আর্মেনীয় প্রেরিতীয় মণ্ডলী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

আর্মেনীয় প্রেরিতীয় মণ্ডলী
আর্মেনীয়: Հայ Առաքելական Եկեղեցի
Էջմիածնի Մայր Տաճար.jpg
এচমিয়াৎসিন কাথেদ্রাল, আর্মেনীয় প্রেরিতীয় মণ্ডলীর মাতৃমণ্ডলী
প্রকারভেদপূর্বদেশীয় খ্রীষ্টধর্ম
অভিষেকপ্রাচ্যদেশীয় অর্থডক্স
ধর্মগ্রন্থSeptuagint, নূতন নিয়ম, বাইবেলের আর্মেনীয় সংস্করণ
ধর্মতত্ত্বMiaphysitism
PolityEpiscopal
GovernanceMother See of Holy Etchmiadzin
প্রধানCatholicos of All Armenians Karekin II
Associationsবিশ্ব মণ্ডলী পরিষদ[১]
অঞ্চলআর্মেনীয়, আর্মেনীয় বিস্ফূরণ
ভাষাধ্রুপদী আর্মেনীয়
Liturgyআর্মেনীয় ধর্মাচার
সদর দপ্তরএচমিয়াৎসিন কাথেদ্রাল, Mother See of Holy Etchmiadzin, Vagharshapat, আর্মেনিয়া
প্রতিষ্ঠাতাসন্ত দীপ্তিদাতা গ্রেগরীয়
প্রেরিত বর্থলময়এদেশীয় থদ্দেয়
উৎপত্তিআনু. খ্রীষ্টীয় ১ম শতাব্দী
আর্মেনীয় রাজ্য
Separated fromদ্বীনের দ্বিতীয় পরিষদে কনস্টান্টিনোপলীয় পিতৃকুলপতিত্ব (৫৫৪)[২]
সদস্য৯,০০০,০০০ (আত্মবিবৃত)[৩]
অন্যান্য নামআর্মেনীয় মণ্ডলী
আর্মেনীয় অর্থদক্স মণ্ডলী
ওয়েবসাইটwww.armenianchurch.org
স্বর্গ, একটি আর্মেনীয় পাণ্ডুলিপি থেকে গৃহীত (১৬৯৩)

আর্মেনীয় প্রেরিতীয় মণ্ডলী (আর্মেনীয়: Հայ Առաքելական Եկեղեցի, প্রতিবর্ণী. Hay Aṙak'elakan Yekeghetsi)[note ১] হল আর্মেনীয়দের জাতীয় মণ্ডলী। প্রাচ্যদেশীয় অর্থোদক্সির অন্তর্ভুক্ত এই মণ্ডলীটি অন্যতম প্রাচীন খ্রীষ্টান প্রতিষ্ঠান।[৫] প্রারম্ভিক ৪র্থ শতাব্দীতে আর্সাকীয় রাজবংশের রাজা তৃতীয় তিরিদাতের শাসনাধীন আর্মেনীয় রাজ্য ছিল প্রথম কোনো রাষ্ট্র যেটি খ্রিস্টধর্মকে রাষ্ট্রধর্ম হিসাবে গ্রহণ করেছিল।[৬][৭] ঐতিহ্য মোতাবেক, এই মণ্ডলীটি খ্রীষ্টীয় ১ম শতাব্দীতে প্রেরিত বর্থলময় এবং প্রেরিত এদেশীয় থদ্দেয়ের প্রচারাভিযানের সময় উদ্ভূত হয়েছিল।

এটিকে কখনও কখনও আর্মেনীয় অর্থোডক্স মণ্ডলী বা আর্মেনীয় গ্রেগরীয় মণ্ডলী হিসাবে আখ্যায়িত করা হয়। গ্রেগরীয় মণ্ডলী অবিধাটি স্বয়ং মণ্ডলীটির পছন্দের নয় কেননা এটি প্রেরিত বর্থলময় ও থদেয়কে এর প্রতিষ্ঠাতা গণ্য করে এবং সন্ত দীপ্তিদাতা গ্রেগরীয়কে এর প্রথম দাপ্তরিক অধ্যক্ষ হিসাবে বিবেচনা করে৷ এটি কেবল আর্মেনীয় মণ্ডলী পরিচিত।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. দাপ্তরিকভাবে আর্মেনীয়: Հայաստանեայց Առաքելական Սուրբ Եկեղեցի, প্রতিবর্ণী. Hayastaniayts Aṙak̕elakan Surb Yekeghetsi[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Armenian Apostolic Church (Mother See of Holy Etchmiadzin) and Armenian Apostolic Church (Holy See of Cilicia) in the World Council of Churches
  2. Panossian, Razmik (২০০৬)। The Armenians: From Kings and Priests to Merchants and Commissarsবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন। New York: Columbia University Press। পৃষ্ঠা 43–44আইএসবিএন 9780231139267The Armenian Apostolic Church formally became autocephalous—i.e. independent of external authority—in 554 by severing its links with the patriarchate of Constantinople. 
  3. "Catholicos of All Armenians"armenianchurch.org। Mother See of Holy Etchmiadzin। 
  4. ""ՀԱՅԱՍՏԱՆՅԱՅՑ ԱՌԱՔԵԼԱԿԱՆ ՍՈՒՐԲ ԵԿԵՂԵՑԻ" ԿԿ - HAYASTANYAYC ARAQELAKAN SURB YEKEGHECI RO"e-register.am। Electronic Register. Government of the Republic of Armenia। ৩০ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মে ২০২১ 
  5. Augusti, Johann Christian Wilhelm; Rheinwald, Georg Friedrich Heinrich; Siegel, Carl Christian Friedrich। The Antiquities of the Christian Church। পৃষ্ঠা 466। 
  6. Scott, Michael (২০১৬-১১-০১)। Ancient Worlds: A Global History of Antiquity। Basic Books। আইএসবিএন 978-0-465-09473-8 
  7. Grousset, René (১৯৮৪) [1947]। Histoire de l'Arménie (ফরাসি ভাষায়)। Payot। পৃষ্ঠা 122। . Estimated dates vary from 284 to 314. Garsoïan (op.cit. p. 82), following the research of Ananian, favours the latter.

উৎস[সম্পাদনা]

অধিকতর পাঠ[সম্পাদনা]

রোমান ক্যাথলিক মণ্ডলীর সাথে আর্মেনীয় ধর্মীয় সম্পর্ক[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Armenian Apostolic Church টেমপ্লেট:Patriarchates in Christianity

টেমপ্লেট:Oriental Orthodoxy টেমপ্লেট:History of Christianity

টেমপ্লেট:Armenia topics টেমপ্লেট:Demographics of Turkey