ইয়ার মোহাম্মদ খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইয়ার মোহাম্মদ খান
জন্মসেপ্টেম্বর ৯, ১৯২০
রায় সাহেব বাজার, ঢাকা, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যুআগস্ট ২৯, ১৯৮১
সমাধিরায় সাহেব বাজার পারিবারিক কবরস্থান, ঢাকা
জাতীয়তা বাংলাদেশ
পেশারাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগদৈনিক ইত্তেফাক এর প্রতিষ্ঠাতা
দাম্পত্য সঙ্গীমরহুমা বেগম জাহানারা খান

ইয়ার মোহাম্মদ খান (সেপ্টেম্বর ৯, ১৯২০ –আগস্ট ২৯, ১৯৮১) ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতাদের একজন।[১][২][৩][৪] ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা কোষাধ্যক্ষ[৫]। তার বাসভবন, ১৮ কার্কুন বারী লেন, ঢাকা ছিলো আওয়ামী লীগের প্রথম দলীয় কার্যালয় ছিল এবং প্রথম কয়েক বছরের জন্য দলীয় কার্যালয় ছিল এটি।[৬] তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে একটি জিপ দান করেন এবং দ্য ডেইলি ইত্তেফাক পত্রিকাটি দলীয় কাজের জন্য দান করেন এবং এটি তার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে করা যা প্রাথমিক পর্যায়ে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী ও জোরদার করতে সহায়তা করেছিল, যা দলের অবস্থানকে আরো শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে অবদান রেখেছিল এবং অবশেষে এটি পশ্চিম পাকিস্তানি শাসনের বিরুদ্ধে স্বাধীনতার সংগ্রামের নেতৃত্বে প্রধান রাজনৈতিক দল হিসেবে মূখ্য ভূমিকা নেয়।

অসমাপ্ত আত্মজীবনী[সম্পাদনা]

শেখ মুজিবুর রহমান তার আত্মজীবনী অসমাপ্ত আত্মজীবনীতে ইয়ার মোহাম্মদ খানের মত বিশিষ্ট নেতাদের সম্পর্কে তার মতামত প্রকাশ করেছেন। ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত আওয়ামী মুসলিম লীগের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম ছিলেন ইয়ার মোহাম্মদ খান। আপনার জীবনী, অসম্পূর্ণ স্মৃতিসৌধে শেখ সাহেবের কথায় ঐতিহাসিক রচনা হিসাবে উপস্থাপনা করে। [৬] নিম্নলিখিত স্ক্রিপ্ট শেখ মুজিবুর রহমান লিখেছেন। [৭]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

আওয়ামী মুসলিম লীগের গঠন[সম্পাদনা]

ঢাকায় আওয়ামী লীগের প্রথম পার্টি অফিস[সম্পাদনা]

তৎকালীন রোজ গার্ডেন[সম্পাদনা]

কারকুন বারী লেন[সম্পাদনা]

আরমানিটোলা, ঢাকায় আওয়ামী মুসলিম লীগের মিটিংয়ে সভাপতিত্ব[সম্পাদনা]

আওয়ামী লীগের আয়োজনে শেখ মুজিবুর রহমানকে সহায়তা প্রদান[সম্পাদনা]

ইউনাইটেড ফ্রন্ট[সম্পাদনা]

পূর্ববাংলা আইন পরিষদের সদস্য[সম্পাদনা]

শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবকে কারাগারের ফটকে আনা[সম্পাদনা]

আওয়ামী লীগের প্রথম জাতীয় সম্মেলন[সম্পাদনা]

নতুন জীবন শুরু[সম্পাদনা]

দৈনিক ইত্তেফাক[সম্পাদনা]

শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ড[সম্পাদনা]

অর্জন কৃতজ্ঞতা[সম্পাদনা]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৮১ সালের ২৯ আগস্ট ভারতের ভেলোরে মাদ্রাজের সিএমসি হাসপাতালে হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে, পাঁচ মেয়ে, একাধিক আত্মীয় ও গুণগ্রাহী রেখে যান।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Nair, M. Bhaskaran (১৯৯০)। Politics in Bangladesh: A Study of Awami League, 1949-58। Northern Book Centre। আইএসবিএন 978-81-85119-79-3 
  2. Nair, M. Bhaskaran (১৯৯০)। Politics in Bangladesh: A Study of Awami League, 1949-58। Northern Book Centre। পৃষ্ঠা 58। আইএসবিএন 8185119791। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জুলাই ২০১৮ 
  3. Ullāha, Māhaphuja (২০০২)। Press Under Mujib Regime। Kakali Prokashani। আইএসবিএন 978-984-437-289-4 
  4. Nair, M. Bhaskaran (১৯৯০)। Politics in Bangladesh: A Study of Awami League, 1949-59। Northern Book Centre। পৃষ্ঠা 59। আইএসবিএন 8185119791। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জুলাই ২০১৮ 
  5. Harun-or-Rashid Rahman (২০১২)। "Bangladesh Awami League"Banglapedia: National Encyclopedia of Bangladesh (Second সংস্করণ)। Asiatic Society of Bangladesh 
  6. "The Unfinished Memoirs"। Penguin Books India। সংগ্রহের তারিখ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  7. https://view.publitas.com/liberationwarbangladesh/the-unfinished-memoirs-sheikh-mujibur-rahman/page/238