আব্দুস সালাম মুর্শেদী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আব্দুস সালাম মুর্শেদী
Abdus Salam Murshedy 2018 (1) (cropped).jpg
আব্দুস সালাম মুর্শেদী, ২০১৮
জন্ম
বাসস্থানঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশি
জাতিসত্তাবাঙালি
শিক্ষাএইচএসসি
পেশাব্যবসা

আব্দুস সালাম মুর্শেদী বাংলাদেশের সাবেক জাতীয় দলের ফুটবল খেলোয়াড় এবং উদ্যোক্তা। তিনি এনভয় গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) জৈষ্ঠ্য সহ-সভাপতি, বাংলাদেশে এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ইএবি) সভাপতি এবং বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সাবেক সভাপতি। তিনি বাংলাদেশ সরকারের কর্তৃক ২০১৪ সালে বাণিজ্যিক ভাবে গুরুত্বপূর্ণ (সিআইপি) হিসেবে নির্বাচিত হন। [১][২] তিনি ২০১৮ সালে খুলনা-৪ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।[৩]

জন্ম ও শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

সালাম মুর্শেদীর জন্ম খুলনা জেলায় রূপসা উপজেলার নৈহাটী গ্রামে।[৪] তার বাবার নাম মো. ইসরাইল ও মায়ের নাম মোসা. রিজিয়া খাতুন। চার ভাই দুই বোনের মধ্যে একমাত্র তিনিই ফুটবলার।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ব্যবসায়ী সালাম মুর্শেদী এনভয় গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।[৫] এছাড়া তিনি বেসরকারি ব্যাংক প্রিমিয়ার ব্যাংকের পরিচালক। [৬] ১৯৮৪ সালে এনভয় গার্মেন্টসের যাত্রা শুরু হয়। পরবর্তীতে তিনি আরো ১৫টি তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান তৈরি করেন। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশে এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ইএবি) সভাপতি, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) জৈষ্ঠ্য সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউএফটি) পরিচালনা পর্ষদ সদস্য এবং প্রিমিয়ার ব্যাংকের পরিচালক। এর আগে তিনি বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ও বাংলাদেশ মোহামেডান স্পোটিং ক্লাবের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৪ সালে ব্যবসায় যুক্ত হন তিনি। বিজেএমসিতে খেলার সময় প্লাটিনাম জুট মিলের সুপারভাইজার হিসেবে চাকুরি শুরু করে পরে খুলনা মুসলিম ক্লাবে না খেলে প্লাটিনাম জুট মিলের হয়ে খেলেন মুর্শেদী। চাকরির সুবাদে প্লাটিনাম জুট মিলের পরিবেশ দেখে সে রকম একটা ইন্ডাস্ট্রির স্বপ্ন দেখেছিলেন। মোহামেডান ক্লাবে খেলার সুবাদে কুতুব উদ্দিন আহমেদেরে সঙ্গে পরিচয় ছিল। তারপর কুতুব উদ্দিন আহমেদের সাথে মিলে ১৯৮৪ সাল থেকে এনভয় গ্রুপের শুরু করেন।

খেলোয়াড়[সম্পাদনা]

খুলনায় ফুটবলে হাতেখড়ি। ফুটবলের পাশাপাশি ১০০ মিটার স্প্রিন্টে অংশ নিয়ে জেলা পর্যায়েও চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন তিনি। ১৯৭৪ সালে ইয়ং মুসলিম ক্লাবে ফুটবল খেলেছেন। তারপর মুসলিম ক্লাবের (এখনকার খুলনা মোহামেডান) হয়ে স্থানীয় লিগ খেলার পাশাপাশি জেলা দলেও খেলেছেন সালাম মুর্শেদী। ’৭০-এর দশকে খুলনার ইয়ং বয়েজ ক্লাবের হয়ে খেলার মাধ্যমে ফুটবলে তার যাত্রা শুরু। সত্তরের দশকের শেষ ভাগে তিনি খুলনা থেকে ঢাকায় আসেন। সে সময় আজাদ স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে ঢাকা সিনিয়র ডিভিশন ফুটবল লীগে খেলা শুরু করেন। পরে মোহামেডানের হয়ে জাতীয় ফুটবল লীগের এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ২৭ গোল করেন তিনি। ১৯৮২ সালের সর্বোচ্চ গোলের সেই রেকর্ডটি এখনও আছে। সে বছর মোহামেডান ঢাকার সব ট্রফি জিতেছে। ওই বছর ভারতের দুর্গাপুরে আশীষ-জব্বার স্মৃতি টুর্নামেন্ট জেতে মোহামেডান, সেখানে ১০ গোল করেছিলেন মুর্শেদী।

অন্যান্য[সম্পাদনা]

ব্যবসার পাশাপাশি শারীরিক ভাবে অক্ষমদের জন্য পিজিক্যালী চ্যালেঞ্জড ডেভলপমেন্ট ফাউন্ডেশন নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত আছেন সালাম মুর্শেদী। এ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে স্থানীয় ভাবে বিভিন্ন সহায়তা, খেলাধুলায় সহায়তা এবং ফুটবলের উন্নয়নের নানা ধরনের কাজ করে থাকেন তিনি।

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

সালাম মুর্শেদীর স্ত্রী শারমিন সালাম। এ দম্পতির দুই ছেলে ও এক মেয়ে। [৭]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাণিজ্যিক ভাবে গুরত্বপূর্ণ ব্যক্তি, সিআইপি (রপ্তানী) (২৪ অক্টোবর ২০১৭)। "বাংলাদেশ গেজেট" (PDF)বাণিজ্য মন্ত্রনালয়, বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৭ আগস্ট ২০১৮ 
  2. "সিআইপি হলেন ১৭৮ ব্যবসায়ী"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-২৭ 
  3. "সালাম মুর্শেদী খুলনা-৪ আসনের এমপি নির্বাচিত"bangla.bdnews24.com। খুলনা। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. "কোন আসনের প্রার্থী সালাম মুর্শেদী ও ড. মসিউর!"Risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-২৭ 
  5. "ব্যবস্থাপনা পরিচালক"www.envoy-group.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-২৭ 
  6. "পরিচালকদের প্রোফাইল"premierbankltd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-২৭ 
  7. "আমার অর্থ অর্জন সম্মান সব কিছুর মূলে ফুটবল"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-২৮