আলাপ:জর্জ ডব্লিউ. বুশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ফুলস্টপ[সম্পাদনা]

বাংলা ভাষাতে তো ফুলস্টপ নাই। তাই এখানে ডব্লিউ এর পরে ফুলস্টপ আসলো কোত্থেকে? --রাগিব (আলাপ | অবদান) ০৭:২২, ১৯ জুন ২০০৭ (UTC)

খেয়াল করিনি। ঠিক করে দিন। এ ধরণের সমস্য সম্ভবত আরও অনেক হয়েছে। সব ঠিক করতে হবে। কিন্তু, এই ফুলস্টপ চিহ্ন বাস্তবে প্রচুর ব্যবহৃত হয়। এটাও বন্ধ করা উচিত। -- Muhammad

বাংলাতে নামের ইনিশিয়ালের শেষে পিরিয়ড/ফুলস্টপ ব্যবহারের ব্যাপারে কোন ধরাবাঁধা নিয়ম মনে হয় নেই। কেউ কেউ করেন, কেউ কেউ করেন না। আমরা উইকিপিডিয়াতে যেকোন একটা নিয়ম অনুসরণ করতে পারি। উইকিপিডিয়া:বাংলা বানানের নিয়ম-এ এটা স্থির করে নেয়া যায়। --অর্ণব (আলাপ | অবদান) ১৫:৩২, ১৯ জুন ২০০৭ (UTC)

আমার তো অসুবিধা নাই, কিন্তু পিরিয়ড তো বাংলা যতিচিহ্নের মধ্যে পড়ে না। বাংলাতে অধিকাংশ ব্যক্তি কিছুই ব্যবহার করেন না, যেমন আসম রব, খ ম হারুন, এবিএম মহিউদ্দিন, ইত্যাদি। --রাগিব (আলাপ | অবদান)
আচ্ছা, আমি উইপিডিয়া:বাংলা বিরামচিহ্ন নির্দেশিকা নামের নিবন্ধে এ-সম্পর্কিত সমস্ত কিছু লিপিবদ্ধ করে দিচ্ছি। ওখানে মন্তব্য করুন। --অর্ণব (আলাপ | অবদান) ১৬:৫১, ১৯ জুন ২০০৭ (UTC)
রাগিব ভাইয়ের প্রশটাই তো আবার ঘুরেফিরে এলো???--জয়ন্ত (আলাপ | অবদান) ১৮:৪৯, ১৯ এপ্রিল ২০১০ (UTC)
এ আলোচনাটি চোখে পড়েনি। মার্কিন নাম হিসেবে ফুলস্টপ ছিলো তাই দিয়েছি। এখানে M. A. Sattar ও ASM Abdur Rab লেখা হয়েছে। একটাতে ফুলস্টপ থাকলেও অন্যটাতে নেই। কারণ কেউ ব্যবহার করেন কেউ করেন না। এস.এস.সি. পরীক্ষায় নাম রেজিস্ট্রেশনের সময়ও দেখেছি এই পার্থক্য। কেউ নামের বর্ণের শেষে ফুলস্টপ দেয়, কেউ দেয় না। যেহেতু মার্কিন নাম হিসেবে ফুলস্টপ প্রচলিত তাই এমনটি দিয়েছি। আরো একটি উদাহরণ আসম কিবরিয়ার ইংরেজি নিবন্ধটায় Shah A M S Kibria-ই লেখা হয়েছে। কারণ বাংলাদেশে ইংরেজি বাংলা উভয়ক্ষেত্রে ফুলস্টপ ছাড়াই লিখে অভ্যস্ত। তাই সেখানে ইংরেজি নিয়মে ফুলস্টপ লাগানো হয়নি।
তবে এটা ঠিক যে, জর্জ ডব্লিউ বুশ, বাংলা প্রকাশনায় ফুলস্টপ ছাড়াই প্রচলিত। কিন্তু মূল নাম তা বলে না। আমার মত যাঁর নাম তিনি যেভাবে লিখে পরিচিত সেভাবেই লেখা উচিত। আর মার্কিন নামে মধ্যবর্ণে ফুলস্টপ হয়-ই। — তানভির আলাপ অবদান ০২:৫০, ২০ এপ্রিল ২০১০ (UTC)

সমালোচনা অনুচ্ছেদ সম্পর্কে[সম্পাদনা]

সমালোচনা অনুচ্ছেদে জর্জ ডব্লিউ বুশ সম্পর্কে কয়েকটি অভিযোগ আনা হলেও প্রমাণ বা সূত্র উল্লেখ নেই।
এছাড়া আফগান আক্রমণ বা ওসামাকে গ্রেফতার করতে চাওয়ার বিষয়টা কিভাবে সমালোচ্য তা উল্লেখ নেই।
সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো জর্জ বুশ এখনো জীবিত। বিষয়টা ভেবে দেখা উচিৎ।
---- আ হ ম সাকিব (আলাপ) ১৫:১০, ২৩ আগস্ট ২০১৬ (ইউটিসি)