আতিকুল ইসলাম (মেয়র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আতিকুল ইসলাম
মেয়র, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন
দায়িত্বপ্রাপ্ত
অধিকৃত অফিস
৭ মার্চ ২০১৯
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
পূর্বসূরীজামাল মোস্তফা (ভারপ্রাপ্ত)
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1961-07-01) ১ জুলাই ১৯৬১ (বয়স ৫৭)
সৈয়দপুর, নীলফামারী
জাতীয়তাবাংলাদেশি
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
মাতামাজেদা খাতুন
পিতামমতাজউদ্দিন আহমেদ
আত্মীয়তাফাজ্জাল ইসলাম (ভাই)
মইনুল ইসলাম (ভাই)
যে জন্য পরিচিতব্যবসায়ী নেতা

আতিকুল ইসলাম (জন্ম ১ জুলাই ১৯৬১) একজন বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র। তিনি ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উপ-নির্বাচনে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন[১] এবং ৭ মার্চ মেয়র হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।[২] এরপূর্বে তিনি ২০১৩-১৪ মেয়াদে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

আতিকুল ইসলাম ১৯৬১ সালের ১ জুলাই নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর শহরে জন্মগ্রহণ করেন।[৩] তার পৈতৃক নিবাস কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলায় (বর্তমান তিতাস উপজেলা)।[৩] তার পিতার নাম মমতাজউদ্দিন আহমেদ ও মাতার নাম মাজেদা খাতুন। এই দম্পতির ৬ মেয়ে ও ৫ ছেলের মধ্যে আতিকুল সবার ছোট। আতিকুলের জন্মের সময় তার পিতা সৈয়দপুরে কর্মরত ছিলেন।[৩] আতিকুল বিএএফ শাহীন স্কুল ও কলেজ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আতিকুল ইসলাম ও তার ভাই শফিকুল ইসলাম ১৯৮৫ সালে ইসলাম গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে পোশাকখাতে ব্যবসা শুরু করেন।[৪] বর্তমানে তিনি গ্রুপটির পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[৫] তিনি ২০১৩-১৪ মেয়াদে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশের পোশাকখাতের শ্রম পরিস্থিতি ও পণ্যের মান উন্নয়নে গঠিত সেন্টার অব এক্সিলেন্স ফর বাংলাদেশ অ্যাপারেল ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন। বাংলাদেশ সরকার তাকে বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) হিসেবে ঘোষণা করে।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে তৎকালীন মেয়র আনিসুল হক জয় লাভ করেন কিন্তু ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর তার মৃত্যুতে মেয়রের আসনটি শূন্য হওয়ার পর, ২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পুনরায় উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় যাতে আওয়ামী লীগের সমর্থনে আতিকুল ইসলাম জয়লাভ করেন।

পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

আতিকুল ব্যক্তিগত জীবনে ডেন্টাল সার্জন শায়লা সাগুফতা ইসলামের সাথে বিবাহ বন্ধনে আদ্ধ হন।[৩] এই দম্পতির এক কন্যা রয়েছে। আতিকুল ইসলামের পিতা মমতাজউদ্দিন আহমেদ ছিলেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা।[৬] মমতাজউদ্দিন ১৯৬৫ সালে পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট (এসপি) হিসাবে অবসর গ্রহণ করেন।[৭] আতিকুলের ভাই তাফাজ্জাল ইসলাম বাংলাদেশের ১৭তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন[৮] এবং অপর ভাই লেফটেন্যান্ট জেনারেল মইনুল ইসলাম বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রধান ছিলেন।[৬][৯][১০]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • ওয়ালমার্ট - সবচেয়ে সফল উদ্যোক্তা (১৯৯৭, ১৯৯৮, ২০০১, ২০০৩, ২০০৪, ২০০৫, ২০০৬ ও ২০১০)[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "মেয়র পদে জয়ী আতিকুল ইসলাম"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  2. "শপথ নিলেন নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৭ মার্চ ২০১৯ 
  3. "আতিকুল ইসলাম"আতিকুলইসলাম’কম। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  4. "প্রোফাইল"ইসলাম গার্মেন্টস। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  5. "Islam Group of Industries Ltd"ডেইলি সান (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  6. "জামা ইস্ত্রি করতে পারিনি, পয়সা ছিল না: আতিকুল ইসলাম"বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  7. "তিতাস উপজেলা"তিতাস উপজেলা সরকারি ওয়েবসাইট। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  8. "প্রধান বিচারপতি তাফাজ্জাল ইসলাম শপথ নিলেন"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  9. "সিগন্যাল পেয়েই গণসংযোগ করছি, বাংলানিউজকে আতিকুল"বাংলানিউজ২৪.কম। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  10. "লেফটেন্যান্ট জেনারেল মো. মইনুল ইসলাম নতুন পিএসও"বাংলাদেশ প্রতিদিন। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 
  11. "আতিকুল ইসলাম"সিএসআর এশিয়া। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