ইয়ান উইলমুট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্যার ইয়ান উইলমুট
জন্ম (1944-07-07) ৭ জুলাই ১৯৪৪ (বয়স ৭৫)[১]
হ্যাম্পটন লুসি, ইংল্যান্ড
বাসস্থানএডিনবরা, স্কটল্যান্ড
জাতীয়তাইংরেজ
কর্মক্ষেত্রভ্রুণতত্ত্ববিদ্যা
প্রতিষ্ঠানদ্য রোজলিন ইনস্টিটিউট
প্রাক্তন ছাত্রনটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়
ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়
সন্দর্ভসমূহদ্য প্রিজারভেশন অব বোর সেমেন (১৯৭১)
পিএইচডি উপদেষ্টাক্রিস্টোফার পোলগ
পরিচিতির কারণক্লোনিং ভেড়া
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
ওবিই, এফআরএস, এফমেডসাই, এফআরএসই, ১৯৯৭ টাইম ম্যান অব দি ইয়ার রানার আপ[২]

স্যার ইয়ান উইলমুট, ওবিই, এফআরএস, এফমেডসাই, এফআরএসই[৩] (ইংরেজি: Ian Wilmut; জন্ম: ৭ জুলাই, ১৯৪৪) ইংরেজ ভ্রুণতত্ত্ব বিজ্ঞানী এবং এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ের[৪] স্কটিশ সেন্টার ফর রিজেনারেটিভ মেডিসিন বিভাগের সভাপতি।[৫] তিনি ১৯৯৬ সালে একদল গবেষক নিয়ে প্রথমবারের মতো সোমাটিক সেল দিয়ে পূর্ণাঙ্গ ক্লোন স্তন্যপায়ী ভেড়া ডলি সৃষ্টির প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন।[৬][৭][৮][৯]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

উইলমুট ওয়ারউইকশায়্যারের হ্যাম্পটন লুসি এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন।[১০] লিওনার্দ উইলমুট ছিলেন তার বাবা। গণিতের শিক্ষক হিসেবে লিওনার্দ পঞ্চাশ বছর ডায়াবেটিস রোগে ভোগে অন্ধ হয়ে যান।[১১] নর্থ ইয়র্কশায়্যারের স্কারবরা বয়েজ হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন। সেখানে তার বাবা তাকে পড়াতেন।[১২] নৌবাহিনীতে চাকুরী করার প্রবল ইচ্ছে পোষণ করেছিলেন উইলমুট। কিন্তু বর্ণান্ধতাজনিত কারণে তা হয়ে উঠেনি।[১৩] বিদ্যালয়ের ছাত্র হিসেবে সপ্তাহ শেষে খামারে কাজ করতেন। এভাবেই তিনি কৃষি শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন।[১২][১৪]

১৯৬৬ সালে উইলমুট ক্রিস্টোফার পোলজের গবেষণাগারে সময় ব্যয় করেন। পরের বছর পিএইচডি ডিগ্রী অর্জনের লক্ষ্যে গবেষণাগারে যোগ দেন। সেখানে ১৯৭১ সালে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন।[১৫] রোজলিন ইনস্টিটিউটে ভ্রুণতত্ত্বে কাজ করেন।[১২] ১৯৯৮ সালে লর্ড লয়েড অব কিলগেরান পুরস্কারে ভূষিত হন।

সম্মাননা[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালে ভ্রুণ গবেষণার উন্নয়নে অবদান রাখায় তাকে ওবিই পদকে ভূষিত করা হয়।[১৬] ২০০৭ সালের ডিসেম্বর মাসে নতুন বছরের সম্মাননায় ২০০৮ সালে উইলমুটকে নাইট পদক প্রদানের কথা ঘোষণা করা হয়েছিল।[১৭]

এছাড়াও, ১৯৯৭ সালে টাইম ম্যাগাজিনের পক্ষ থেকে 'ম্যান অব দি ইয়ার রানার আপ' নির্বাচিত হন উইলমুট।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Ian Wilmut". World of Genetics. Gale. 2006. Gale Document Number: GALE|K2433100254. Retrieved 18 November 2011.
  2. Nash, Madeleine (২৯ ডিসেম্বর ১৯৯৭)। "Dr Ian Wilmut...and Dolly"Time। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  3. "Professor Sir Ian Wilmut FRS FMedSci FRSE | Royal Society"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১১ 
  4. "Redirecting Cell Fate, Group leader: Ian Wilmut FRS, FRSE"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুলাই ২০১১ 
  5. "Scottish Centre for Regenerative Medicine"। ২২ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  6. দৃষ্টি আকর্ষণ: এই টেমপ্লেটি ({{cite doi}}) অবচিত। doi দ্বারা চিহ্নিত প্রকাশনা উদ্ধৃত করার জন্য:10.1038/380064a0, এর পরিবর্তে দয়া করে |doi=10.1038/380064a0 সহ {{সাময়িকী উদ্ধৃতি}} ব্যবহার করুন।
  7. দৃষ্টি আকর্ষণ: এই টেমপ্লেটি ({{cite doi}}) অবচিত। doi দ্বারা চিহ্নিত প্রকাশনা উদ্ধৃত করার জন্য:10.1126/science.278.5346.2130, এর পরিবর্তে দয়া করে |doi=10.1126/science.278.5346.2130 সহ {{সাময়িকী উদ্ধৃতি}} ব্যবহার করুন।
  8. "The Third Culture: Ian Wilmut"Edge.org। ১৩ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  9. দৃষ্টি আকর্ষণ: এই টেমপ্লেটি ({{cite doi}}) অবচিত। doi দ্বারা চিহ্নিত প্রকাশনা উদ্ধৃত করার জন্য:10.1038/421776a, এর পরিবর্তে দয়া করে |doi=10.1038/421776a সহ {{সাময়িকী উদ্ধৃতি}} ব্যবহার করুন।
  10. "Biographical Notes"The Shaw Prize। ৯ সেপ্টেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  11. "Autobiography of Sir Ian Wilmut"The Shaw Prize। ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  12. "Dolly the sheep creator knighted"। BBC। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  13. "Ian Wilmut Interview: Pioneer of Cloning"Academy of Achievement। ২৩ মে ১৯৯৮। ২৩ মার্চ ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  14. Wilmut, Ian (১৯৭১)। The preservation of boar semen (গবেষণাপত্র)। University of Cambridge। 
  15. "Times Higher Education: Queen's Birthday Honours"Times Higher Education। ১৮ জুন ১৯৯৯। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 
  16. "Dolly creator heads Scots honours"BBC News। BBC। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]