আলাপ:নজরুলগীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

শ্রেণীবিভাগ অংশটির সমালোচনা[সম্পাদনা]

শ্রেণীবিভাগ অংশটি খুবই অবৈজ্ঞানিকভাবে করা হয়েছে। নজরুলগীতির প্রকৃতি অনুসারে, বিষয়ভিত্তিক ও সুরভিত্তিক পৃথক শ্রেণীবিভাগ করতে হত। "প্রভাতবীণা তব বাজে" গানটি রাগপ্রধান; আবার বিষয় অনুসারে এটি ভক্তিগীতি। আবার "স্নিগ্ধ-শ্যাম-বেণী-বর্ণা" গানটি রাগপ্রধান ও প্রকৃতি-বিষয়ক। এই রকম অজস্র উদাহরণ রয়েছে। ভক্তিগীতির উল্লেখ করা হলেও, ইসলামী গানের উল্লেখ নেই। নেই নজরুলের গজলের উল্লেখ। অথচ নজরুলই এই বাংলায় এই দুই ধারার প্রথম সার্থক গীতিকার। নজরুল লোকগীতি-জাতীয় গানও লিখেছিলেন। অথচ শ্রেণীবিভাগে তার উল্লেখ নেই। তাছাড়া বর্গের উপবর্গগুলি না বললে আলোচনা অসম্পূর্ণ থেকে যায়। রাগপ্রধানে নজরুল ঠুংরি, টপ্পা, ধ্রুপদ ইত্যাদি সুরের ব্যবহার করেছেন। ভক্তিগীতির ক্ষেত্রে করেছেন কীর্তন, রামপ্রসাদী, হিন্দি ভজন ইত্যাদি গানের সুর। এই সবই পৃথক পৃথকভাবে উল্লেখ করা উচিত। --অর্ণব দত্ত (আলাপ) ০৫:৩৯, ৩ জানুয়ারি ২০১১ (ইউটিসি)