আলাপ:২০২১ বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

শিরোনাম পরিবর্তন[সম্পাদনা]

পূর্বের শিরোনামটিই অধিক যুক্তিযুক্ত ছিল। কেননা, এই নিবন্ধনটিতে দূর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সহিংসতাকেই শুধুমাত্র উল্লেখ করা হয়েছে।— Robin shaha (আলাপঅবদান) এই স্বাক্ষরহীন মন্তব্যটি যোগ করেছেন।

সহিংসতার ঘটনা কেবল দুর্গাপূজা নিয়ে সৃষ্টি হয়নি। কুরআন অবমাননার কারণেই সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি হয়েছে। এরই সূত্র ধরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতিমা ভাংচুর, মন্দিরে হামলা, হিন্দুদের পক্ষ থেকে হরতাল ও আন্দোলন একইভাবে মুসলিমদের পক্ষ থেকেও বিক্ষোভ মিছিলসহ বিভিন্ন ঘটনা ঘটেছে। তাই নিবন্ধটি শুধু মন্দির ভাংচুরকে কেন্দ্র করে নয়। সেজন্য ইংরেজি উইকিপিডিয়ার শিরোনাম অনুসারে ২০২১ বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা শিরোনামে স্থানান্তর করা হয়েছে। আল রিয়াজ উদ্দীন (আলাপ) ১৫:৪২, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]
হিন্দুদের পক্ষ থেকে হরতাল ও আন্দোলন এর কথা উল্লেখ করেছেন। তবে এখনো পর্যন্ত হরতাল ও আন্দোলনে হিন্দুদের পক্ষ থেকে করা কোন প্রকার সহিংসতার তথ্য আমার জানা নেই। আর "কুরআন অবমাননার কারণেই সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি হয়েছে", কিন্তু এই অবমাননা কে বা কারা করেছে তা এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি। কিন্তু কিছু মুসলিম সহিংসতা শুরু করেছে হিন্দুদের দুর্গা পূজা ও মন্দির লক্ষ্য করে। আর সহিংসতার লক্ষ্যে প্রথম থেকেই মণ্ডপ ও দুর্গা প্রতিমা (মূর্তি) এবং মন্দির ভাঙচুর রয়েছে। এর পরে বাংলাদেশের বিভিন্ন অংশে দ্রুত দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর ও সহিংসতার ঘটনা ঘটে। সহিংসতার বড় অংশ জুড়ে রয়েছে দুর্গা প্রতিমা ভাঙচুর। এই জন্য নিবন্ধের শিরোনাম "২০২১ বাংলাদেশে দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর ও সহিংসতা" রেখেছিলাম। -- খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ১৯:০৯, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]

নিবন্ধ থেকে তথ্যছক অপসারণ[সম্পাদনা]

@ANKAN: নিবন্ধ থেকে তথ্যছক মুছে দেওয়া বা অপসারণের কারণ বুঝতে পারলাম না। যদি অপসারণের কারণ সম্পর্কে জানান তো উপকৃত হই। -- খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ১৮:১৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]

নিবন্ধটির নিরপেক্ষতা নিয়ে বিতর্ক[সম্পাদনা]

@Al Riaz Uddin Ripon: আজ নিবন্ধের তথ্যের নিরপেক্ষতা নিয়ে সংশয় সৃষ্টির বিষয়ে অবগত হয়েছি। আমি নিবন্ধটির তথ্যে নিরপেক্ষতা ফিরিয়ে আনতে চাই। যদি আপনি নিবন্ধের "বিতর্কিত বা নিরপেক্ষ নয়" এমন অংশ চিহ্নিত করে উপস্থাপন করেন, তা হলে আমি সেগুলি সঠিক তথ্যের সাথে সংশোধন করা চেষ্টা করতে পারি। এছাড়া কোন বিতর্কিত অনুচ্ছেদ চিহ্নিত করা সম্ভব হলে জানান, আমি সেই অনুচ্ছেদ সংশোধনের কাজে নিয়োজিত হতে চাই। -- খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ১৮:৩৯, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]

