আবদুর রহিম (ফেনী জেলার পণ্ডিত)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আবদুর রহিম
আবদুর রহিম (ফেনী জেলার পণ্ডিত).jpg
আব্দুর রহিম
জন্ম১৮৮২
দৌলতখান উপজেলা, ভোলা জেলা
মৃত্যু১৭ জানুয়ারি ১৯৭৮
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ

মাওলানা আবদুর রহিম (জন্ম ১৮৮২ - মৃত্যু ১৭ জানুয়ারি ১৯৭৮) বাংলাদেশের ফেনী জেলার একজন ইসলামি পণ্ডিত, গবেষক ও শিক্ষাবিদ ছিলেন।[১][২] তিনি স্থানীয়ভাবে বড় হুজুর নামে পরিচিত ছিলেন, তিনি ফেনীর উল্লেখযোগ্য আলিয়া মাদ্রাসা হাজিপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছেন।[৩][৪] তিনি স্বাধীনতা পুরস্কার বিজয়ী আনজুমান-ই-মুফিদুল ইসলামের সক্রিয় কর্মী ছিলেন।[৫]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

আব্দুর রহিম ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলার দৌলতখান উপশহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি নিজ গ্রামের মাদ্রাসায় প্রাথমিক ইসলামি শিক্ষা গ্রহণ করেন, এবং উচ্চ শিক্ষার জন্য কলকাতা আলিয়া মাদ্রাসায় গমন করেন এবং সেখান থেকে টাইটেল পাশ করেন।[৫] এছাড়াও তিনি বিভিন্ন আলেমদের সান্নিধ্যে থেকে জ্ঞান অর্জন করেছেন। তিনি কুরআন-হাদিস, আল-ফিকহ, বালাগাত-মানতিক, আরবি ব্যকরনের উপর সুস্পষ্ট দক্ষতা অর্জন করেছিলেন। তিনি স্থানীয় আলেমদের নিকট ওয়াজ চর্চা শিখেছিলেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তিনি কলকাতা আলিয়া মাদ্রাসা থেকে পড়াশোনা শেষ করে গ্রামে এসে সারাজীবন ইসলাম প্রচারের কাজে ব্যয় করেছেন, এবং এই কাজে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছেন। তিনি দুই বাংলার বিভিন্ন স্থানে ওয়াজ করেছেন। এবং তিনি আমৃত্যু হাজিপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেছেন, এবং এই মাদ্রাসার প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। তার উদ্যোগের জন্য তিনি সর্বজনীন প্রিয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

উত্তরাধিকার[সম্পাদনা]

তার মৃত্যু বার্ষিকীতে হাজিপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা ও হাজিপুর ফাউন্ডেশন প্রতিবছর বার্ষিক জালসা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে থাকে।[৩][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. দিগন্ত, Daily Nayadiganta-নয়া। "মৃত্যুবার্ষিকী"Daily Nayadiganta। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-১২ 
  2. (বাংলা ভলিউম ১৪, পৃ: ৩১২)বাংলাপিডিয়া 
  3. "আবদুর রহিম"Jugantor (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-১৩ 
  4. "মৃতু্যবার্ষিকী"jjdin। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-১৩ 
  5. "হাজিপুর সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-১২ 
  6. "44th death anniversary of Maulana Abdur Rahim"The Business Standard (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০১-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-১৩