আর্মেনীয় গণহত্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

আর্মেনীয় গণহত্যা (আর্মেনীয় ভাষায়: Հայոց ցեղասպանություն হাযত্স ত্সেঘাস্পানুত্যুন) বলতে ১ম বিশ্বযুদ্ধের সময় (১৯১৫-১৯১৬) তুরস্কে আর্মেনীয় সম্প্রদায়ের জাতিগত পরিশুদ্ধি অভিযান ও গণহত্যার শিকার হওয়াকে বুঝানো হয়| ১ম বিশ্বযুদ্ধের সময় ১৯১৫ সালে রুশ ককেসাস সেনাবাহিনী পূর্ব আনাতোলিয়ায় অগ্রসর অব্যাহত রাখলে,[১] উসমানীয় সরকার স্থানীয় জাতিগত আর্মেনীয়দের স্থানান্তর শুরু করে। ফলশ্রুতিতে প্রায় ১৫ লক্ষের মত আর্মেনীয় মৃত্যুবরণ করেছিল যা আর্মেনীয় গণহত্যা বলে পরিচিত।[২] এছাড়াও গ্রিক ও এসিরিয়ান সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধেও বড় আকারের হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।[৩][৪][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Encyclopædia Britannica। "Armenian massacres (Turkish-Armenian history)"। Britannica Online Encyclopedia। সংগৃহীত ২৬ আগস্ট ২০১০ 
  2. Peter Balakian (১৩ অক্টোবর ২০০৯)। The Burning Tigris। HarperCollins। পৃ: xvii। আইএসবিএন 978-0-06-186017-1। সংগৃহীত ৮ জুন ২০১৩ 
  3. Schaller, Dominik J; Zimmerer, Jürgen (২০০৮)। "Late Ottoman genocides: the dissolution of the Ottoman Empire and Young Turkish population and extermination policies – introduction"Journal of Genocide Research 10 (1): 7–14। ডিওআই:10.1080/14623520801950820। "The genocidal quality of the murderous campaigns against Greeks and Assyrians is obvious" 
  4. "আর্মেনীয় গণহত্যার ১০০ বছর" (বাংলা ভাষায়)। সংগৃহীত ০৩ জুন, ২০১৬ 
  5. "বিংশ শতাব্দীর প্রথম গণহত্যা আর্মেনিয়ায় : পোপ" (বাংলা ভাষায়)। ১২ এপ্রিল, ২০১৫। সংগৃহীত ০৩ জুন, ২০১৬