  • আমি পুরোটা পড়ার সময় পাই নি। যা পড়েছি তা থেকে দুয়েকটি পয়েন্ট-
    • ‘চরমপন্থী গোষ্ঠী’ শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করা হয়েছে। অথচ, এই হামলার ঘটনা কোনো নির্দিষ্ট গোষ্ঠী (রাজনৈতিক বা অরাজনৈতিক) কর্তৃক ঘটে নাই। এই ঘটনা একদমই সাধারণ কিছু মানুষ ঘটিয়েছে। আরও কিছু শব্দ (যা সম্ভবত লেখকদের ব্যক্তিগত সংযোজন) ব্যবহার নিয়ে আমার আপত্তি আছে, যা তথ্যসূত্রে নেই।
    • মন্দিরে হামলা ও প্রতিমা ভাঙচুর ছাড়াও পক্ষে বিপক্ষে আন্দোলন, পুলিশের গুলি, কোন পক্ষের কতোজন নিহত, মিডিয়ায় প্রকাশিত বাংলাদেশিদের প্রতিক্রিয়া, আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া ইত্যাদি সংযোজন করলে নিবন্ধের মান বৃদ্ধি পাবে।
    • আমি যতোদূর জানি, উইকিপিডিয়া ব্লগ বা মতামতধর্মী নিবন্ধকে তথ্যসূত্র হিসেবে গ্রহণ করে না। এই নিবন্ধে opindia নামক সাইটকে সূত্র হিসেবে ব্যবহার করে ধর্ষণের মতো অভিযোগ করা হয়েছে। এরকম কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে অবশ্যই নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র দেয়া প্রয়োজন।
    • আরও কিছু ভারতীয় সূত্রকে আমার কাছে অনির্ভরযোগ্য মনে হয়েছে।— ইয়াহিয়া (আলাপঅবদান) - ১৯:৩১, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]

@Yahya: আপনার অনুসন্ধানের জন্য ধন্যবাদ। আমি নিবন্ধটিতে "অনিরপেক্ষ শব্দ বা শব্দগুচ্ছ" সমূহ সংশোধনের কাজ অবশ্যই করব। ... কিন্তু বারবার অনির্ভর যোগ্য তথ্য যোগ হতে থাকলে, নিবন্ধটি সুরক্ষিত করা যেতে পারে। -- খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ২০:৩৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]

@Yahya: "আরও কিছু ভারতীয় সূত্রকে আমার কাছে অনির্ভরযোগ্য মনে হয়েছে" - ভারতীয় সূত্রসমূহের নাম উল্লেখ করলে নিবন্ধ সংশোধনে সুবিধা হয়। --খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ২০:৫০, ১৮ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]
@খাঁ শুভেন্দু: আপনার আগ্রহের জন্য ধন্যবাদ, অনলাইনে না থাকায় দেরিতে উত্তর দিতে হচ্ছে। যদিও, বেশকিছু পয়েন্ট ইয়াহিয়া ভাই উল্লেখ করেছেন, সাথে আমি আরও কিছু যোগ করতে চাই। নিবন্ধটি গতকালই আমার নজরে আসে সেখানে দেখা যায় কুরআন অবমাননার বিষয়টাকে উৎস ছাড়াই কেউ গুজব লিখতেছে অথচ এটা নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হয়েছে আপনি আশা করি অবগত আছেন। নিবন্ধের বিভিন্ন জায়গায় দেখতেছি একবার উগ্রবাদী মুসলিম, একবার চরমপন্থী গোষ্ঠী, চরমপন্থী সন্ত্রাসসহ বেশকিছু শব্দ ব্যবহার করেছে। এছাড়াও, বাংলাদেশ ও ভারতের বেশকিছু পত্রিকাকে অনির্ভরযোগ্য মনে হয়েছে যেমন: eastmojo, newsbangla24, asianetnews, hinduvoice, opindia, sirfnews, khaskhobor, indiarag, sylhetvoice, eyenewsbd,এসবের সূত্র ব্যবহার করে ভুল তথ্যও যোগ করা হচ্ছে। তাই জাতীয়, আন্তর্জাতিক ও নির্ভরযোগ্য পত্রিকা থেকে সূত্র যোগ করার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ — আল রিয়াজ উদ্দীন (আলাপ) ০৪:৫৯, ১৯ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]
@Al Riaz Uddin Ripon: সংবাদ মাধ্যমগুলির নাম উল্লেখের জন্য ধন্যবাদ। নিবন্ধটি সম্পূর্ণ সংশোধন করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দেখি কতটা সম্ভব হয়। --খাঁ শুভেন্দু (আলাপ) ১৩:৫৯, ১৯ অক্টোবর ২০২১ (ইউটিসি)[উত্তর দিন]