ইয়ান সিনক্লেয়ার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইয়ান সিনক্লেয়ার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামইয়ান ম্যাকে সিনক্লেয়ার
জন্ম (1933-06-01) ১ জুন ১৯৩৩ (বয়স ৮৬)
র‍্যাঙ্গিওরা, ক্যান্টারবারি, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ স্পিন
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৭৯)
১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৫৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট৩ মার্চ ১৯৫৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৫৩ - ১৯৫৭ক্যান্টারবারি
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৫
রানের সংখ্যা ২৫ ২৬৪
ব্যাটিং গড় ৮.৩৩ ১৪.৬৬
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১৮* ৪০
বল করেছে ২৩৩ ২৮৫৩
উইকেট ৪১
বোলিং গড় ১২০.০০ ২৭.৩৪
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/৭৯ ৫/৫৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/- ১৬/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৭ জুলাই ২০১৯

ইয়ান ম্যাকে সিনক্লেয়ার (ইংরেজি: Ian Sinclair; জন্ম: ১ জুন, ১৯৩৩) র‍্যাঙ্গিওরা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ও সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১][২][৩] নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৬ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে ক্যান্টারবারি দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি অফ স্পিন বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে বামহাতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী উপস্থাপন করতেন ইয়ান সিনক্লেয়ার

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

র‍্যাঙ্গিওরা হাইস্কুলে অধ্যয়ন করেছিলেন তিনি। ১৯৫৩-৫৪ মৌসুম থেকে ১৯৫৬-৫৭ মৌসুম পর্যন্ত ইয়ান সিনক্লেয়ারের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। তিনটি পূর্ণাঙ্গ মৌসুমে মাত্র ১৫টি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন। তন্মধ্যে, অর্ধেকেরও বেশি ছিল ক্রাইস্টচার্চে। এ খেলাগুলোয় দুইটি টেস্টও রয়েছে ১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টসের বিপক্ষে সুন্দর খেলা প্রদর্শনের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশের বিপক্ষে ৪/৭৩ বোলিং পরিসংখ্যান গড়ার পর টেস্ট খেলার জন্যে তাকে মনোনীত করা হয়েছিল।

অফ স্পিনার ও কার্যকরী নিচেরসারির ব্যাটসম্যানের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন তিনি। ১৯৫৩-৫৪ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড দলের সদস্যরূপে ম্যাট পুর বিদেশ গমন করলে ক্যান্টারবারির পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। পাঁচ খেলায় অংশ নিয়ে ১৫.৪২ গড়ে ১০৮ রান ও ৪১.৭০ গড়ে ১০ উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। মাঝারিমানের সফলতা লাভের কারণে ১৯৫৪-৫৫ মৌসুমে কোন খেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাননি তিনি।

১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে আবারো ম্যাট পুরের ভারত ও পাকিস্তানে গমন এবং টম বার্টের অবসর গ্রহণের ফলে ইয়ান সিনক্লেয়ার ক্যান্টারবারির প্রধান স্পিন বোলারে পরিণত হন। প্লাঙ্কেট শীল্ডে মৌসুমের প্রথম খেলায় ওতাগোর বিপক্ষে খেলে ১/৫০ ও ৪/১৭ লাভ করেন। অকল্যান্ডের বিপক্ষে পরের খেলায় নিজস্ব ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৪০ রান তুলেন। ওয়েলিংটনের বিপক্ষে ৪/৩৬ ও ০/৭৪ এবং সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টসের বিপক্ষে ৫/৬৫ ও ১/৭৩ পান। এ চারটি খেলার সবকটিতেই ক্যান্টারবারি জয় পেয়েছিল। পাশাপাশি প্রতিযোগিতার শিরোপা জয় করে ক্যান্টারবারি দল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন ইয়ান সিনক্লেয়ার। ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৯৫৬ তারিখে ক্রাইস্টচার্চে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ৩ মার্চ, ১৯৫৬ তারিখে ওয়েলিংটনে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

উভয় টেস্টেই স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড দল শোচনীয়ভাবে পরাভূত হয়। এভারটন উইকস ১৫৬ মিনিটে ১৬টি চারের মারে ১০৩ রান তুলে ইয়ান সিনক্লেয়ারের বলে বোল্ড হন। এটিই সিনক্লেয়ারের খেলোয়াড়ী জীবনের একমাত্র উইকেট ছিল। ঐ খেলায় তার দল ইনিংস ও ৬৪ রানে পরাজিত হয়ে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে যায়।[৪]

পরের মৌসুমে আরও তিনটি খেলায় অংশ নিলেও সীমিত আকারের সফলতা পেয়েছিলেন। এ পর্যায়ে মাত্র চার উইকেট পান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of New Zealand Test Cricketers
  2. "New Zealand Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১৯ 
  3. "New Zealand Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১৯ 
  4. "West Indies in New Zealand (1955 – 1956): Scorecard of second Test"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৭, ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]