম্পূর্ণ করে।

১৯৯৫–৯৬ শিক্ষাবর্ষের শুরুতে ইসিক বিশ্ববিদ্যালয়টি মাসলাক ক্যাম্পাসে কার্যক্রম শুরু করে।

ফিজে-ই স্কুল ফাউন্ডেশন এখন প্রাক স্কুল থেকে স্নাতক স্তরের পাঠদান করে থাকে।

ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

বিস্তৃত দৃশ্য ক্যাম্পাসের
ক্লাশ রুম ও অডিটোরিয়াম .
ছাত্রাবাস
বিজ্ঞান ভবন

ইসিক বিশ্ববিদ্যালয় দুটি ক্যাম্পাসের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে থাকে। মাসলাক ক্যাম্পাসটি ইস্তাম্বুলের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত, শিলি ক্যাম্পাসটি ইস্তাম্বুলের শহর হতে ৫০ কিলোমিটার (৩১ মাইল) দূরে অবস্থিত। এটি ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। শিলি ক্যাম্পাসটি ৬০০ একর (২.৪ কিমি) জমির উপর অবস্থিত। এটিকে সম্পূর্ণরুপে "শিক্ষামূলক ক্যাম্পাস" হিসাবে পরিকল্পনা করা হয়েছে। এখানে রয়েছে ছাত্রাবাস, সামাজিক সুবিধা এবং শিক্ষামূলক এবং প্রশাসনিক ভবন। ২০০৫ সালের গ্রীষ্মে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশিরভাগ একাডেমিক এবং প্রশাসনিক বিভাগ (রেক্টরসহ) শিলি ক্যাম্পাসে স্থানান্তর করা হয়। তিনটি অনুষদ (প্রকৌশল অনুষদ, কলা ও বিজ্ঞান অনুষদ, অর্থনৈতিক ও প্রশাসনিক বিজ্ঞান অনুষদ) এবং দুটি ইনস্টিটিউট (বিজ্ঞান ও প্রকৌশল ইনস্টিটিউট এবং সামাজিক বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট) শিলি ক্যাম্পাসে অবস্থিত, কিন্তু চারুকলা অনুষদ মাসলাকেই অবস্থান করে।

অনুষদ[সম্পাদনা]

ইসিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫টি বিভাগ ও দুটি ইনস্টিটিউট রয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন[সম্পাদনা]

ইসিক বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি, প্রোভাস্টস এবং বিভিন্ন অনুষদের ডিন ট্রাস্টি বোর্ড দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।

বিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ, ইনস্টিটিউট ও বিভাগসমূহ:

  • ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ:
    • কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং
    • ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং
    • ইন্ডাস্টিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং
    • ম্যাকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং
    • ম্যাথম্যাটিকস ইঞ্জিনিয়ারিং
    • সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং
    • সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং
  • বিজ্ঞান ও কলা অনুষদ:
    • ম্যাথমেটিকস
    • ম্যাথম্যাটিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং
    • পদার্থ
    • তথ্য প্রযুক্তি
    • ম্যানেজমেন্ট ইনফরম্যাশন সিস্টেম
    • হিউমিনেটি এন্ড সামাজিক বিজ্ঞান
  • অর্থনীতি ও প্রশাসনিক বিজ্ঞান অনুষদ:
    • ব্যবস্থাপনা
    • আর্ন্তজাতিক ট্রেড
    • অর্থনীতি
    • রাস্ট্রবিজ্ঞান
    • আন্তর্জাতিক সম্পর্ক
  • চারুকলা অনুষদ:
    • গ্রাফিক আর্ট এবং গ্রাফিকাল ডিজাইন
    • ভিস্যুয়াল আর্ট
    • আর্কিটেকচার
    • ইন্ডাস্টিয়াল এন্ড ইন্ডাস্টিয়াল প্রোডাক্ট ডিজাইন
    • ফ্যাশন এন্ড টেক্সটাইল ডিজাইন
  • বিজ্ঞান ও ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ:
    • কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম (এম.এস, পি এইচ ডি)
    • ইলেক্সটনিক ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম (এম.এ., পি এইচ ডি.)
    • ম্যাথম্যাটিকস প্রোগ্রাম (এম.এস., পি এইচ ডি.)
    • ইনফরমেশন টেকনোলোজি প্রোগ্রাম (এম.এস.)
    • পদার্থ প্রগ্রাম (এম.এস.)
  • সামাজিক বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট:
    • ব্যাবস্থাপনা প্রোগ্রাম (এম.এ.)
    • ব্যাবস্থাপনা ইনফরমেশন সিস্টেম প্রোগ্রাম (এম.এস.)
    • মধ্য প্রাচ্য স্টাডিজ প্রোগ্রাম (এম.এ.)
    • সমকালিন ব্যাবসা প্রশাসন প্রোগ্রাম (পি এইচ ডি.)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Isik Üniversitesi"topuniversities.com (ইংরেজি ভাষায়)। topuniversities। সংগ্রহের তারিখ ২৩ নভেম্বর ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]